১৯ ডিসেম্বর ২০১৮, বুধবার ১২:১৮:২৭ পিএম
সর্বশেষ:

০৬ ডিসেম্বর ২০১৮ ০১:১৮:২৫ এএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

গাইবান্ধায় হরিজন সম্প্রদায়ের মানববন্ধন

গাইবান্ধা প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 গাইবান্ধায় হরিজন সম্প্রদায়ের মানববন্ধন

বিশ্ব মানবিক মর্যাদা দিবসে জাতি-বর্ণ ও পেশাভিত্তিক সকল বৈষম্যের অবসান ঘটিয়ে মানুষ হিসেবে মর্যাদাপূর্ন জীবনের অধিকার প্রতিষ্ঠার দাবিতে বুধবার দুপুরে গাইবান্ধা শহরের ডিবি রোডে এক মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।
মানববন্ধন ও সমাবেশ চলাকালে বক্তব্য রাখেন পরিবেশ আন্দোলন-গাইবান্ধার সভাপতি ওয়াজিউর রহমান রাফেল, জেলা জেএসডি সভাপতি লাসেন খান রিন্টু, জনউদ্যোগের সদস্য সচিব প্রবীর চক্রবর্তী, হরিজন ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সন্তোষ বাশফোর, হরিজন যুব ঐক্য পরিষদের নেতা রাজেশ বাশফোর, বিডিআরইএম এর সাধারণ সম্পাদক খিলন রবিদাস, রবিদাস উন্নয়ন পরিষদের সভাপতি সন্তোষ রবিদাস, বাংলাদেশ রবিদাস ফোরামের সভাপতি সুনীল রবিদাস, শেফালী রানী দেবনাথ, শ্যামলী রবিদাস, হরিলাল রবিদাস প্রমুখ।
বক্তারা বলেন, বাংলাদেশের দলিত সম্প্রদায় জাতপাত অস্পৃশ্যতার কারণে সবচেয়ে পশ্চাৎদ জনগোষ্ঠী হিসেবে পরিচিত। আধা কোটির উপরে দলিত জাত পাতের কারণে শত শত বছর ধরে অর্থনৈতিক, সামাজিক ও রাজনৈতিকভাবে শোষিত নিপীড়ণের শিকার। জন্ম থেকে মৃত্যু পর্যন্ত অস্পৃশ্যতার গ্লানি নিয়ে তাদের সমাজে সবচেয়ে নিচু শ্রেণির মানুষের পরিচয়ে পরিচিত করে এবং তারা বঞ্চিত হয় মৌলিক নাগরিক সুবিধা থেকে। পেশাজীবী পরিচ্ছন্ন কর্মীরা শিক্ষিত হলেও জাতপাত বৈষম্যের কারণে অন্য পেশায় অংশগ্রহণ বা টিকতে পারে না। যথেষ্ট যোগ্য বা শিক্ষিত হলেও সরকারি বা বেসরকারি চাকরিতে আবেদনকারীকে শুধু পরিচ্ছন্নতাকর্মী পদে যোগ্য বলে ধরা হয়। দলিতদের শিক্ষা ও যোগ্যতা অনুযায়ী চাকুরি দিতে হবে, সরকারি ও বেসরকারি যেকোনো চাকরিতে প্রবেশের ক্ষেত্রে দলিতদের প্রতি জাত-পাত ভিত্তিক বৈষম্য বন্ধ করতে হবে।
হরিজনদের হোটেল-রেষ্টুরেন্ট এ প্রবেশে বাঁধা দেওয়া হয়। তাদের খাবার দেওয়া হয় খবরের কাগজে বা পলিথিনে মুড়ে। রেললাইন, রাস্তা, ময়লা আবর্জনার পাশে বসে খাবার খেতে অথবা হরিজনদের নিজস্ব আলাদা কাপ, গ্লাস ও প্লেট নিয়ে হোটেলের সামনে দাঁড়িয়ে খাবার গ্রহণ করতে বাধ্য করা হয়। এর প্রতিবাদ করলে হোটেল মালিক শ্রমিক দ্বারা চরম নির্যাতনের স্বীকার হতে হয়।
বক্তারা আরো বলেন, বাংলাদেশ দলিত জনগোষ্ঠীর প্রতি সকল বৈষম্য অবসান ঘটাতে আইন কমিশন সুপারিশকৃত বৈষম্য বিলোপ আইন-২০১৪ প্রণয়ন করতে হবে। দলিতদের জন্য বিকল্প কর্মসংস্থান সৃষ্টি করতে হবে। বিকল্প পেশায় সক্ষমতা ও সুযোগ সৃষ্টি না হওয়া পযন্ত সরকারি আধাসরকারি ও স্বায়ত্বশাসিত প্রতিষ্ঠান, সিটি করপোরেশন, পৌরসভায় পরিচ্ছন্নতাকর্মীর পেশায় অগ্রাধিকার দিতে হবে। দলিত জনগোষ্ঠীকে বিকল্প পেশায় উৎসাহিত করতে তাদের জন্য কারিগরী প্রশিক্ষনের সুযোগ বাড়ানো, দলিত শিক্ষার্থীদের শিক্ষা থেকে ঝরে পড়া রোধকল্পে সরকারকে কার্যকরী উদ্যোগ গ্রহণ এবং এই জনগোষ্ঠীর ছাত্র/ছাত্রীদের বিশেষ উপবৃত্তি প্রদান, সরকারী চাকরিতে দলিত জনগোষ্ঠীর জন্য কোটা ব্যবস্থা প্রবর্তন,  দেশের সকল জেলার দলিত জনগোষ্ঠীর আবাসন সমস্যা সমাধানে বিশেষ পরিকল্পনা গ্রহণ করার দাবি জানান।
উল্লেখ্য, অবলম্বন, জনউদ্যোগ, বাংলাদেশ দলিত ও বঞ্চিত জনগোষ্ঠী অধিকার আন্দোলন, বাংলাদেশ রবিদাস ফোরাম, বাংলাদেশ রবিদাস উন্নয়ন পরিষদ, বাংলাদেশ হরিজন্য ঐক্য পরিষদ, হরিজন যুব ঐক্য পরিষদ এই মানববন্ধন কর্মসূচী পালন করে।


সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2018. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close