১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, রবিবার ১১:৫৭:৪৪ এএম
সর্বশেষ:

০১ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৯:৩০:৫২ পিএম শুক্রবার     Print this E-mail this

স্মার্টকার্ড পেয়ে খুশি কক্সবাজার পৌরসভার মানুষ

চঞ্চল দাশগুপ্ত,কক্সবাজার প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 স্মার্টকার্ড পেয়ে খুশি কক্সবাজার পৌরসভার মানুষ

কক্সবাজার পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের মডেল হাই স্কুলে শুক্রবার সকাল থেকে সাধারণ নাগরিকদের মাঝে ডিজিটাল ভোটার আইডি কার্ড (স্মার্ট জাতীয় পরিচয়) বিতরণ শুরু হয়েছে। আর তাই প্রথমবারের মতো ডিজিটাল ভোটার আইডি কার্ড (স্মার্ট জাতীয় পরিচয়) হাতে পেয়ে খুশি কক্সবাজার পৌর এলাকার সাধারণ মানুষ।তারা বলছেন, ডিজিটাল বাংলাদেশ এখন আর শুধু কথায় নয় বাস্তবে রূপ নিয়েছে।একজন জেলে, শ্রমিক থেকে শুরু করে স্কুল শিক্ষকসহ সকলের জন্য স্মার্ট কার্ড ডিজিটাল বাংলাদেশেরই প্রতিচ্ছবি।এর মধ্য দিয়ে তারা ভোটাধিকার প্রয়োগ, ব্যাংক হিসাব, চাকরির আবেদন, বিয়ে ও তালাক রেজিস্ট্রেশনসহ ২২টি সেবাখাতের সুবিধা ভোগ করতে পারবেন।
১লা ডিসেম্বর শুক্রবার সকালে কক্সবাজার পৌর এলাকার ১নং ওয়ার্ডের মডেল হাই স্কুলে শুক্রবার সকাল থেকে সাধারণ নাগরিকদের মাঝে ডিজিটাল ভোটার আইডি কার্ড (স্মার্ট জাতীয় পরিচয়) বিতরণ শুরু হয়েছে। কক্সবাজার মডেল হাই স্কুলে পৌরসভার চার বিশিষ্ঠ ব্যক্তিকে কার্ড দিয়ে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে উদ্বোধন করেন নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন।এসময় উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন, অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক) মাহিদুর রহমান, জেলা নির্বাচন কর্মকর্তা মোজাম্মেল হক, জেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি এডভোকেট সিরাজুল মোস্তফা, সাধারণ সম্পাদক মুজিবুর রহমান।
এসময় জেলা প্রশাসক মো: আলী হোসেন বলেন, কক্সবাজার পৌরবাসীর জন্য খুশির খবর তারা স্মার্ট কার্ড পাচ্ছেন। স্মার্ট কার্ড এমন একটি প্রয়োজনীয় জিনিস যা বিভিন্ন নাগরিক সুবিধা গ্রহন করার ক্ষেত্রে প্রয়োজন পড়ব। স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্রের সূচনা যেন ডিজিটাল বাংলাদেশকে আরও বহুদূর এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রত্যয়। শুধু তাই নয়, স্মার্ট কার্ড হল প্রতিটি নাগরিকের আত্মমর্যাদাবোধের প্রতিফলন।
নির্বাচন কমিশন সচিব হেলালুদ্দিন  বলেন, স্মার্ট জাতীয় পরিচয়পত্রে একজন মানুষের তথ্য এমনভাবে সন্নিবেশিত করা থাকে যা তাকে আলাদাভাবে চিহ্নিত করতে সাহায্য করে। এটি আমাদের জন্য গর্বের বিষয় স্মার্ট কার্ডটি আন্তর্জাতিক মানের করে তৈরি করা হয়েছে। আগে আমরা বিশ্বের অন্যান্য দেশে পাসপোর্ট ছাড়া অন্য কোন কিছু উপস্থাপন করতে পারতাম না। কিন্তু এখন পাসপোর্টের পাশাপাশি বাংলাদেশী হিসেবে স্মার্ট কার্ডও আমাদের পরিচয় বহন করবে। তিনি আরও বলেন,এটি শতভাগ পলিকার্বনেটেড। সর্বাধুনিক প্রযুক্তিতে বিভিন্ন স্তর বিশিষ্ট। লেজার খোদাই করে ব্যক্তিগত তথ্য ছাপানো হয়েছে যা পরিবর্তন সম্ভব নয়।এতে একই ব্যক্তির একাধিক ফিঙ্গার প্রিন্ট ব্যবহার সম্ভব নয়। বর্তমান ডিজিটাল যুগে প্রতিটি কাজে পরিচয়পত্রের প্রয়োজন হওয়ায় স্মার্ট কার্ডের গুরুত্ব অনেক।স্মার্ট কার্ডে একজন নাগরিকের সকল তথ্য সংরক্ষিত থাকবে। এটিকে নকল করা যাবে না। এ কার্ডের মাধ্যমে একজন মানুষকে খুব সহজে সনাক্ত করা যাবে।
এসময় কার্ড নিতে আসা ৬৫ বছর বয়স্ক ছাবের আহম্মদ উচ্ছ্বাসিত হয়ে বলেন, এ বয়সে এসে একজন সাধারণ নাগরিক হিসেবে এমন কার্ড পাব তা ভাবতে পারিনি। আমি এখন একজন গর্বিত বাংলাদেশী।
কার্ড নিতে আসা শিক্ষক মোস্তফা কামাল জানান, অনেক দিন ধরেই স্মার্ট কার্ডের অপেক্ষায় ছিলাম আজ অপেক্ষার পালা শেষ হয়েছে। এ কার্ড প্রতিদিনকার নাগরিক জিবনে নতুন মাত্রা যোগ করবে।
কক্সবাজার সদর উপজেলা নির্বাচন অফিসার শিমুল শর্মা জানান, কক্সবাজার পৌরসভার সহ পর্যায়ক্রমে কক্সবাজার সদরের প্রায় দুই লাখ ৬০ হাজার ভোটার স্মার্টকার্ড পাবে। ২০১৫ সালের আগে যারা ভোটার তালিকায় অন্তর্ভুক্ত হয়েছেন, তারাই মূলতঃ ‘স্মার্ট কার্ড’-এর আওতায় পড়েছে। তবে এই স্মার্টকার্ড নেওয়ার সময় নাগরিকদের পুরনো কার্ড জমা দেওয়ার পাশাপাশি ১০ আঙ্গুলের ছাপ ও চোখের মণির ছবি নেয়া হচ্ছে। নির্বাচন অফিস সুত্রে আরো জানা গেছে, স্মার্টকার্ড নেওয়ার সময় ভোটারদের নতুন করে কোনও ছবি তুলতে হবে না। নির্বাচন কমিশনে প্রত্যেক ভোটারের যে ছবি ও অন্যান্য তথ্য সংরক্ষিত রয়েছে, তারই ভিত্তিতে তৈরি হচ্ছে স্মার্ট কার্ড। প্রত্যেক ভোটারকে স্মার্ট কার্ড নেওয়ার সময় তাদের কাছে থাকা কার্ডটি জমা দিতে হবে।এছাড়া সকল নাগরিকদেরকে যথা সময়ে নিজ নিজ এলাকা থেকে স্মার্ট কার্ড সংর্গহ করার পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। কারন পরে কার্ড সংগ্রহ করা অনেক কষ্টসাধ্য হবে বলে জানা গেছে। কোথায় কোথায় কাদের মাঝে স্মার্ট কার্ড বিতরন করা হবে সে তালিকা এ সংবাদের নিচে দেওয়া আছে। ১লা ডিসেম্বর কক্সবাজার পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড দিয়ে স্মার্ট কার্ড বিতরণ কার্যক্রম শুরু হয়ে তা শেষ হবে ২৯ ডিসেম্বর। প্রতিদিন সকাল ৮ টা থেকে বিকাল ৫ টা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।
নির্বাচন অফিস সূত্র মতে, পৌরসভার ১নং ওয়ার্ড ১-২ ডিসেম্বর। ২নং ওয়ার্ড ৩-৪ ডিসেম্বর। ৩নং ওয়ার্ড ৫-৬ ডিস্বের। ৪নং ওয়ার্ড ৭ ও ৯ ডিসেম্বর। ৫নং ওয়ার্ড ১০-১১ ডিসেম্বর। ৬নং ওয়ার্ড ১২-১৩ ডিসেম্বর। ৭নং ওয়ার্ড ১৪ ও ১৭ ডিসেম্বর। ৮নং ওয়ার্ড ১৮-১৯ ডিসেম্বর। ৯নং ওয়ার্ড ২০-২১ ডিসেম্বর। ১০নং ওয়ার্ড ২৩-২৪ ডিসেম্বর। ১১নং ওয়ার্ড ২৬-২৭ ডিসেম্বর। ১২নং ওয়ার্ড ২৮-২৯ ডিসেম্বর স্মার্টকার্ড বিতরণ করা হবে।





সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
কার্যালয়
চৌধুরী কমপ্লেক্স, ৫০/এফ, ইনার সার্কুলার (ভিআইপি) রোড, নয়াপল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-৭১২৬৩৬৯
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2017. All rights reserved by Banglar Chokh
Developed by eMythMakers.com
Close