২০ অক্টোবর ২০১৯, রবিবার ০৩:৩২:১৭ পিএম
সর্বশেষ:
ভোলার বোরহানউদ্দিন উপজেলায় আইনশৃঙ্খলা নিয়ন্ত্রণে মাঠে নামছে ৪ প্লাটুন বিজিবি মোতায়েন; দ্রুত মোতায়েনের জন্য ১টি প্লাটুনকে নেয়া হয়েছে হেলিকপ্টারে           

২৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০২:৫০:০১ পিএম রবিবার     Print this E-mail this

আর সহ্য হচ্ছে না

বিনোদন ডেক্স
বাংলার চোখ
 আর সহ্য হচ্ছে না

ঢাকায় গোপনে চলতে থাকা বিভিন্ন অবৈধ ক্যাসিনোতে হঠাৎ আইনশৃঙ্খলা বাহিনী অভিযান চালিয়েছে। সেই অভিযানে রেশ ধরে গ্রেফতার করা হয় টেন্ডার মুঘল জি কে শামীমকে। তাকে গ্রেফতারের পর থেকে উঠে এসেছে বিভিন্ন উঠতি মডেল ও নায়িকাদের নাম, যাদের ব্যবহার করে টেন্ডার বাগাতেন তিনি। বিনিময়ে সেই সকল মডেলদের দিয়েছেন বিলাসী জীবনের স্বাদ।

আর এরপর থেকেই শুরু হয় চলচ্চিত্র পাড়ায় নতুন করে আলোচনা। ধাক্কা লাগে মিডিয়া পাড়াতে। সামনে আসে বেশ কিছু চলচ্চিত্র নায়িকার নাম। এদিকে, বিভিন্ন গণমাধ্যমে নায়িকা মিষ্টি জান্নাতকে ইঙ্গিত করে প্রকাশিত হয় নানা খবর। এর জেরে এবার নিজের ফেসবুক পেইজ থেকে লাইভে এসে এ বিষয়ে মুখ খুললেন তিনি। ফেসবুক লাইভের কিছু গুরুত্বপূর্ণ অংশ তুলে ধরা হলো:


মিষ্টি জান্নাত বলেন, আমি যাকে (জি কে শামীম) চিনি না, আমি যার নাম লাইফে শুনিনি, তার সঙ্গে আমাকে জড়ানো হচ্ছে। প্রথমে বিষয়টি আমি স্বাভাবিকভাবে নিয়েছিলাম, যে নায়িকা মানে স্ক্যান্ডাল হতেই পারে। কিন্তু এত নায়িকা থাকতে আমি কেন? আমার আম্মু আমাকে বলেছে, আমি এ বিষয়ে পদক্ষেপ না নিলে তিনি আত্মহত্যা করবেন। যার কারণে আমি মিডিয়াতে মুখ খুললাম এবং ফেসবুক লাইভে আসলাম। আমি যদি চুপ থাকি তাহলে মানুষ মনে করবে আমি ঘটনার সঙ্গে জড়িত।

তিনি বলেন, যদিও সাংবাদিক সরাসরি আমার নাম লিখেনি। তবুও এমনভাবে লিখেছে যে, সেই নায়িকা ডেন্টালে পড়ে, খুলনার মেয়ে। এতে স্পষ্ট বোঝা যায় সেটা আমি। আমাকে এতে ইঙ্গিত করা হয়েছে। অনলাইনে এ নিয়ে বিভিন্ন খবর আসছে। আমার প্রশ্ন হচ্ছে আমি যদি কিছু না করে থাকি। এতে আমার যে মান-সম্মান নষ্ট হচ্ছে সেটা কে ফেরত দেবে? আমি একটি পরিবারে থাকি। ডেন্টাল কলেজে পড়ছি। সেখানে আমার বন্ধুরা রয়েছে তারা বিষয়টি কিভাবে দেখবে?

এই নায়িকা আরও বলেন, এ বিষয়ে আমি আইনি পদক্ষেপ নেবো কিনা, তা সময়ই বলে দেবে। র‌্যাব অফিস, ডিবি অফিস ও আমার আইনজীবীরা সব জায়গায় খোঁজ নিয়েছে। কিন্তু সে (জি কে শামীম) আমার নাম বা কিছু বলেনি। আর জি কে শামীম ইস্যুটা আমি জানি-ই না। এতে কেন আমার নাম বারবার জড়ানো হচ্ছে। যে সাংবাদিক প্রথমে আমার নামটা জাড়িয়েছে তার কাছে যদি প্রমাণ থাকে, তবে তিনি সাবমিট করুক। যদি প্রমাণ করতে পারে, আমি শাস্তি মাথা পেতে নেব। আর যদি তা না পারেন তা হলে তাকে শাস্তির মুখোমুখি হতে হবে।

এর আগে এক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেন, আমি কী? আমার ফ্যামিলি কী এটা সবাই জানে। নতুন করে জানানোর কিছু নেই। র‌্যাব অফিসার, ডিবি অফিসার এর কাছে আমার দাবি দয়া করে যদি কোনো প্রমাণ থাকে সেটা জনগণের সামনে উপস্থাপন করেন। জনগণ না জেনে অনেক কথা বলছে। দয়া করে আমার জীবনটাকে ‌‘জাহান্নাম’ বানাইয়েন না।

আক্ষেপ ও ক্ষোভ নিয়ে মিষ্টি আরও লিখেন, আজ আমার পরিবারের কিছু হলে সেটার দায়িত্ব কে নেবে? এত দিন চুপ ছিলাম কারণ ব্যাপারটা নরমালি নিয়েছিলাম। কিন্তু আর সহ্য করা যাচ্ছে না। এটা প্রমাণ হবে আমি নির্দোষ। আল্লাহ বিচার করবে মিথ্যা অপবাদের। আর অপরাধীরও! অপরাধীর বিচার পৃথিবীতেই হবে। ইনশা আল্লাহ।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close