১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার ০৮:০১:৫৭ পিএম
সর্বশেষ:

১১ মে ২০১৯ ০১:৫৬:৫৭ এএম শনিবার     Print this E-mail this

বগুড়ায় চাল ও ধান কিনবে খাদ্য বিভাগ

মমিন রশীদ বগুড়া ব্যুরো
বাংলার চোখ
 বগুড়ায় চাল ও ধান কিনবে খাদ্য বিভাগ

 বগুড়ায় বোরো ধান কাটা-মাড়াই এখনো পুরোদমে শুরু হয়নি। এ মাসের শেষের দিকে সব উপজেলায় পুরোদমে ধান কাটবে কৃষকরা। এবার উৎপাদন হবে সাড়ে ৭ লাখ টন চাল। এদিকে অভ্যন্তরীণ খাদ্য-শস্য সংগ্রহ অভিযানের অংশ হিসেবে জেলায় ৭৮ হাজার ৩৫৪ টন চাল, ৫ হাজার ৫৮৬ টন ধান এবং ৭ হাজার ৪৬ টন আতপ চাল কিনবে খাদ্য বিভাগ।
এবার চাল ৩৬ টাকা, আতপ চাল ৩৫ টাকা এবং ধান ২৬ টাকা কেজি দরে কিনা হবে। সিদ্ধ চাল চালকল মালিকদের (মিলার) কাছ থেকে আর ধান কিনা হবে সরাসরি কৃষকের কাছ থেকে। এই সংগ্রহ অভিযানে সরকারি খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহের জন্য মিলাররা চুক্তি করতে পারবেন কাল বৃহস্পতিবার পর্যন্ত।
কৃষি বিভাগ জানিয়েছে, বগুড়ার ১২ উপজেলায় ১ লাখ ৮৮ হাজার হেক্টর জমিতে ইরি-বোরো ধানের আবাদ হয়েছে। এই পরিমান জমিতে ৭ লাখ ৫৪ হাজার টন চাল উৎপাদনের লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে। গেল এপ্রিলের শেষ সপ্তাহ থেকে নন্দীগ্রাম, শেরপুর, গাবতলী, সোনাতলা ও সারিয়াকান্দি উপজেলার কৃষকরা ধান কাটা মাড়াই শুরু করলেও বাকি ৭ উপজেলায় পুরোদমে শুরু হবে এ মাসের শেষের দিকে। কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর বগুড়ার উপ-সহকারি কৃষি কর্মকর্তা ফরিদুর রহমান জানান, গতকাল মঙ্গলবার পর্যন্ত বিশ ভাগ ধান কাটা হয়েছে। বৃষ্টি আর বাতাসে এক হাজার ৩১০ হেক্টর জমির ধান হেলে পড়েছে। তবে যেসব জমির ধান পেকেছে সেগুলোর ক্ষতি হবে না। কাচা বা আধাপাকা ধান যদি পানিতে ডুবে যায় সেগুলোর ক্ষতির আশংকা করা হচ্ছে। তবে আবহাওয়া ভালো থাকলে ক্ষতির পরিমান কম হবে।
খাদ্য কর্মকর্তারা জানান, নির্দিষ্ট উষ্ণুতার চাল মিলারদের কাছ থেকে কিনা হয়, যেগুলো বাজারে পাওয়া যায় না। তবুও বর্তমান বাজারে মোটা চালের কেজি ৩০-৩২ টাকা আর ধান ১৬ টাকা। সংগ্রহ শুরু হলে বাজার দর আরও বাড়তে পারে।
উপজেলাভিত্তিক চাল ও ধান সংগ্রহের লক্ষ্যমাত্রা হলো- বগুড়া সদরে চাল ৫ হাজার ১৬৫ টন ও ধান ২৯৫ টন, শাজাহানপুরে চাল ৩ হাজার ১৯৬ টন ও ধান ৩৯৭ টন, শিবগঞ্জে চাল ৪ হাজার ৭৭৬ টন ও ধান ৬২৪ টন, সোনাতলায় চাল ২ হাজার ৩১৬ টন ও ধান ৩০৪ টন, গাবতলীতে চাল ৩ হাজার ১৭৬ টন ও ধান ৫৩৯ টন, সারিয়াকান্দিতে চাল ২ হাজার ৭১৮ টন ও ধান ৪১৭ টন, ধুনটে চাল ২ হাজার ৯১৩ টন ও ধান ৫০২ টন, শেরপুরে চাল ১৪ হাজার ৫৯২ টন ও ধান ৬৩৫ টন, নন্দীগ্রামে চাল ২ হাজার ৯৮১ টন ও ধান ৬০১ টন, কাহালুতে চাল ৪ হাজার ৭৪৫ টন ও ধান ৫৪২ টন, দুপচাঁচিয়ায় চাল ১৭ হাজার ৩২৯ টন ও ধান ৩৬৭ টন এবং আদমদিঘী উপজেলায় চাল ১৪ হাজার ৪৪৭ টন ও ধান ৩৬৩ টন সংগ্রহ করা হবে।
বগুড়া জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক এস এম সাইফুল ইসলাম জানান, আগামী ৩১ আগস্ট পর্যন্ত চলবে এই সংগ্রহ অভিযান। খাদ্য গুদামে চাল সরবরাহের জন্য ৯ মে পর্যন্ত চালকল মালিকরা (মিলার) চুক্তি করতে পারবেন। এ পর্যন্ত জেলার প্রায় দুই হাজারের অধিক মিলারের মধ্যে বেশিরভাগ মিলারই চুক্তি করেছেন।


সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close