রবীন্দ্রনাথের মহাপ্রয়াণ দিবসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান
১৮ আগস্ট ২০১৮, শনিবার ০৫:০১:১৩ এএম
সর্বশেষ:

০৭ আগস্ট ২০১৮ ০১:৪১:৪১ এএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

রবীন্দ্রনাথের মহাপ্রয়াণ দিবসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

কুষ্টিয়া থেকে সুজন কুমার কর্মকার
বাংলার চোখ
 রবীন্দ্রনাথের মহাপ্রয়াণ দিবসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান

 কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে রবীন্দ্রনাথের মহাপ্রয়াণ দিবসে আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিবেশিত হয়েছে। ৬ আগষ্ট সোমবার সন্ধ্যায় কুষ্টিয়া পৌরসভার আয়োজনে মজিবর রহমান মিলনায়তনে আলোচনা সভায় কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলীর সভাপতিত্বে আলোচক হিসেবে আলোচনা করেন রবিন্দ্র ভারতী বিশ^বিদ্যালয়ের বাংলা বিভাগের সভাপতি ড. মুনমুন গঙ্গোপাধ্যায়। এছাড়া উপস্থিত ছিলেন প্রাবন্ধিক ও গবেষক এ্যাডঃ লালিম হক, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় বাংলা বিভাগের প্রফেসর ড. সরওয়ার মূর্শেদ রতন, আবৃত্তিকার আলম আরা জুঁই ও জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার সাধারণ সম্পাদক অশোক সাহা প্রমুখ। আলোচনা সভা ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান পরিচালনা করেন জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার প্রবাল ও কুষ্টিয়া পৌরসভার স্বাস্থ্য সহকারী দেবাশীষ বাগচী। আলোচনা সভা শেষে ভারতীয় শিল্পী ও জাতীয় রবীন্দ্রসঙ্গীত সম্মিলন পরিষদ কুষ্টিয়া জেলা শাখার শিল্পীদের পরিবেশনায় এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে অতিথিদেরকে উত্তরীয় দিয়ে বরণ করেন কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী, সৈয়দা হাবিবা ও কর্মকর্তা-কর্মচারীবৃন্দ । সকালে কুষ্টিয়া মিলপাড়াস্থ কুঠিবাড়িতে (টেগর লজ) অবস্থিত কবিগুরুর আবক্ষমূর্তিতে ফুলের মালা ও প্রদ্বীপ প্রজ্জ্বলন করেন কুষ্টিয়া পৌরসভার মেয়র আনোয়ার আলী।
মেয়র আনোয়ার আলী বলেন রবীন্দ্রনাথের কবিতা ও গান মানুষকে উদ্বুদ্ধ করতে পারে। রবীন্দ্রনাথের লেখায় “যদি তোর ডাক শুনে কেউ না আসে তবে একলা চলো রে”, “উদয়ের পথে শুনিকার বাণী ভয় নাই ওরে ভয় নাই”, এই কথাগুলো আমাদের ছয় দফা আন্দোলন থেকে শুরু করে স্বাধীনতা যুদ্ধে অনেক শক্তি ও সাহস জুগিয়েছিল। তিনি বলেন, আমাদের দেশের জাতীয় সংগীত তাঁরই লেখা। এছাড়া বিশ্বের আরও দুটি দেশের জাতীয় সংগীত তাঁর লেখা। মেয়র বলেন, রবীন্দ্রনাথ এমন প্রতিভার অধিকারী ছিলেন মানব জীবনের সব বিষয়ের কথা বলে গেছেন। রবীন্দ্রনাথ শুধু কবি, সাহিত্যিক ও দার্শনিকই ছিলেন না, তিনি ছিলেন একজন সমাজ কর্মী, সমাজ সংস্কারক, রাজনৈতিক ব্যক্তিত্ব, ছবি আঁকতেন, ইন্ডাষ্ট্রিজ ও কৃষকের জন্য ব্যাংক প্রতিষ্ঠা করেছিলেন। মেয়র আরও বলেন, তিনি নোবেল পুরষ্কারের টাকা দিয়ে কৃষকদের ভাগ্য উন্নয়নের জন্য অনেক কাজ করে গেছেন। তাই আমাদের জীবনের সাথে তার কথাগুলো যদি এক করতে না পারি, তাহলে আমাদের জীবন বৃথা। তিনি বলেন, রবীন্দ্রনাথ তাঁর সৃষ্টিকর্ম দিয়ে মানুষের ভেতরের মনুষ্যত্বকে জাগিয়ে তুলেছেন।




সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
কার্যালয়
জামান টাওয়ার (৮ম তলা), ৩৭/২ কালভাট রোড, পুরানা পল্টন, ঢাকা-১০০০।
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2018. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close