১৮ নভেম্বর ২০১৮, রবিবার ০১:৫৯:৪৮ পিএম
সর্বশেষ:
বাসসের ব্যবস্থাপনা সম্পাদক শাহরিয়ার শহীদের ইন্তেকাল ( ইননাল--- রাজিউন দুপুর ১:২০ মিনিটে রাজধানীর এ্যাপোলো হাসপাতালে মারা যান           

১৮ অক্টোবর ২০১৮ ০২:৩৫:৫৮ পিএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

আড়াইহাজারে ১১ কিলোমিটার সড়কের সংস্কার কাজে ধীর গতি জনদুর্ভোগ

এম এ হাকিম ভূঁইয়া,আড়াইহাজার থেকে
বাংলার চোখ
 আড়াইহাজারে ১১ কিলোমিটার সড়কের সংস্কার কাজে ধীর গতি জনদুর্ভোগ

নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে দফায় দফায় প্রকল্পের মেয়াদ বৃদ্ধি করা হলে শেষ হচ্ছে না প্রকল্পের কাজ। এতে মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছর উপজেলা সদর থেকে স্থানীয় সুলতানসাদী হয়ে স্থানীয় খাগকান্দা লঞ্চঘাট পর্যন্ত প্রায় ১১ কিলোমিটার সড়কের প্রশস্থ ও সংস্কার করুণ কাজ শুরু হয়। (সিআরডিপি) এর অধীনে প্রায় ৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা ব্যয়ে কাজটি এমএএইচ কনষ্ট্রাকশন এন্ড মের্সাস নূর এন্টাইপ্রাইজ (জেবি) নামে একটি ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে প্রকল্পের টেন্ডার দেয়া হয়।

উপজেলা এলজিইডির সূত্রে জানা গেছে, ২০১৬ সালের ২৭ ডিসেম্বরের মধ্যে কাজটি শেষ করার কথা ছিল। তবে নির্ধারিত সময়ে শেষ করতে না পারায় কাজের মেয়াদ কয়েক দফায় বৃদ্ধি করা হয়। এর মধ্যে প্রথম দফায় ২০১৭ সালের ৩০ জুন, দ্বিতীয় দফায় ৩১ মার্চ ও  তৃতীয় দফায় চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে কাজ করতে সময় বেঁধে দেয়া হয়েছে। তবে স্থানীয় এলডিইডির দাবী এরই মধ্যে প্রকল্পের ৯০ শতাংশ কাজ শেষ হয়েছে। নাম না প্রকাশের শর্তে এক প্রকৌশলী বলেন, সর্বশেষ চলতি বছরের ডিসেম্বর পর্যন্ত প্রকল্প বাস্তবায়নের মেয়াদ বেঁেধ দেয়া হয়েছে। বর্ধিত মেয়াদে কাজটি সম্পন্ন করতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে তাগিদ দেওয়া হচ্ছে। উক্ত সময়ের মধ্যে না হলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

জানা গেছে, সড়কটি দিয়ে উপজেলার পূর্বঅঞ্চল থেকে প্রতিদিন প্রায় ২০ হাজার মানুষ চলাচল করছেন। সড়কটি দীর্ঘদিন ধরে চলাচলে অযোগ্য হয়ে পড়েছে। বৃষ্টির পানি বিভিন্ন স্থানে গর্তে জমে সড়কে চলাচলে চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে লোকজন। আড়াইহাজার সদর থেকে স্থানীয় দক্ষিনপাড়া হয়ে উচিৎপুরা যাওয়ার কথা। কিন্তু রাস্তার কাজে ধীরগতি হওয়া যাত্রীবাহি কোন গাড়ী চলাচল করতে পারছে না। দীর্ঘদিন ধরে নৈকাহন হয়ে উচিৎপুরা ও খাগকান্দায় যেতে অতিরিক্ত সময় ব্যয় হচ্ছে। এতে মানুষকে চরম ভোগান্তি পোহাতে হচ্ছে।

লতবদি এলাকার জাকির হোসেন বলেন, দীর্ঘদিন ধরে সড়কের অবস্থা নাজুক। পুরো সড়কেই খানাখন্দে ভরপুর। গাড়ী চলাচলতো দূরের কথা, পায়ে হেটে চলাই যেন দোস্কর হয়ে পড়েছে।

সিএনজি চালক মনির বলেন, এ সড়কে প্রতিদিন প্রায় ২০ হাজার লোক সিএনসি দিয়ে যাতায়ত করছেন। সড়কে ছোট বড় অসংখ্য গর্তের কারনে প্রায় সময় যাত্রীবাহি গাড়ী উল্টে দুর্ঘটনা হচ্ছে। তিনি আরও বলেন, এ সড়ক দিয়ে গাড়ী চলাচল প্রায় বন্ধ হওয়ার উপক্রম হয়ে পড়েছে। অতিরিক্ত সময় ব্যয় করে গাড়ী নৈকাহন হয়ে উচিৎপুরা ও খাগকান্দা এলাকায় যেতে হচ্ছে। এতে ভোগান্তিতে পড়ছেন যাত্রীরা।

এ ব্যাপারে জানতে একটি মোবাইল নাম্বারে একাধিকবার কল করলেও তা রিসিভ না করায় ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান এমএএইচ কনষ্ট্রাকশন এন্ড মের্সাস নূর এন্টাইপ্রাইজ (জেবি) এর মালিক পক্ষে কোন বক্তব্য নেয়া সম্ভব হয়নি।

উপজেলা এলজিইডির উপসহকারি প্রকৌশলী সৈয়দ রেজাউল হক বলেন, কাজটি দ্রুত সম্পূর্ণ করতে ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানকে নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। তবে এরই মধ্যে প্রকল্পের কাজ ৯০ শতাংশ শেষ হয়েছে। তিনি আরও বলেন, আশা করছি চলতি বছরের ডিসেম্বরের মধ্যে কাজ সম্পূর্ণ হয়ে যাবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2018. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close