১৩ আগস্ট ২০২০, বৃহস্পতিবার ১১:০৬:৩১ এএম
সর্বশেষ:

১০ ডিসেম্বর ২০১৯ ১১:২৮:৩২ পিএম মঙ্গলবার     Print this E-mail this

দাকোপে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা

বিধান চন্দ্র ঘোষ দাকোপ(খুলনা) থেকে
বাংলার চোখ
 দাকোপে লেপ-তোষক তৈরিতে ব্যস্ত কারিগররা

খুলনার দাকোপে শীতের আগমনে লেপ-তোষকের কারিগররা ব্যস্ত সময় কাটাছেন। বিভিন্ন হাট-বাজারে করিগররা বিক্রির জন্য লেপ-তোষক তৈরি করে মজুদ করছেন।

খোঁজ খবর নিয়ে জানা গেছে উপজেলার বটবুনিয়া বাজার, কালিনগর বাজার, নলিয়ান বাজার, বাজুয়া বাজার ও লাউডোব বাজারে লেপ-তোষক তৈরির জন্যে প্রায় ১৫/১৬টি দোকান গড়ে উঠেছে। এছাড়া উপজেলা সদর চালনা পৌর বাজারেও আরও ৫/৭টি দোকান রয়েছে। তাছাড়া এসময় বাহিরের কারিগররাও বাড়িতে বাড়িতে ব্যবহারের জন্য লেপ-তোষক তৈরি করতে আসছে।

এদিকে শীতের আগমনে কিছু সংখ্যক ব্যবসায়ী বাই-সাইকেল ও ভ্যান গাড়ীতে করে গ্রামে গ্রামে লেপ-তোষক ফেরী করে বিক্রি করছে। অপরদিকে প্রত্যেক বছর শীতের সময়ে উপজেলা প্রশাসন, বিভিন্ন সামাজিক প্রতিষ্টান ও সমাজে দান বীররাও এ সময়ে শীতার্ত মানুষের পাশে এগিয়ে আসে এবং তাদের শীতকষ্ঠ কিছুটা লাঘব হয়। এবারও তারা এগিয়ে আসবে বলে সচেতন মহল মনে করেন।

এই উপজেলায় সাধারনত অগ্রহায়ন মাসের শুরুতে শীতের আমেজ লক্ষ্য করা যায়। ইতোমধ্যে ব্যাপক শীত পড়তে শুরু করেছে। রাত ৮টার পর থেকে সকাল পর্যন্ত বর্তমানে কনকনে ঠান্ডা অনুভূত হচ্ছে। এসময় গরম কাপড় ব্যবহার না করে রাতে কারোও ঘুমানোর উপায় নেই। তাই দিন যতই অতিবাহিত হচ্ছে শীতের তীব্রতা ততই বাড়ছে। সন্ধ্যার পর থেকে সকাল পর্যন্ত  প্রচন্ড কুয়াশা ঝড়ছে।

এলকার অবস্তা সম্পন্ন লোকজন নিজের ও পরিবারের সদস্যদের জন্য লেপ-তোষক সংগ্রহ করছেন। অপরদিকে নিন্ম আয়ের পরিবারের সদস্যদের লেপ-তোষকের সাধ থাকলেও অনেকের সাধ্য না থাকায় তাদের পরিবারের মহিলারা পুরানো শাড়ি, লুঈি ও অন্যানো কাপড় এবং রঙ-বেরঙের সুতা দিয়ে ক্যাথা তৈরি করে চলেছেন। এসময় গ্রাম্য কিছু মহিলারাও ক্যাথা তৈরির কাজে ব্যস্ত থাকে। তারা প্রতিটি ক্যাথা তৈরি করতে ২শ টাকা থেকে শুরু করে ৭/৮শ টাকা পর্যন্ত মুজরি নিচ্ছে। গরম কাপড় তৈরিতে ব্যস্ত হয়ে ওঠায় ওই সব কাজে নিয়োজিত শ্রমিরাও ব্যস্ত সময়ে পার করছেন।

একাজে নিয়োজিত বটিয়াঘাটা উপজেলার টালিয়ামারী এলাকার মারুফ বিশ্বাস, শহীদ বিশ^াস, আলামীন বিশ^াস বলেন প্রতিটি লেপের মুজরি দেড়‘শ থেকে ২‘শ টাকা। প্রতিদিন ৩জন মিলে ৬/৭টি লেপ তৈরি করেন।
চালনা বাজার লঞ্চঘাট এলাকার কারিগর ও দোকানদার নূর মোহাম্মদ জানান বর্তমানে শীত একটু বেশী পড়ায় প্রতিদিন ৩/৪টি করে লেপ-তোষক বিক্রি করছেন।

পোদ্দারগঞ্জ বাজারস্থ রাম কৃষ্ণ সেবাশ্রমের সাধারণ সম্পাদক পরিতোষ সরদার বলেন প্রতি বছরের ন্যায় এবারও জানুয়ারী মাসের প্রথম সপ্তাহে তারা ২‘শ থেকে আড়াই‘শ জন গরীব অসহায় ব্যক্তিকে শীত বস্ত্র বিতরণ করবেন।
উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা শেখ আব্দুল কাদের জানান প্রতি বছরের মতো এবারও সরকারের পক্ষ থেকে শীতবস্ত্র দেয়া হবে। ইতি মধ্যে চালনা পৌরসভাসহ সব ইউনিয়নে প্রায় সাড়ে ৫ হাজার কম্বল বন্টন করা হয়েছে। খুব তাড়াতাড়ি এগুলো তালিকা করে শীতার্ত মানুষের মাঝে বিতরণ করা হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close