২৩ অক্টোবর ২০১৯, বুধবার ০৫:০০:০১ পিএম
সর্বশেষ:

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০১:২৮:৪৪ এএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

ফাইনালে বাংলাদেশ

স্পোর্টস ডেক্স
বাংলার চোখ
 ফাইনালে বাংলাদেশ

 জিম্বাবুয়েকে ৩৯ রানে হারিয়ে এক ম্যাচ হাতে রেখেই ত্রিদেশীয় টি-টুয়েন্টি সিরিজের ফাইনালে উঠে গেছে বাংলাদেশ। বুধবার জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে স্বাগতিকদের সামনে দাঁড়াতেই পারেনি হ্যামিল্টন মাসাকাদজার দল। ১৭৬ রানের লক্ষ্যে ব্যাটিংয়ে নেমে সফরকারীরা গুঁটিয়ে যায় দেড়শর আগেই।

এদিন অভিষিক্ত লেগস্পিনার আমিনুল ইসলাম ৪ ওভারে ১৮ রানে ২ উইকেট নিয়ে ঝলক দেখিয়েছেন। আর মোস্তাফিজুর রহমান দুই উইকেট নেয়ার পথে সাকিব আল হাসানের পর দ্বিতীয় বোলার হিসেবে বাংলাদেশের জার্সিতে টি-টুয়েন্টি ফরম্যাটে উইকেটের ফিফটি ছুঁয়েছেন।

বাংলাদেশের জয়ে দুই ম্যাচ আগেই ফাইনাল নিশ্চিত হয়ে গেছে আফগানিস্তানের। আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর মিরপুরের শের-ই-বাংলা স্টেডিয়ামে হবে দু’দলের ট্রফির লড়াই। তার আগে চট্টগ্রামে ২১ সেপ্টেম্বর গ্রুপপর্বে নিজেদের শেষ দেখায় ফাইনালের রিহার্সেল দেবে বাংলাদেশ ও আফগানিস্তান। টানা তিন ম্যাচ হেরে টুর্নামেন্ট থেকে বিদায় নেয়া জিম্বাবুয়ে শুক্রবার চট্টগ্রামেই আফগানিস্তানের বিপক্ষে খেলবে।

সংক্ষিপ্ত স্কোর: বাংলাদেশ-১৭৫/৭, জিম্বাবুয়ে-১৩৬/১০

আফগানিস্তানের কাছে গত ম্যাচে শোচনীয় হারে ত্রিদেশীয় সিরিজে ফাইনালের ওঠার পথ একটু কঠিন হয়ে গিয়েছিল বাংলাদেশের জন্য। তবে দ্বিতীয় দেখাতেও জিম্বাবুয়েকে সহজে হারিয়ে শিরোপার আশা বাঁচিয়ে রাখল সাকিব আল হাসানের দল।

প্রথম দুই ম্যাচে ব্যাটিং ব্যর্থতার যে ছবি মঞ্চস্থ হয়েছিল টপ ও মিডলঅর্ডারে, তার ছায়া দেখা যায়নি নিজেদের তৃতীয় ম্যাচে। বোলিং ছিল আরও দুর্দান্ত। শুরু থেকেই জিম্বাবুয়েকে চেপে ধরে বাংলাদেশ। টাইগারদের ১৭৫ রানের পুঁজি জিম্বাবুয়ের কাছে হয়ে যায় বড় রানের বোঝা।

ইনিংসের প্রথম ওভারেই ব্রেন্ডন টেলরের (০) উইকেট নেন মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন। অপরপ্রান্ত থেকে আক্রমণে আসা সাকিব আল হাসানও পেয়ে যান শুরুতেই সাফল্য। বোল্ড করেন রেগিস চাকাভাকে (০)। দুই ব্যাটসম্যানকে রানের খাতা খোলার আগেই সাজঘরে পাঠিয়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রণ নেয় বাংলাদেশ।

এ ম্যাচেই অভিষেক হওয়া আমিনুল ইসলাম বিপ্লব বোলিংয়ে এসে আরও চাপ বাড়ান সফরকারীদের। এ লেগস্পিনার উইকেটের দেখা পান প্রথম ওভারেই। পরে আউট করেন জিম্বাবুয়ে অধিনায়ক মাসাকাদজাকে (২৫)। ৪ ওভারে ১৮ রানে ২ উইকেট নিয়ে ১৯ বছরের তরুণ দেখিয়েছেন বোলিং দ্যুতি। তাকে মোকাবেলা করতে হিমশিম খেয়েছেন জিম্বাবুয়ে ব্যাটসম্যানরা।


একসময় মনে হচ্ছিল একশর আগেই গুটিয়ে যাবে জিম্বাবুয়ে। আসা-যাওয়ার মিছিলেও রিচমন্ড মুতুম্বামি ৫৪ রানের ইনিংস খেলে হারের ব্যবধান কমান। কাইল জার্ভিসের ব্যাটে আসে ২৭ রান।

টি-টুয়েন্টি দলে ফেরা শফিউল ইসলাম নিয়েছেন সর্বোচ্চ ৩টি উইকেট। মোস্তাফিজ দুটি, সাকিব ও সাইফউদ্দিন নেন একটি করে উইকেট। নিজের প্রথম উইকেটটি নিয়ে সাকিবের পর বাংলাদেশের জার্সিতে টি-টুয়েন্টিতে উইকেটের ফিফটি ছুঁয়েছেন ফিজ।

বেশ কিছুদিন ধরেই বাংলাদেশকে ভোগাচ্ছিল ব্যাটিং। বুধবার সুযোগ এসেছিল বড় সংগ্রহ গড়ে হারানো আত্মবিশ্বাস ফেরানোর। সেটি কিছুটা ফিরেছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ ও লিটনের ব্যাটে ভর করে।

আগে ৪১ বলে ৬২ রানের ইনিংস খেলে দলকে টেনে নিয়েছেন মাহমুদউল্লাহ। অসাধারণ সব শটে ২২ বলে ৩৮ রানের ঝড়ো ইনিংস খেলে দারুণ ভিত দিয়ে যান লিটন।

নিজের অভিষেক টি-টুয়েন্টিতে ওপেনিংয়ে নামা নাজমুল হোসেন শান্ত করতে পেরেছেন ৯ বলে ১১ রান। আউট হয়েছেন সাধারণ এক ডেলিভারিতে। তিনে নামা সাকিব আল হাসান বোলারকে উইকেট ‘উপহার’ দিয়ে এসেছেন। করেছেন ৯ বলে ১০ রান।

কিছুটা সময় নিয়ে খেলা মুশফিকুর রহিম ২৬ বলে করেছেন ৩২ রান। যখন চার-ছক্কা সময়ের দাবি আউট হয়েছেন তখনই।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে প্রথম ম্যাচে বাংলাদেশকে অসাধারণ এক জয় উপহার দেয়া আফিফ হোসেনের ব্যাটও হাসেনি। করেছেন ৮ বলে ৭ রান। শেষদিকে নেমে ৩ বলে ২ রান করে আউট হয়েছেন মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত।

২ বল খেলা মোহাম্মদ সাইফউদ্দিন এক চারে ৬ রানে ছিলেন অপরাজিত। অভিষিক্ত আমিনুল স্ট্রাইক প্রান্তে যাওয়ার সুযোগই পাননি।

বাংলাদেশের ৭ উইকেটের ৩টিই নিয়েছেন জার্ভিস। রান খরচ করেছেন ৩২। ৪২ রানে ২ উইকেট নিয়েছেন ক্রিস্টোফার এম্পোফু।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close