২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার ০২:৫৬:৩৮ পিএম
সর্বশেষ:

০৮ জানুয়ারি ২০২০ ১২:৫৬:৫৯ এএম বুধবার     Print this E-mail this

স্বাধীনতা বিরোধীরা নানাভাবে আমাদের মেধাগুলোকে নষ্ট করছে:প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

স্টাফ করেসপন্ডেন্ট, গোপালগঞ্জ
বাংলার চোখ
 স্বাধীনতা বিরোধীরা নানাভাবে আমাদের মেধাগুলোকে নষ্ট করছে:প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি বলেছেন, যখন বাংলাদেশ এগিয়ে যচ্ছে তথন স্বাধীনতা বিরোধীরা নানাভাবে আমাদের মেধাগুলোকে নষ্ট করার ষড়যন্ত্র করে চলছে। কিভাবে বাংলার যুব সমাজ ধ্বংস করা যায়। বিএনপির আমলে ঝড়ে পড়া শিক্ষার্থীদের হার ছিল ৫০ এরও বেশি আর এখন নেমে এসেছে ১৮ ভাগে।

আজ মঙ্গলবার দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার নিলফা বয়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের স্কুল ফিডিং কর্মসূচির উদ্বোধনীয় অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন, যদি দেশের সব স্কুলে স্কুল ফিডিং কর্মসূচি শুরু করা যায় তাহলে দুপুরে যেসব শিক্ষার্থী চলে যায় তারা স্কুলে থাকবে, ঝড়ে পরার হার আরো কমবে। ইতিমধ্যে সরকার পিডিবি-৪ এর মাধ্যমে সারা বাংলাদেশের স্কুলগুলোতে শ্রেনীকক্ষ করার চিন্তা করছে। ইউনিসেফসহ বিভিন্ন সংস্থা বলছে বাংলাদেশের ৬৫ ভাগ ছেলে মেয়ে লিখতে পারে না পড়তে পারে না। কিন্তু এক বছরের সরকারের বিভিন্ন কর্মকান্ড গ্রহনের পর ৮৫ ভাগ ছেলে মেয়ে লিখতে পারে না পড়তে পারে। ২০৪১ সালে সরকার উন্নত বাংলাদেশ করতে চায়, সেই উন্নত বাংলাদেশে কোমলমতি শিক্ষার্থীরাই হবে কারিগর।

প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, পর‌্যায়ক্রমে সারা দেশে স্কুল ফিডিং কর্মসূচির আওতায় রান্না করা খাবার (মিট ডে মিল) চালু করা হবে। ২০১৯ সালের অক্টোবর মাস থেকে দারিদ্র পীড়িত এলাকায় স্কুল ফিডিং কর্মসূচির আওতায় ১৬ টি উপজেলার ৪’শ টি বিদ্যালয়ে ৮৫ হাজার ৭০৫ জন শিক্ষার্থীকে পাইলট ভিত্তিতে একদিন অন্তর একদিন রান্না করা খাবার পরিবেশনের উদ্যোগ নেয়া হয়েছে। ২০২০ সালে জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশত বার্ষিকীতে ওই ১৬টি উপজেলার সকল স্কুলে মিড ডে মিল চালু করা হবে। এর অংশ হিসেবে আজ মঙ্গলবার দুপুরে গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার ৭৯ টি বিদ্যালয়ের মধ্যে ৩৩ টি বিদ্যালয়ে মিট ডে মিল চালু করা হলো।

প্রতিমন্ত্রী আরো বলেন, আমরা শিক্ষার্থীদের উপবৃত্তি চালু করেছি। উপবৃত্তি টাকা সরাসরি মায়ের মোবাইলে পাঠিয়ে দিচ্ছি। স্কুল ফিডিং কায্যক্রমের মাধ্যমে শিশুদের উচ্চ পুষ্টিমান সমৃদ্ধ বিস্কুট দেয়া হচ্ছে। তাই আমাদের সরকারের সময় ঝরে পড়ার হার কমে এসেছে। আর মিড ডে মিল চালু করার মাধ্যমে আমরা ঝরে পড়ার হার শূন্যের কোঠায় নামিয়ে আনার জন্য কাজ করছি।

তিনি আরো বলেন, প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষকদের বেতন ১৩তম গ্রেড থেকে ১১তম গ্রেডে উন্নীত করা হয়েছে। প্রধান শিক্ষকদের ১০ম গ্রেডে উন্নীত করার কাজ চলছে। শিক্ষকদের আমরা সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করেছি। শিক্ষকদেরকেও আরো যত্নবান হয়ে শিশুদের পড়াশোনা করাতে হবে। যাতে তারা মানুষ হয়ে গড়ে উঠতে পারে।

এর আগে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা প্রতিমন্ত্রী জাকির হোসেন এমপি গোপালগঞ্জের টুঙ্গিপাড়া উপজেলার নিলফা বয়রা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের কমলমতি শিশুদের মুখে রান্না করা খাবার তুলে দিয়ে স্কুল ফিডিং কর্মসূচির উদ্বোধন করেন।

গোপালগঞ্জের জেলা প্রশাসক শাহিদা সুলতানার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের সচিব মো: আকরাম-আল-হোসেন, প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক (অতি: দায়িত্ব) সোহেল আহমেদ, প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন) রতন চন্দ্র পন্ডিত, প্রকল্প পরিচালক রুহুল আমিন খান, বিশ্ব খাদ্য সংস্থার প্রতিনিধি মাহফুজ আলম, গোপালগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সাধারন সম্পাদক মাহাবুব আলী খান, টুঙ্গিপাড়া উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মো: ইলিয়াস হোসেন, উপজেলা চেয়ারম্যান সোলায়মান বিশ্বাস, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাকিব হোসেন তরফদার, পৌর মেয়র শেখ আহম্মেদ হোসেন মির্জা, কুশলী ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান খালিদ হোসেন প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
কাউসার হোসেন সুইট
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close