২৩ অক্টোবর ২০১৮, মঙ্গলবার ০৪:৩৭:৩৪ এএম
সর্বশেষ:

০৯ মে ২০১৮ ১১:৫৫:১৮ পিএম বুধবার     Print this E-mail this

ক্ষমতায় মালয়েশিয়ার বিরোধী দল

ডেস্ক রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 ক্ষমতায় মালয়েশিয়ার বিরোধী দল

৯২ বছর বয়সী আধুনিক মালয়েশিয়া গড়ার রূপকার ডঃ মাহাথীর বিন মোহাম্মদ পৃথিবীর গণতান্ত্রিক ইতিহাসে রেকর্ড গড়ে মালয়েশিয়ার পরবর্তী কান্ডারী হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। নির্বাচনে ক্ষমতাসীন নাজিব রাজ্জাকের দলের ভরাডুবি হয়েছে। ১৪তম সাধারণ নির্বাচনে বেসরকারি ফলাফলে দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ নেতৃত্বাধীন পাকাতান হারাপান জাতীয় সংসদের ২২২ আসনের মধ্যে ১২৬ টি আসন পেয়ে মালয়েশিয়ার পরবর্তী ক্ষমতাসীন দল হিসেবে নির্বাচিত হয়েছে। মালয়েশিয়ার একটি প্রভাবশালী গণমাধ্যম এ খবর নিশ্চিত করেছে। সর্বশেষ ফলাফলে দেখা যায়, মাহাথির মোহাম্মদের পাকাতান হারাপান ১২৬ আসন এবং দেশটির ক্ষমতাসীন প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের বারিসান ন্যাশনাল ৮৮, পাশ ১৪ এবং অন্যান্য ৫টি আসনে জয় পেয়েছে। এখন নতুন সরকার গঠনের অপেক্ষায় সাবেক এই প্রধানমন্ত্রী।

বুধবার সকাল ৮টা থেকে শুরু হওয়া ভোটগ্রহণ স্থানীয় সময় বিকেল ৫টায় শেষ হয়েছে। মালয়েশিয়ায় নির্বাচনের অনানুষ্ঠানিক ফলাফল দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ নেতৃত্বাধীন বিরোধীদল পাকাতান হারাপানের দিকে ঝুলছে।

দেশটির পূর্বাঞ্চলের সারাওয়াক প্রদেশে ক্ষমতাসীন দলের দুই মন্ত্রী ইতোমধ্যে হেরে গেছেন। মালয় অধ্যুষিত ওই অঞ্চলে চীনা ও ভারতীয় দুটি দলের প্রধান তাদের নিজ আসনে পরাজিত হয়েছেন। এই অঞ্চলকে ক্ষমতাসীন ন্যাশনাল ফ্রন্টের ভোট ব্যাংক হিসেবে পরিচিত।

দেশটির নির্বাচন কমিশন আনুষ্ঠানিক ফল ঘোষণা করবে বৃহস্পতিবার। এদিকে, ক্ষমতাসীন এবং বিরোধী শিবির থেকে নির্বাচন কমিশনের সমালোচনা করা হয়েছে।

মালয়েশিয়ার মারদেকা অপিনিয়ন সেন্টার বলছে, ২০১৩ সালের সাধারণ নির্বাচনে ৮৫ শতাংশ ভোট পড়লেও এবার সেসংখ্যা কিছু কম। তবে অন্যান্য বছরের নির্বাচনের চেয়ে এবারে ভোট পড়ার সংখ্যা তুলনামূলক বেশি।

কেন্দ্রীয় পার্লামেন্টের ২২২ আসনে এবং ১৩ রাজ্যের ১২টিতে ৫০৫ আসনে প্রার্থীরা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছেন। একটি রাজ্যে বুধবারই ন্যাশনাল ফ্রন্টকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়েছে। মালয়েশিয়া ভোটার রয়েছে প্রায় দেড় কোটি। এর মধ্যে পুলিশ ও সশস্ত্র বাহিনীর ৩ লাখ ভোটার ৫ মে আগাম ভোট দিয়েছেন।

এদিকে, মালয়েশিয়ার জাতীয় নির্বাচনে জয়লাভ করেছেন বলে দাবি করেছেন দেশটির সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদ। দেশটির সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ক্ষমতায় থাকা এই নেতার দাবি, তিনি ১১২টি আসনে জয়লাভ করেছেন কিন্তু নির্বাচন কমিশন সেটি প্রকাশে বিলম্ব করছে। সিঙ্গাপুরভিত্তিক সংবাদমাধ্যম স্ট্রেইট টাইমসের এক প্রতিবেদন থেকে এই তথ্য জানা যায়।

এখনও কোনও আনুষ্ঠানিক ঘোষণা না আসেনি। মন্তব্য করেননি কোনও বারিসান নেতাও।

মালয়েশিয়ার সাবেক প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদকে আধুনিক মালয়েশিয়ার স্থপতি বলা হয়। তিনি ১৯৮১ সালে মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব নেন। তার নেতৃত্বে ক্ষমতাসীন দল ইউএমএনও টানা পাঁচবার নির্বাচনে জয়ী হয়ে সরকার গঠন করে। এশিয়ার সবচেয়ে দীর্ঘ সময় ধরে গণতান্ত্রিকভাবে নির্বাচিত প্রধানমন্ত্রী ছিলেন তিনি। টানা ২২ বছর পর ২০০৩ সালের ৩০ অক্টোবর তিনি স্বেচ্ছায় প্রধানমন্ত্রীর পদ ছেড়ে দেন।

সাবেক দল ইউনাইটেড মালয়স ন্যাশনাল অর্গানাইজেশনকে এ নির্বাচনে চ্যালেঞ্জ ছুঁড়ে দিয়েছেন মাহাথির মোহাম্মদ। বর্তমান প্রধানমন্ত্রী নাজিব রাজাকের কর্মকাণ্ডে হতাশ হয়ে ২০০৩ সালে এ দল থেকে পদত্যাগ করেছিলেন মাহাথির। সেখান থেকে পদত্যাগের পর মাহাথির নিজেই একটি রাজনৈতিক দল গঠন করেন। সে দল সরকার বিরোধী জোটে যোগ দেয়।


সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2018. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close