১৭ ডিসেম্বর ২০১৭, রবিবার ১২:০৬:১৭ পিএম
সর্বশেষ:

০৫ ডিসেম্বর ২০১৭ ০৪:৩৫:২২ পিএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ভর্তি টাকা কমালো প্রশাসন

নোয়াখালী প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুখে ভর্তি টাকা কমালো প্রশাসন

ভর্তি বাবত সাক্যল্যে ৫ হাজার টাকা ফি করাসহ ৮ দফা দাবীতে আন্দোলনের মুখে ভর্তি বাবত ৮ হাজার টাকা কমালো নোবিপ্রবি প্রশাসন। একই সঙ্গে অন্যান্য দাবীগুলোর বিষয়ে অল্প সময়ের মধ্যে প্রশাসন ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণের আশ্বাসও দিয়েছেন। এতে আন্দোলন থেকে সরে এসেছে শিক্ষার্থীরা। যার প্রেক্ষিতে গত সোমবার সারা দিন বন্ধ থাকা ভর্তি কার্যক্রম গতকাল মঙ্গলবার পুনরায় চালু করা হয়েছে।
আন্দোলন থেকে সরে আসার কথা নিশ্চিত করেন আন্দোলনকারীদের একজন ফার্মেসি বিভাগের শেষ বর্ষের শিক্ষার্থী মোবারক হোসেন রঞ্জু। তিনি বলেন,স্নাতক প্রথম বর্ষের ভর্তিতে বিভাগ ওয়ারি ২২ হাজার থেকে ২৫ হাজার টাকা করে নিচ্ছে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এর প্রেক্ষিতে ভর্তি বাবত টাকা কমানোসহ মোট ৮ দফা দাবীতে তাঁরা আন্দোলনে নামে। সোমবার সকাল থেকে ভর্তি কার্যক্রম চলা ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস’ অডিটোরিয়ামের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে তারা অবস্থান করে। এতে সোমবারের ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। পরে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন একাধিকবার তাঁদের সঙ্গে আলোচনা করে। পরবর্তী ছাত্র প্রতিনিধিদের সঙ্গে উপাচায্য প্রফেসর ড. এম অহিদুজ্জামানও বৈঠক করেন। বৈঠক থেকে ভর্তি বাবত তাৎক্ষণিক ৮ হাজার টাকা কমানো হয়। একই সঙ্গে অন্য দাবীগুলো খুব দ্রুত সময়ের মধ্যে একাডেমিক কাউন্সিল, অর্থ কমিটিসহ বিভিন্ন কমিটিতে উপস্থাপন পূর্বক ইতিবাচক পদক্ষেপ গ্রহণ করারও আশ্বাস দেন তিনি। সোমবার রাত প্রায় ৮টার দিকে প্রশাসনের এমন পদক্ষেপের কথা জানালে তারা আন্দোলন থেকে সরে আসেন।
গতকাল সরেজমিনে গেলে ভর্তি হতে আশা একাধিক শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা জানান, শিক্ষার্থীদের আন্দোলনের মুকে প্রশাসন তাৎক্ষণিক ৮ হাজার টাকা কমিয়েছে। এতে সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন শিক্ষার্থী ও তাদের অভিভাবকরা। গতকাল সকাল থেকে প্রত্যেক বিভাগে ভর্তি হতে আশা শিক্ষার্থীরা আগের চেয়ে ৮ হাজার টাকা করে কম দিচ্ছে ব্যাংকে। যারা আগে অতিরিক্ত জমা দিয়েছে তাদের অতিরিক্ত ৮ হাজার টাকা অন্যভাবে সমন্বয় করারও আশ্বাস দেয় প্রশাসন।
জানতে চাইলে ভর্তি বাবত ৮ হাজার টাকা কমানোর কথা নিশ্চিত করেন প্রক্টর মুহাম্মদ মুশফিকুর রহমান। তিনি বলেন, শিক্ষার্থীদের দাবীগুলোর মধ্যে বেশ কিছু দাবী আন্দোলনের আগ থেকেই পুরণ প্রক্রিয়াধীন ছিল। এছাড়া কিছু দাবীর বিষয়ে আগামী একাডেমিক কাউন্সিল ও অর্থ কমিটি সভায় উপস্থাপন করার সিদ্ধান্ত হয়। এক প্রশ্নে তিনি বলেন, সোমবার আনুষ্ঠানিকভাবে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ ছিল না। আন্দোলনের কারণে সাময়িক বন্ধ ছিল। গতকাল মঙ্গলবার সকাল থেকে পুনরায় ভর্তি কার্যক্রম চালু করা হয়েছে।
প্রসঙ্গত: নোবিপ্রবিতে ২০১৭-১৮ শিক্ষাবর্ষের স্নাতক প্রথমবর্ষের ভর্তি বাবত সাক্যল্যে ৫ হাজার টাকা করাসহ ৮ দফা দাবিতে গত সোমবার সকাল থেকে ‘বীর মুক্তিযোদ্ধা হাজী মোহাম্মদ ইদ্রিস’ অডিটোরিয়ামের প্রধান ফটকে তালা ঝুলিয়ে শিক্ষার্থী অবস্থান কর্মসূচি পালন করে। দিন ব্যাপি আন্দোলনের মুখে ভর্তি কার্যক্রম বন্ধ হয়ে যায়। তাদের অন্যান্য দাবীগুলো হচ্ছে- বিভাগীয় ট্রান্সক্রিপ্ট বাবত ২০ ও মূল সনদ বাবত ৫০ টাকা নেয়া, ব্যাকলগের বর্ধিত ফি প্রত্যাহার করে তা ৩০০ টাকা করা এবং ইম্প্রুভমেন্টের সর্বনিন্ম জিপিএ- ৩.০০ করা, ওয়ান স্টপ এ্যম্বুলেন্স সার্ভিস চালু করা এবং শিক্ষার্থী কেন্দ্রিক যেকোনো সিদ্ধান্ত ছাত্র প্রতিনিধিদের সঙ্গে আলোচনা করে নিতে হবে, আবাসন ব্যবস্থা নিশ্চিত করতে হবে এবং হলের খাদ্যে ভর্তুকি দিতে হবে ও পুরো ক্যাম্পাসে নিরবিচ্ছিন্ন ওয়াইফাই ইন্টারনেট চালু করা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
কার্যালয়
চৌধুরী কমপ্লেক্স, ৫০/এফ, ইনার সার্কুলার (ভিআইপি) রোড, নয়াপল্টন, ঢাকা-১০০০।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-৭১২৬৩৬৯
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2017. All rights reserved by Banglar Chokh
Developed by eMythMakers.com
Close