০৯ ডিসেম্বর ২০১৯, সোমবার ০৭:০৯:৩০ পিএম
সর্বশেষ:

১৯ নভেম্বর ২০১৯ ১১:০০:৫০ পিএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

পাথরঘাটায় লবন গুজব বাজারে ক্রেতারা অস্থির

খোকন কর্মকার পাথরঘাটা থেকে
বাংলার চোখ
 পাথরঘাটায় লবন গুজব বাজারে ক্রেতারা অস্থির

সারাদেশে লবনে দাম বাড়বে এমন গুজবে বরগুনার পাথরঘাটা বাজারে ক্রেতা ও ব্যাবসায়ীরা অস্থির হয়ে পরেছেন। আজ মঙ্গলবার পাথরঘাটা পৌরসভায় অবস্থিত বাজারের দিনে বেলা ১টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত কম পক্ষে ৫শ মন লবন বিক্রি হয়েছে। যা স্বাভাবিকের চেয়ে ২০ ভাগ বেশী। কিছু সংখ্যক দোকানীরা ১৭ টাকার খোলা লবন ( নিম্ন মানের) ৩০ থেকে ৪০ টাকা দরে বিক্রি করছে।

গ্রামের হাট বাজার গুলোতে কেজি প্রতি বিক্রি করেছে ৭০ থেকে ৮০ টাকা দরে। বিকাল ৫ টার পর থেকে লবন শুন্য হয়ে পড়েছে বাজার। দাম বাড়ার গুজবে অনেক ব্যাবসায়ীরা গুদাম জাত করেছে। পাথরঘাটা বনিক সমিতি মাইকিং করেছে জনসাধারন যেন গুজবে কান না দেয়। বাজার নিয়ন্ত্রনে পুলিশ ও উপজেলা প্রসাশন বাজারে ভ্রম্যমান আদালত পরিচালনা করছে। তারা বাজার নিয়ন্ত্রনে রাখার সার্বিক চেষ্টা অব্যহত রেখেছেন।

পাথরঘাটা বাজার ব্যাবস্থাপনা কমিটির সাধারন সম্পাদক অরুন কর্মকার জানান, পেয়াজ যেমন প্রথম দিকে গুজবে দাম বেড়েছে। সেই গুজব রটনা কারিরাই সরকারের ভাবমূর্তি ক্ষুন্য করার জন্য বাজারে লবন নিয়ে গুজব ছড়াচ্ছে। আসলে দেশে লবনের কোন ঘাটতি নেই দাম বাড়ারও কোন সুযোগ নেই। কারন এই দেশেই লবন উৎপাদন হয়। দেশের যে কোন প্রান্তে সাধারণ মানুষ লবন তৈরী করতে পারে। আমাদের এলাকার মানুষ যদি সব খাবারে নদীর পানি ব্যাবহার করে তা হলে এ অঞ্চলে কোন লবনেরই প্রয়োজন হয় না।

আজকের বাজারে এই লবন গুজবে কম পক্ষে ৫শ মন লবন বিক্রি হয়েছে। বেলা বৃদ্ধি পাবার সাথে সাথে গ্রামগঞ্জরে মহিলা পুরুষরা এই বাজারে দোকানের সামনে লাইনে দাড়িয়ে প্রত্যেকে ১০ থেকে বিশ কেজি করে লবন কিনেছে।বিকেলের দিকে যখন উপজেলা প্রসাশন ভ্রম্যমান আদালত পরিচালনা করছে তখন বাজারে লবন শুন্যতা দেখিয়ে অনেকে দোকনী ৩০ থেকে ৪০ টাকা দরে লবন বিক্রি করেন।

পাথরঘাটা উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ হুমায়ুন কবির জানান, লবনের জন্য মানুষ অস্থির হয়ে পড়েছে। পেয়াজ সংকটের আতংক লবনের ওপর পরেছে আসলে দেশে কোন লবনের ঘাটতি নেই কিছু সংখ্যক লোক গুজব ছড়িয়ে  অস্থিতিশীল পরিস্থিতির সৃষ্টি করেছে।গ্রামের লোকজনদের অসচেতনতার অভাবে মানুষ গুজবের পিছনে ছুটছে। পৌরশহর থেকে ২ গাড়ি লবন জব্দ করা হয়েছে। খোজ নিয়ে দেখতেছি এই লবন গুলো মজুদ করে রাখার জন্য নিচ্ছিল কিনা।যে দেশে লবন উৎপাদন হয় সে দেশে লবনের দাম বাড়ার সুযোগ নেই। তিনি গুজবের পিছনে যাতে মানুষ না ছুটে তার আহবান জানান।

 

 

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
মমতাজ বেগম
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2019. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close