১৯ আগস্ট ২০১৯, সোমবার ০৮:৫২:০২ পিএম
সর্বশেষ:

০১ জুন ২০১৯ ০৭:১২:৫৮ পিএম শনিবার     Print this E-mail this

গোপালগঞ্জ বশেমুরবিপ্রবির ১৪ শিক্ষার্থীকে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ

ষ্টাফ করেসপন্ডেন্ট, গোপালগঞ্জ
বাংলার চোখ
 গোপালগঞ্জ বশেমুরবিপ্রবির ১৪ শিক্ষার্থীকে ৭ দিনের মধ্যে কারণ দর্শানোর নোটিশ

‘সরকার ও প্রশাসনবিরোধী প্ল্যাকার্ড ফেস্টুন বহন’ ও ‘উসকানিমূলক’ বক্তব্যের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকার অভিযোগে গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার প্রফেসর ড. মো: নুরউদ্দিন আহমদ স্বাক্ষরিত গত ৩০ মে জারি করা এক নোটিশে সাত দিনের মধ্যে ওই শিক্ষার্থীদের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

ওই ১৪ শিক্ষার্থীরা হলেন, সমাজ বিজ্ঞান বিভাগের ৩য় বর্ষের দিগন্ত লস্কর, শেখ মেহেদী হাসান, এমএম-র নিউটন মজুমদার, ব্যবস্থাপনা শিক্ষা বিভাগের ৩য় বর্ষের ইসমাইল হোসেন রিয়াদ, সিকদার মাহবুব, আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৩য় বর্ষের মো: নাজমুল হুদা, রথীন্দ্রনাথ বাপ্পী, মো: শিবলী সাদিক, ৪র্থ বর্ষের মো: সিরাজুল ইসলাম, লোক প্রশাসন বিভাগের ৩য় বর্ষের মো: মিথুন সোহাইন, ২য় বর্ষের সৌরভ সমাদ্দার, পরিসংখ্যান বিভাগের ২য় বর্ষের বিসালাত আহমেদ অর্নব, আইন বিভাগের ৩য় বর্ষের এস এম আব্দুল্লাহ কাফি ও ইংরেজি বিভাগের এমএ-র বুলবুল আহমেদ।

গোপালগঞ্জের বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিষ্ট্রার প্রফেসর ড. মো: নুরউদ্দিন আহমদ স্বাক্ষরিত ওই নোটিশে জানাগেছে, শিক্ষার পরিবেশ নষ্ট করার অভিপ্রায়ে প্রশাসনের অনুমতি ছাড়া সরকার ও প্রশাসন বিরোধী প্লাকার্ড, ফেষ্টুন বহন এবং উস্কানীমূলক বক্তব্য প্রদান করা, এবং অতুৎসাহী হয়ে অন্য কোন বিশ্ববিদ্যাণ কোন আন্দোলন করার আগেই আন্দোলনের সাথে আপনাদের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। যা বিশ্ববিদ্যালয় শৃংখলা পরিপন্থি একটি কাজ। সুতারং এহেন কাজের জন্য আপনার বিরুদ্ধে কেন শাস্তিমূলক ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে না তা অত্র পত্র জাড়ির ৭ কর্ম দিবসের মধ্যে লিখিত ভাবে জবাব প্রদানের জন্য বলা হল।

গত ১৬ মে, ধানের ন্যায্যমূল্য চেয়ে একটি মানববন্ধন করে ওই বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সেখানে উপস্থিত শিক্ষার্থীদের হাতের প্ল্যাকার্ডে লেখা ছিল−‘আর করব না ধান চাষ দেখব এবার কী খাস’, ‘কৃষক বাঁচলে বাঁচবে দেশ, পাকা ধানে আগুন কেন’, ‘কৃষক মরে হীরক রাজার টনক কী নড়ে, ফসল জ্বললে জ্বলবে গদি’। এ মানববন্ধন করার জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ দেওয়া হয়েছে কি না তা পত্রে সুনির্দিষ্টভাবে উল্লেখ করা হয় নি।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সভাপতি রথীন্দ্রনাথ বাপ্পী বলেন, কৃষকের ধানের ন্যায্য মূল্যের দাবীতে করা মানববন্ধনে সরকার বিরোধী কোন বক্তব্য দেয়া হয়নি। একটি সিষ্টেমের বিরুদ্ধে শ্লোগান ও বক্তব্য দেয়া হয়েছিল। এ বিশ্ববিদ্যালয়ে কোনও অধিকারের কথা বলতে গেলেই এ ধরনের নোটিশ পাওয়ার ঘটনা নতুন কিছু নয়। এর আগেও যৌন হয়রানির প্রতিকার চেয়ে কথা বলার কারণে কারণ দর্শানোর নোটিশের মুখোমুখি হতে হয়েছে শিক্ষার্থীদের। আসলে নোটিশের মাধ্যমে শিক্ষার্থীদের মুখ বন্ধ করে দেয়া হচ্ছে।

মানববন্ধনে অংশ নেওয়া অপর শিক্ষার্থী ও বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ইউনিয়নের সাধারন সম্পাদক নাজমুল হুদা বলেন, আমরা কৃষকের ধানের ন্যায্য মূল্যের জন্য মানববন্ধন করি। সেখানে না কি আমরা বিশ্ববিদ্যালয় ও সরকার বিরোধী শ্লোগান দিয়েছি। যে কারনে আমাদের কারন দর্শানোর নোটিশ দেয়া হয়েছে তা আসলে ঠিক নয়।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর আশিকুজ্জামান ভূইয়া বলেন, ‘সরকার ও প্রশাসনবিরোধী প্ল্যাকার্ড ফেস্টুন বহন’ ও ‘উস্কানিমূলক’ বক্তব্যের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট থাকার জন্য গোপালগঞ্জ বঙ্গবন্ধু শেখ মজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের ১৪ শিক্ষার্থীকে কারণ দর্শাতে বলা হয়েছে।

ধানের ন্যায্য মূল্যের দাবীতে মানববন্ধন করার করানে এমন নোটিশ দেয়া হয়েছে কিনা এমন প্রশ্নের উত্তরে তিনি বলেন, এ বিষয়ে কিছু বলতে চাই না। নোটিশে কারন দর্শানোর বিষয়টি উল্লেখ করা আছে।

কোন আন্দোলন বা কর্মসূচী করতে গেলে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুমতি নিতেত হয় কিনা এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি আরো বলেন, সব ধরনের কর্মসূচি করতেই বা ক্যাম্পাসে যাই করুক না কেন বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের অনুমতি নিতে হবে। অনুমতি যদি না থাকে তাহলে যে কেউ যেকোন কিছু করে বসবে। আমরা তো এদের অভিভাবক, যাই করুক অনুমতি নিয়েই করতে হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close