১১ আগস্ট ২০২০, মঙ্গলবার ১২:৪১:৫৫ পিএম
সর্বশেষ:

০৯ ডিসেম্বর ২০১৯ ১২:২৯:০৫ এএম সোমবার     Print this E-mail this

দাকোপে আনসার ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

বিধান চন্দ্র ঘোষ দাকোপ(খুলনা) থেকে
বাংলার চোখ
 দাকোপে আনসার ভিডিপি কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম দূর্নীতির অভিযোগ

খুলনার দাকোপে আনসার ভিডিপির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তার বিরুদ্ধে ব্যাপক অনিয়ম ও দূর্নীতির অভিযোগ উঠেছে। আনসার নিয়োগে ডিউটি দেয়ার নামে সাধারন ভিডিপি সদস্যদের কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হয়েছে হাজার হাজার টাকা। এমনকি উৎকোচের বিনিময় প্রশিক্ষণ বিহীন এবং ভারতে থাকা ব্যক্তির নামেও দেয়া হয়েছে ডিউটি। এসব দূর্নীতির প্রতিকার চেয়ে জেলা প্রশাসকের কাছে পৃথক দুইটি লিখিত অভিযোগ করেছেন ভূক্তভোগী সাধারণ সদস্যরা।

লিখিত অভিযোগ সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার অন্যান্য ইউনিয়নের ন্যায় ৭নং তিলডাঙ্গা ও ১নং পানখালী ইউনিয়নের আনসার ভিডিপি সদস্যরা পুলিশ ও অন্যান্য বাহিনীর সাথে রাষ্ট্রীয় বিভিন্ন কাজে দায়িত্ব পালন করে আসছে। সদস্যরা অধিকাংশ দরিদ্র জনগোষ্ঠি ও নিন্ম আয়ের লোক হওয়ায় প্রতিবারই ভোট কেন্দ্রে ও পূজা মন্ডপে ডিউটি নেয়ার প্রতিযোগীতা চলে। এ সুযোগে বিগত একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন ও দূর্গা পূজার সময়ে আনসার ভিডিপি কর্মকর্তা তিলডাঙ্গা, পানখালী ইউনিয়ন কমান্ডার ও দলনেতাদের সহযোগীতায় সদস্য প্রতি ৮‘শ থেকে ১ হাজার টাকা উৎকোচ নিয়েছে বলে ভূক্তভোগী সদস্যদের অভিযোগ।

এছাড়া দীর্ঘদিন ওই কর্মকর্তা টাকার বিনিময় প্রশিক্ষন প্রাপ্ত সদস্যদের নাম দিয়ে প্রশিক্ষন বিহীন ব্যক্তির নাম তালিকায় অন্তরভূক্ত, বিভিন্ন ট্রেনিং এ লোক পাঠানো, ভূয়া নামে ডিউটি প্রদানসহ অনিয়ম দূর্নীতি চালিয়ে আসছে। পানখালী ও তিলডাঙ্গা দুই ইউনিয়নের সদস্যরা মুখ খুললেও এভাবে উপজেলার বিভিন্ন এলাকার আনসার সদস্যদের কাছ থেকে উৎকোচ আদায় করা হয়েছে বলে ধারনা করা হচ্ছে। এদিকে ওই কর্মকর্তার দূর্নীতি ধামা চাপা দিতে একটি মহল মরিয়া হয়ে উঠেছে।   

তিলডাঙ্গা এলাকার আনসার ভিডিপি সদস্য কনিকা গোলদার, মাধবী শীল, মুক্তি হালদার, স্মৃতি গোলদারসহ একাধিক সদস্যেরা জানায় নির্বাচনে ও পূজায় ডিউটিতে তালিকায় নাম তোলার সময়ে প্রত্যেক সদস্যের কাছ থেকে ইউনিয়ন ও ওয়ার্ড কমান্ডার এবং দলনেতারা ভিডিপি কর্মকর্তা জাহানারার কথা বলে ৮‘শ থেকে ১ হাজার টাকা নেয়। তাছাড়া অনেকের কাছ থেকে টাকা নেয়ার পরও ডিউটি দেয়নি। আবার ভারতে থাকা ও প্রশিক্ষন বিহীন ব্যক্তির নামেও ডিউটি দেয়া হয়েছে।

যেমন তিলডাঙ্গার শংকর গোলদারের মেয়ে মায়া গোলদার ভারতে থাকার সত্বেও এবার বটবুনিয়া কলেজিয়েট স্কুলে সার্বজনীন দূর্গা মন্দিরে ডিউটিতে তালিকায় নাম দেওয়া হয়। কিন্তু সেখানে অন্য লোক ডিউটি দিয়ে মায়ার নামে টাকা উত্তোলন করেছে। সম্প্রতি এসব অনিয়ম দূর্নীতির প্রতিকার চেয়ে তারা জেলা প্রশাসক বরাবর লিখিত অভিযোগ করেছেন বলে জানান। জেলা প্রশাসকের কাছে অনুরুপ একটি পৃথক অভিযোগ করেছেন এবং বিভিন্ন দপ্তরে অনুলিপি দিয়েছেন বলে পানখালী ইউনিয়নের লক্ষ্মীখোলা এলাকার ভগবতী ঢালীসহ ভূক্তভোগী একাধিক সদস্যরা জানান।

তিলডাঙ্গা এলাকার ওয়ার্ড কমান্ডার নারায়ন গোলদার জানান অস্ত্র টেনিংয়ে অনেিমশ তরফদারের নাম দেয়া হয়। এসময়ে অফিস কিছু খরচের কথা বলেছিল। তাই তার কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা নিয়েছিলাম। এখন আর খচর লাগেনি বিধায় কয়েক দিন আগে তার টাকা ফেরত দিয়েছি।    

এব্যাপারে উপজেলা আনসার ভিডিপির ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা জাহানারা খাতুন বলেন তার বিরুদ্ধে যড়যন্ত্র চক্রান্ত চলছে। তিনি বলেন তিলডাঙ্গার দুই একজনের আনটেনিং লোক নেয়া হয়নি বলে তারা এমন করছে। এক প্রশ্নের উত্তরে বলেন তালিকা করার সময়ে মায়া গোলদারের নাম দেয়া হয়েছিল পরে সে ভারতে চলে যায়। তার নামে যে ডিউটি করেছে তাকে তিনি টাকা দিয়েছেন বলে জানান।

এবিষয়ে আনসার ভিডিপির জেলা কমান্ডার হাফিজ আল মোহাম্মদ গাদ্দাফি জেলা প্রশাসক বরাবর অভিযোগের অনুলিপির কপি পেয়েছেন। তদন্ত পূর্বক ওই কর্মকর্তার বিরুদ্ধে তিনি প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিবেন বলে জানান।
 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close