২০ ফেব্রুয়ারি ২০২০, বৃহস্পতিবার ০৬:০৪:১০ এএম
সর্বশেষ:

২৩ জানুয়ারি ২০২০ ০২:২৯:১১ এএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

চলনবিলের সিংড়ায় খেজুর রসে বিষ দিয়ে পাখি নিধন

মোঃ এমরান আলী রানা, সিংড়া (নাটোর) প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 চলনবিলের সিংড়ায় খেজুর রসে বিষ দিয়ে পাখি নিধন

জী্বিৈচত্র্যে ভরপুর দেশের  ঐতিহ্যবাহী   চলনবিল শুধু মৎস্য ভ্ডাার নামে খ্যাত তা নয় এ বিল দেশী ও অতিথি পাখির এক বিশাল জলাভুমি। প্রতিবছর শীতকালে এ বিলে আগমন ঘটে হাজার হাজার অতিথি পাখি। এসব অতিথি পাখি আর নানা জাতের দেশী পাখির পদচারণায় চলনবিলের প্রকৃতি ও পরিবেশ হয়ে উঠে  এক অন্য অপরুপ সৌন্দর্যের নীলা ভুমি।
কিন্তু এক শ্রেণীর অসাধু পাখি শিকারীর দল বিভিন্ন কায়দায় ফাঁদ পেতে দিনের পর দিন নিধন বরছে এ সব পরিবেশ বান্ধব পাখি। পাখি শিকারী চক্র এত দিন পাখি শিকারে বন্দুক,কারেন্ট জাল সহ বিভিন্ন ফাঁদ ব্যবহার করলেও এবার তারা পাখি শিকারে অভিনব কায়দার আশ্রয় নিয়েছে। খেজুর গাছের রসের হাড়িতে দানাদার বিষ মিশিয়ে পাখি নিধন কর্মে মেকেছে  এই সব পাখি শিকারীর দল। আর সামান্য টাকার লোভে এসব পাখি বিক্রয় করছে স্থানীয় নি¤œ আয়ের মানুষের কাছে। এতে একদিকে যেমন বিষ ক্রিয়ায় নি¤œ আয়ের মানুষের জীবন ঝুকি বাড়ছে অন্য দিকে পাখি নিধনে সৌন্দর্য ও ভারসাম্যের প্রভাব পড়ছে পরিবেশ ও প্রকৃতির উপর।
সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, চলনবিল অধ্যুষিত নাটোরের সিংড়া উপজেলার কৃঞ্চপুর আত্রাই নদীর বাঁধে প্রায় ২০টি খেজুর গাছের রসের হাড়িতে দানাদার বিষ মিশিয়ে শালিক,বুলবুলি সহ প্রায় শতাধিক দেশী প্রজাতি পাখি নিধন শিকারীরা। এ ঘটনার খবর পেয়ে স্থানীয় পরিবেশ বান্ধব কর্মীরা পাখি গুলোকে উদ্ধার করেন। এসময় দানাদার বিষ মিশ্রত রসের হাড়ি ও খেজুর গাছ পানিতে ধুয়ে এলাকা বাসীকে সচেতন করেন।  এলাকা বাসী জানান-শীতের এই মৌসুমে  খেজুর গাছের রসের হাড়িতে শালিক,বুলবুলি সহ নানা জাতের দেশি পাখির আনা গোনা দেখা যায়। এই সুযোগেই লোভী শিকারীর দল এই অভিনব কায়দায় পাখি নিধনে মেতেছে। এলাকা বাসীরা আরও জানান শিকারীরা এসব পাখি স্থানীয় নি¤œ আয়ের মানুষের কাছে ১০ টাকা করে বিক্রয় করেছে। তারা অনেকেই রান্না করে এ সব পাখির মাংস খেয়েছে।
চলনবিলের লেখক ও গবেষক সৌরভ সোহরাব বলেন- পাখি শুধু পরিবেশ ভারসাম্যই রক্ষা করে তা নয়। পাখি পরিবেশ ও প্রকৃতির অলংকার হিসাবে সৌন্দর্য বৃদ্ধি করে যা আমাদেরকে মুগ্ধ করে এবং প্রকৃতিকে ভালোবাসতে শেখায়। কিন্তু পাখি নিধন আইনটির যথাযথ প্রয়োগ না থাকায় চলনবিল এলাকায় প্রতিনিয়তই পাখি শিকার হচ্ছে। এতে একদিকে যেমন চলনবিলের পরিবেশ ও প্রকৃতির সৌন্দর্য নষ্ট হচ্ছে অন্য দিকে বিলুপ্তের পখে হারিয়ে যাচ্ছে দেশী প্রজাতির পাখি।
সিংড়া উপজেলা বন কর্মকর্তা মাহবুবুর রহমান বলেন, চলনবিল একটি বৃহৎ এলাকা হওয়ায় পাখি শিকার বন্ধ করা সম্ভব হচ্ছে না। তবে এবিষয়ে চলনবিলের বিভিন্ন এলাকায় সচেতনতা সভা করছে বাংলাদেশ বন্যপ্রাণী অপরাধ দমন ইউনিট ও রাজশাহী বন্যপ্রাণী ব্যবস্থাপনা ও প্রকৃতি সংরক্ষণ বিভাগ।


সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
কাউসার হোসেন সুইট
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close