২৩ আগস্ট ২০১৯, শুক্রবার ০৫:০২:৩২ পিএম
সর্বশেষ:

০৬ আগস্ট ২০১৯ ০১:০৮:৪১ এএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

কান নিয়েছে চিলে!

ইফতেয়ার রিফাত
বাংলার চোখ
 কান নিয়েছে চিলে!

কিছুদিন ধরে আমাদের দেশে ‘গুজব’ নিয়ে ভীষণ হৈচৈ লেগে আছে। দেশের বিরুদ্ধে বিভিন্ন অভিযোগে ব্যস্ত কিছু নোংরা মনমানষিকতা ব্যাক্তি। গুজব মোকাবেলায় আমাদের সকলকে ঐক্যবন্ধ ভাবে কাজ করতে হবে। গুজবে সাধারণ মানুষকে অনেক ক্ষেত্রেই ক্ষতিগ্রস্ত করছে! কোনটা সত্য আর কোনটা গুজব?

গুজব রটনা নিয়ে একটি ছোট গল্প:-

এক নারী বললো জোছনা বেগমের ছেলে হয়েছে তবে দেখতে একটু কালো!
২য় নারী আবার ৩য় একজন নারীকে বললো জোছনা বেগমের ছেলে হয়েছে একে বারে কালো
৩য় জন ৪র্থ জনকে বললো জোছনা বেগমের ছেলে হয়েছে পাতিলের তলার চেয়ে কালো!
৪র্থ জন বললো জোসনা বেগমের সন্তান হয়েছে কাকের মত কালো!
এভাবে চলতে চলতে শেষ মূহুর্তে একথাটা দাঁড়ালো
জোছনা বেগম একটা কাকের বাচ্চা জন্ম দিয়েছে!

ঠিক এভাবেই চলতে থাকে গুজব নামক নোংরামির !
পদ্মা সেতুতে কল্লা লাগার বিষয়টিও ঠিক জোছনা বেগমের গল্পের মতই!

গুজবের কান দেওয়া সেই শিক্ষিত মানুষদের দেখে শামসুর রহমানের একটা কবিতা বেশ মনে পড়লো:-

“এই নিয়েছে ঐ নিল যাঃ! কান নিয়েছে চিলে,
চিলের পিছে মরছি ঘুরে আমরা সবাই মিলে।
কানের খোঁজে ছুটছি মাঠে, কাটছি সাঁতার বিলে,
আকাশ থেকে চিলটাকে আজ ফেলব পেড়ে ঢিলে।

দিন-দুপুরে জ্যান্ত আহা, কানটা গেল উড়ে,
কান না পেলে চার দেয়ালে মরব মাথা খুঁড়ে।
কান গেলে আর মুখের পাড়ায় থাকল কি-হে বল?
কানের শোকে আজকে সবাই মিটিং করি চল।

যাচ্ছে, গেল সবই গেল, জাত মেরেছে চিলে,
পাঁজি চিলের ভূত ছাড়াব লাথি-জুতো কিলে।
সুধী সমাজ! শুনুন বলি, এই রেখেছি বাজি,
যে-জন সাধের কান নিয়েছে জান নেব তার আজই।

মিটিং হল ফিটিং হল, কান মেলে না তবু,
ডানে-বাঁয়ে ছুটে বেড়াই মেলান যদি প্রভু!
ছুটতে দেখে ছোট ছেলে বলল, কেন মিছে
কানের খোঁজে মরছ ঘুরে সোনার চিলের পিছে?

নেইকো খালে, নেইকো বিলে, নেইকো মাঠে গাছে;
কান যেখানে ছিল আগে সেখানটাতেই আছে।
ঠিক বলেছে, চিল তবে কি নয়কো কানের যম?
বৃথাই মাথার ঘাম ফেলেছি, পণ্ড হল শ্রম।

শামসুর রহমান তার কবিতায় ঠিক গুজব নামক অপপ্রচারের কথাটি তুলে ধরেছেন।
কানে হাত না দিয়ে আমরা চিলের পিছনে ছুটে বেড়ানো মানুষজন আবার নিজেদের শিক্ষিত হিসেবে দাবি করছি!

আবার কিছু কিছু সুবিধাবাধী লোক সব সময় আমাদের চারপাশে এরকম ছোট ছোট বিষয়টিকে বড় ধরনের ইস্যু হিসেবে ব্যবহার করে নিজ স্বার্থ হাসিল করছে!
তাদের নোংরা স্বার্থের জন্য অকালে প্রান যাচ্ছে আমাদের নিরীহ মানুষদের।
আসুন এরকম গুজব রটনাকারী নোংরা সুবিধাবাধী অসৎ ব্যক্তিদের আইনের হাতে তুলে দেই!!

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close