১৪ অক্টোবর ২০১৯, সোমবার ০২:০১:৪৮ পিএম
সর্বশেষ:

০৩ জুলাই ২০১৯ ০৭:২১:৩৭ পিএম বুধবার     Print this E-mail this

ঢামেকে অবহেলায় অন্তঃসত্ত্বা নারীর মৃত্যুর অভিযোগ,তদন্ত কমিটি গঠন

আমিনুল ইসলাম বাবু স্টাফ করসপন্ডেন্ট
বাংলার চোখ
 ঢামেকে অবহেলায় অন্তঃসত্ত্বা নারীর মৃত্যুর অভিযোগ,তদন্ত কমিটি গঠন

ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ৮ মাসের অন্তঃসত্ত্বা উর্মি (১৮) নামে এক নারীর মৃত্যু হয়েছে।  স্বজনদের  অভিযোগ চিকিৎসকের অবহেলায় কারনে উর্মি মৃত্যু হয়।

এই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ ৬ সদস্যের একটি তদন্ত কমিটি গঠন করেছে।

বুধবার (৩ জুলাই) ভোর  ৬টার দিকে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে ২১২ গাইনি ওয়ার্ডে তার মৃত্যু হয়। মৃত উর্মি কামরাঙ্গীচর মাতবর বাজার এলাকায় তার স্বামী দোকান কর্মচারি জাকির হোসেন সাথে একটি বাড়ীতে ভাড়া থাকতো।

মৃত উর্মির দেবর ইমন জানান, দেড় বছর আগে তার ভাইয়ের সাথে উর্মির বিয়ে হয়। উর্মি ৮ মাসের অন্তঃসত্তা ছিলো।
গতকাল রাত ১০টায় উর্মির ব্যথা উঠলে তাকে শিকদার হাসপাতালে নেওয়া হয়। ঘন্টাখানিক পরে সেখান থেকে চিকিৎসকদের দের পরামর্শে, ঊর্মিকে রাত ১১টায় ঢাকা মেডিকেলে জরুরী বিভাগ নিয়ে আসা হয়।

জরুরী বিভাগ থেকে তাকে রেফার করা হয় ২১২ গাইনি ওয়ার্ডে। গাইনি ওয়ার্ডে নেওয়ার পরে উর্মি ব্যাথা আরো বেরে যায়। উর্মি সারারাত গাইনি ওয়ার্ডে ব্যথায় ছটপট করতে থাকে। বারবার চিকিৎসকদের জানানো হয়, রোগির অস্ত্রোপচার করুন। কিন্তু চিকিৎসকরা বলে অস্ত্রোপচার লাগবে না এমনি ডেলিভারি হবে। পরে উর্মি নিজেই চিৎকার করে চিকিৎসকদের বলতে থাকে আমি সহ্য করতে পারছিনা আমার পেট কেটে সন্তান বের করুন,তানা হলে আমি মারা যাব।
তাতেও কোন লাভ হয় নাই। পরে অবশেষে ভোরের দিকে উর্মি মারা যায়। ইমন অভিযোগ করে বলেন চিকিৎসকদেন অবহেলার কারণে তার ভাবী উর্মির মৃত্যু হয়েছে।

ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পরিচালক ব্রিগেডিয়ার জেনালের এএকেএম নাসির উদ্দিন জানান, হাসপাতালের গাইনি ওয়ার্ডে উর্মি নামে এক অন্তঃসত্বা নারীর মৃত্যু নিয়ে কিছুটা হট্টগোল হয়েছে।
 আমি সেখানে নিজেই ছুটি যাই এবং স্বজনদের বক্তব্য শুনেন তাঁদের সান্তনা দেই।  তারা আমার কাছে একটি লিখিত অভিযোগ দিয়েছে। ওই অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে ঢামেকের শিশু বিভাগের প্রধান অধ্যাপক সাইদা আনোয়ারকে প্রধান করে ৬ সদস্যর তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়েছে। তারা তিন কার্যদিবসে রিপোর্ট পেশ করবেন। তদন্তে যদি প্রমাণিত হয় চিকিৎসকের অবহেলা ছিল। তাহলে সেই চিকিৎসকের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close