১৫ অক্টোবর ২০১৯, মঙ্গলবার ০২:৫৫:০০ এএম
সর্বশেষ:

১৪ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৫:১৬:২৮ পিএম শনিবার     Print this E-mail this

সুমনা গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. সিরাজুল ইসলামের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

ডেক্স রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 সুমনা গ্রুপের চেয়ারম্যান ডা. সিরাজুল ইসলামের স্মরণসভা অনুষ্ঠিত

বিশিষ্ট ব্যবসায়ী, উদ্যোক্তা, বিশিষ্ট শিল্পপতি, পুরান ঢাকার সুমনা ক্লিনিক ও ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের প্রতিষ্ঠাতা এবং সুমনা গ্রুপের প্রয়াত চেয়ারম্যান ডা. সিরাজুল ইসলামের চতুর্থ মৃত্যু বার্ষিকী উপলক্ষে স্মরণসভা মিলাদ মাহফিল ও দোয়া অনুষ্ঠিত হয়েছে।
আজ শনিবার ( ১৪ সেপ্টেম্বর, ২০১৯ ইং) মালিবাগে অবস্থিত ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটাল লিমিটেডের ৩য় তলায় এ কর্মসূচি আয়োজন করে হাসপাতালটি।
স্মরণসভায় ডা. সিরাজুল ইসলামের সহপাঠী ও স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থীরা তাঁর স্মৃতিচারণ করেন। আলোচনা সভায় বক্তারা বলেন, প্রয়াত ডা. সিরাজুল ইসলাম ছিলেন বীর মুক্তিযোদ্ধা, মিটফোর্টের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী। তিনি মিটফোর্ডের সকল শিক্ষার্থীদের কাছে আস্থাভাজন ছিলেন। সকল সহপাঠীর কাছে তিনি ছিলেন আস্থার প্রতীক।সকলের বিপদে আপদে ত্রাণ কর্তা হিসেবে সব সময় হাজির হতেন।
স্মরণসভায় ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটালের প্রশাসনিক কর্মকর্তা  নাসিমুল হক বলেন, ডা. সিরাজুল ইসলাম ছিলেন একজন মেধার মূল্যায়নের ধারক ও পরিশ্রমী ব্যক্তিত্ব। তিনি মেধাবীদের মূল্যায়ন করতে জানতেন। মেধাবী চিকিৎসক, কর্মকর্তাদের তিনি কাজের সুযোগ করে দিতেন।
ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ এন্ড হসপিটালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটের (আইসিইউ) চিফ কনসালটেন্ড ডা. এমএ মান্নান বলেন, ডা. সিরাজুল ইসলাম ভাই ছিলেন আমাদের মেডিকেল কলেজের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী। আমরা ছিলাম ষষ্ট ব্যাচের শিক্ষার্থী। ব্যাচের ব্যাবধান হলেও আমরা তখন সংখ্যায় অল্প হওয়ার কারণে সবার সাথে সবার দেখা সাক্ষাৎ হত। এসকল শিক্ষার্থীদের মধ্যমনি ছিলেন আমাদের প্রিয় সিরাজ ভাই। সিরাজ ভাইয়ের বড় গুণ ছিল তিনি কঠিন অধ্যাবসায়ী । তার অধ্যাবসায়ের কারণে আমরা সহপাঠী হয়েও তার প্রতিষ্ঠিত প্রতিষ্ঠানে কাজ করছি।
ডা. সিরাজুল ইসলাম সম্পর্কে বলতে গিয়ে  হাসপাতালটির ডেনস্ট্রি বিভাগের প্রধান সহযোগী অধ্যাপক ডা. প্রদীপ কুমারদেব নাথ বলেন, ডা. সিরাজুল ইসলাম ভাই ছিলেন আমাদের চিকিৎসক সমাজের আইকন। তার বদ্যনতা ও কর্মীবান্ধব উদ্যোক্তার বিষয়টি ছিল সবার মুখে মুখে। আমরা যখন তার অকাল প্রয়াণের কথা শুনতে পেলাম, তখন পুরো চিকিৎসক সমাজ থমকে গিয়ে ছিল। তিনি ছিলেন উদার মনের মানুষ। তার উদারতার কারণেও অনেক সময় অনেক ক্ষতির সম্মুখীন হয়েছিলেন।
ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের এনেস্থিওলজি বিভাগের প্রধান অধ্যাপক ডা. মেহতাব আল উদ্দুদ বলেন, ডা. সিরাজুল  ইসলাম ভাইয়ের স্বপ্ন ছিল অনেক বড়। তিনি এশিয়ার অন্যতম  একটি হাসপাতাল করতে চেয়েছিলেন । এ লক্ষে অনেক দূও এগিয়ে গেছিলেন। কিন্তু ২০১৫ সালের ১৩ সেপ্টেম্বর হাসপাতালের কাজের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া যাবার সময় সড়ক দূর্ঘটনায় নিহত হন। সেখানে তার স্বপ্ন বাস্তবায়ন কিছু সময়ে স্থবিরতা আসলেও বর্তমানে তা অনেকদূর এগিয়ে গেছে।
ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের উপাধ্যক্ষ অধ্যাপক ডা. ফারুকুল ইসলাম বলেনে, ডা. সিরাজুল ইসলাম ভাই ছিলেন অনেক উদার ও স্বপ্নচারী মনের মানুষ। তার  উদ্যোগ ও নিরলস প্রচেষ্টায় বাংলাদেশে চিকিৎসা বিদ্যায় ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ অল্প দিনেই অনেক সুমান কুড়িয়েছে।
তিনি স্মৃতিচারণ করে বলেন, ডা. সিরাজুল ইসলাম ছিলেন চরম আথিতেয়তা পরায়ণ মানুষ। তিনি কখন একা খেতে বসতেন না। তার খাবার সময় চার পাঁচজন করে নিয়ে বসতেন। মৃত্যুর আগের দিন আমিও তার আথিতেয়তা গ্রহণ করি। তিনি ওদিন তার জীবনের অনেক গল্প বলেছিলেন। ওদিন যে তার সাথে আমার শেষ সাক্ষাৎ হবে তা জানতাম না।
স্মরণসভায় ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজ ও হাসপাতালের চিফ অপারেটিং অফিসার (সিওও)  নিউরো মেডিসিন বিশেষজ্ঞ ডা. নাজমুল হাসান বলেন, ওদিনটির কথা মনে পড়লে আমি ভয়ে কেপে উঠি। ওদিন আমাদের এমডি ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের চেয়ারম্যান স্যারের সাথে যাওয়ার কথা ছিল। ঘুম থেকে দেরি করতে উঠায় আমি অন্য গাড়িতে যাই । কিন্তু ভাগ্যের নির্মম পরিহাসে চেয়ারম্যান স্যারের গাড়িটি নরসিংদীতে বিপরীত মুখী আসা ট্রাকের সাথে সংঘর্ষ হয়। ওখানে আমার বাবা ও ড্রাইভার স্পট ডেথ হন। চেয়ারম্যান স্যারকে আহত অবস্থায় ঢাকায় নিয়ে আসার পর মৃত্যু হয়।
স্যার সলিমুল্লাহ মেডিকেল কলেজের প্রথম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও ডা. সিরাজুল ইসলাম মেডিকেল কলেজের  কার্ডিওলজি বিভাগের প্রধান ডা. এফএম শাখাওয়াত হোসেন সঞ্চালনায় সভাপতিত্ব করেন হাসপাতালটির  উপ পরিচালক (প্রশাসন) ডা. আব্দুল মালেক মৃধা।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close