১৯ অক্টোবর ২০১৯, শনিবার ০৫:০৬:২৩ এএম
সর্বশেষ:

১১ অক্টোবর ২০১৯ ১২:৫০:৩৮ এএম শুক্রবার     Print this E-mail this

সাংবাদিক এম.আর রুবেলের বাসায় ফের তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা

বাংলার চোখ ডেস্ক
বাংলার চোখ
 সাংবাদিক এম.আর রুবেলের বাসায় ফের তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করেছে দুর্বৃত্তরা

ভৈরবে আবারো সাংবাদিক এম.আর রুবেলের বাসার তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করেছে দূর্বৃত্তরা। বুধবার সন্ধ্যা আনুমানিক ৭টার সময় ভৈরব পৌর শহরের ভৈরবপুর উত্তরপাড়া এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। ভোক্তভোগি সাংবাদিক এম.আর রুবেল দৈনিক গৃহকোণ পত্রিকায় বার্তা সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন ধরে কর্মরত। এছাড়াও নিউজ ও ফটো এজেন্সি বাংলার চোখ ও একটি জাতীয় দৈনিকে ভৈরব প্রতিনিধি হিসেবে কর্মরত আছেন। তিনি ভৈরব পৌর এলাকার ভৈরবপুর উত্তরপাড়া ফাতেমা রমজান সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সামনের গলির ইটালী প্রবাসী লুৎফর রহমানের বিল্ডিংয়ে ভাড়া বাসায় পরিবার নিয়ে বিগত দুবছর ধরে বসবাস করছেন।
এবিষয়ে সাংবাদিক এম.আর রুবেল বলেন, পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে ভৈরবপুরস্থ দৈনিক গৃহকোণ প্রধান কার্যালয়ে আসার উদ্দেশ্যে ঘটনার দিন বুধবার সন্ধ্যা ৬টা ২০ মিনিটে বাসা থেকে বের হন। এর কিছুক্ষণ পর তাঁর স্ত্রী বাসা তালা দিয়ে দুই সন্তানকে নিয়ে একই বিল্ডিয়ের চারতলায় অপর ভাড়াটিয়ার বাসায় আসে জরুরী কাজে। এ সুযোগে দূর্বত্তরা বাসার তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করে। তখন তাঁর স্ত্রী উপরে উঠার সময় দরজার তালা ভাঙ্গার আওয়াজ পেয়ে ভয়ে চিৎকার করলে অন্যান্য বাসার লোকজন ছুটে আসলে দূর্বৃত্তরা পার্শ্ববর্তী বিল্ডিংয়ের ছাদ দিয়ে পালিয়ে যায়। আর পাঁচ মিনিট সুযোগ পেলেই দূর্বৃত্তরা বড় ধরণের দূর্ঘটনা ঘটিয়ে ফেলত বলে তিনি জানান। তিনি বলেন, এর আগেও দুই বার এমন ঘটনা ঘটিয়েছে সংঘবদ্ধ একটি অপরাধ চক্র। প্রথম বার রাত ৮টার দিকে ঘরে লোকজন থাকা অবস্থায় দরজা খুলতে দরজায় লাতি ও ভারী বস্তু দিয়ে আঘাত করে। ওই দিনও আমি বাসার বাহিরে ছিলাম। তখন আমাকে ফোন করলে আমি পুলিশ নিয়ে আসতেছি বলি। তখন ওরা বুঝতে পেরে চলে যায়। এ বিষয়ে তখন ভৈরব থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করি। এছাড়াও গত কয়েক মাস আগে আমার স্ত্রী সন্তানদের নিয়ে বি.বাড়িয়ায় বেড়াতে যায়। আমি পেশাগত কাজে বাহিরে ছিলাম বিকেল সাড়ে চারটার দিকে বাসায় ফিরে দেখি ছাদের গেইটটি ভিতর থেকে আটকিয়ে তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করে দূর্বত্তরা। আওয়াজ পেয়ে তখন আমি গেইটে ধাক্কা দিয়ে গেইট খুলতে। তখন সন্দেহ হলে উপায় না পেয়ে নিচে নেমে পার্শ্ববর্তী বিল্ডিংয়ের ছাদে আসার আগেই দূর্বত্তরা পালিয়ে যায়। তিনি বলেন, আল্লাহর অশেষ রহমত, বারবারই অপরাধ চক্র আমার ক্ষতি করার চেষ্টা করেও ব্যর্থ হয়। তবে তৃতীয়বারের ঘটনাটি ছোট করে দেখার নই। একই প্রক্রিয়ায় একাধিকবার বাসার তালা ভাঙ্গার চেষ্টা করছে সংঘবদ্ধ অপরাধ চক্র। আসলে তারা কি চায় ঠিক বুঝে উঠতে পারছিনা। বারবার কারা এসব করছে, এর পিছনে কোন কারণ আছে কিনা খতিয়ে দেখতে ও আইনি সহায়তা পেতে ভৈরব থানায় একটি অভিযোগ দিবেন বলে সাংবাদিকদের জানিয়েছেন। এ ঘটনায় ওই সাংবাদিক তাঁর স্ত্রী ও সন্তানদের নিয়ে নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছে। এ ঘটনায় ভৈরব রিপোর্টাস ক্লাব ও ইউনিটির সভাপতি এবং সাপ্তাহিক অবলম্বন পত্রিকার সম্পাদক তাজুল ইসলাম তাজ ভৈরবী তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে বলেন, বিষয়টি হালকা করে দেখলে হবেনা। ঘটনার সাথে জড়িতদের খুঁজে বের করে তাদের আইনের আওতায় এনে দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেন তিনি। ইটনা উপজেলা প্রেসক্লাবের সাধারণ সম্পাদক খাইরুল ইসলাম ভূইয়া এ ঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে ঘটনার সাথে জড়িতদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তির দাবী করেছেন। কুলিয়ারচর উপজেলা প্রেসক্লাবের সাবেক সভাপতি, দৈনিক পূর্বকণ্ঠ ও সাপ্তাহিক দিনের গান পত্রিকার বার্তা সম্পাদক মুহাম্মদ কাইসার হামিদ বলেন, বারবার একই কায়দায় সাংবাদিক এম.আর রুবেলের বাসার তালা ভেঙ্গে একটি অপরাধচক্র কোন গ্রীন সিগন্যাল দিচ্ছে কিনা এর রহস্য উন্মোচন হওয়া দরকার। তিনি এ ঘটনার তীব্র নিন্দা জানিয়ে এ ঘটনা রহস্য উদঘানের জন্য প্রশাসনের সু-দৃষ্টি কামনা করেন। মানবাধিকার সংস্থা ন্যাশনাল প্রেস সোসাইটি ঢাকা বিভাগীয় উপকমিটি পক্ষ থেকে কমিটির সাধারণ সম্পাদক মো: ফয়সাল আলম বলেন, সাংবাদিকরা দেশের গর্ব, তারা সত্য ও মানবতার পক্ষে কাজ করে, তাদের কাজই হলো ন্যায়ের পক্ষে ও অন্যায়ের বিরুদ্ধে কলম ধরা। তিনি অপরাধ চক্রটিকে হুশিয়ার করে বলেন, কেউ যদি শত্র“তা করে সাংবাদিকদের ক্ষতি করার চেষ্টা করে তার পরিনাম ভাল হবেনা। যারা সাংবাদিক রুবেলের মতো সৎ, নিষ্টাবান ও সাহসী সাংবাদিকের সাথে এ রকম করছেন তাদের কোন রকম ছাড় দেওয়া হবেনা। তিনি এঘটনার তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close