২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার ০৯:৩৮:৪৩ এএম
সর্বশেষ:

০৮ মার্চ ২০১৬ ০৮:৪৪:৩১ পিএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

চাঁদপুর নার্সের ইনজেকশানে শিশুর মৃত্যু

মানিক দাস, চাঁদপুর থেকে
বাংলার চোখ
 চাঁদপুর নার্সের ইনজেকশানে শিশুর মৃত্যু

চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালে বয়সের তুলনায় অধিক মাত্রার ইনজেকশান পুশে শিশুর মৃত্যু হয়েছে বলে মৃত শিশুটির স্বজনরা অভিযোগ করেছে। ঘটনাটি ঘটেছে গতকাল মঙ্গলবার দুপুর সাড়ে ১২ টায়। এ ঘটনায় হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্সদের উপর হামলা চালিয়েছে বিক্ষুদ্ধরা। ঘটনার বিবরনে জানা যায়, গত ৬ মার্চ চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ব্রঙ্ক নিউমোনিয়াজণিত রোগে রাফিউল ইসলাম রাফাত নামে ২ মাসের একটি শিশু ভর্তি হয়। শিশুটির বাড়ি চাঁদপুর শহরের উত্তর শ্রীরামদী যমুনা রোড এলাকায়। তার পিতার নাম রাসেদ সর্দার। গতকাল দুপুরে শিশুটির অবস্থা গুরুতর হলে শিশু রাফাতের নানি নাছিমা নার্সদের কক্ষে খবর দেয়। এ সময় চাঁদপুর নার্সিং ইন্সটিটিউটের প্রশিক্ষনার্থী নার্স মেরি হাওলাদার এসে নিয়মিত অর্ডার সিট অনুযায়ী শিশুটিকে  সেফিকজিন ইনজেকশান পুশ করে। ইনজেকশান পুশ করার সামান্য কিছু সময় পরে শিশুটির সমস্ত শরীর নীল হয়ে যায়। এরপর শিশুটি কিছুক্ষন ছটপট করে মৃত্যুর কোলে ঢলে পড়ে। শিশুটির মৃত্যুর খবর ছড়িয়ে পরলে শিশুর স্বজনরা হাসপাতালের কর্তব্যরত নার্স রিয়া, বিথি ও সায়মাকে হঠাৎ আক্রমন করে বেদমভাবে প্রহার করে আহত করে।
এ ঘটনায় নিহত শিশুটির মা এবং নানি অভিযোগ করে বলেন, বয়সের তুলনায় অধিক মাত্রার ইনজেকশান পুশ করার কারনেই শিশুটির মৃত্যু হয়েছে। যখন শিশুটির অবস্থা গুরুতর হয় তখন নার্সদের খবর দিলে নার্সরা আসতে গড়িমসি করে। তারা ক্ষোভের সাথে আরো বলেন, শিশুটির শরীরে ইনজেকশানের ৪ মি:গ্রা: পুশ করার কথা থাকলেও নার্স শিশুটিকে পুরো ১০ মি:গ্রা: ইনজেকশানটি পুষ করে দেয়।
এ বিষয়ে নার্স মেরি জানায়, সে ডাক্তার অলিউর রহমানের দেওয়া অর্ডার সিট অনুযায়ি সেফিকজিন ইনজেকশান দিয়েছে। এরপর আনুমানিক ১৫ মিনিট পর শিশুটি মৃত্যুবরণ করে। কি কারনে শিশুটি মারা গেছে এ বিষয়ে সে কিছু বলতে পারবে না। সে সময় হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডের দায়িত্বে থাকা শিশু বিভাগ সহকারি এসিটেন্ট রেজি: ডা: বিপ্লব দাস বলেন, আমি যখন খবর পেয়েছি শিশুটির অবস্থা ভালোনা তাৎক্ষনিক আমি শিশুটির কাছে গিয়ে দেখি তার নাকে নলের মাধ্যমে অক্সিজেন চলছে। শিশুর একজন অভিভাবক শিশুটিকে সরিষার তেল মালিষ করছে। এ সময় বাচ্চার শরীরে শ্বাস প্রশ্বাসের তেমন আলামত পাওয়া যায়নি। এ বিষয়ে চাঁদপুর সরকারি জেনারেল হাসপাতালের তত্বাবধায়ক ডা: প্রদিপ কুমার দত্ত বলেন, শিশুটিকে সিডিউল অনুযায়ি চিকিৎসা সেবা দেওয়া হচ্ছিলো। শিশুটিকে ব্রঙ্কনিউমোনিয়া উইথ সেফস রোগে আক্রমন করেছে। এ রোগটি একটি মারাত্মক প্রাণঘাতি রোগ। শিশুটি এ রোগেই মারা গেছে। বাংলাদেশের শতকরা ১৮ ভাগ শিশু এ রোগেই মারা যায়। এদিকে শিশুটিকে ভুল ইনজেকশান পুশ করে মেরে ফেলা হয়েছে খবর শুনে চাঁদপুর মডেল থানার অফিসার ইনচার্জ মামুনুর রশিদ হাসপাতাল ছুটে আসেন এবং বিষয়টি পর্যবেক্ষন করেন। এদিকে শিশুটি মৃত্যুর সাথে সাথে তার মা ও অন্যন্য স্বজনদের আহাজারিতে হাসপাতাল ভারি হয়ে উঠে। শিশু আরাফাতের মৃত্যু কি ভুল ইনজেকশান পুষে হয়েছে নাকি অনভিজ্ঞ নার্সের চিকিৎসা ব্যবস্থা নাকি ব্রঙ্কনিউমোনিয়া উইথ সেফস রোগ। প্রকৃত কোন কারনে পৃথিবী থেকে চির বিদায় নিলো শিশুটি এ নিয়ে ধু¤্রজাল সৃষ্টি হয়েছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2022. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close