২৯ মার্চ ২০২০, রবিবার ০৬:২৬:২৭ এএম
সর্বশেষ:

১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০২:২২:৪৩ পিএম রবিবার     Print this E-mail this

মাহবুব তালুকদার

অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য ৫ ‘নি’ তত্ব

ডেক্স রিপোর্ট
বাংলার চোখ
মাহবুব তালুকদার অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য ৫ ‘নি’ তত্ব

বিভিন্ন সময় নানা বক্তব্য দিয়ে ও কর্ম সম্পাদন করে আলোচনায় থাকা জ্যেষ্ঠ নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার এবার অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনের জন্য পঞ্চ ‘নি’ তত্ত্ব দিলেন।

আগারগাঁওয়ের নির্বাচন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে ৪৯ উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তার যোগদান উপলক্ষে রোববার (১৬ ফেব্রুয়ারি) আয়োজিত ১২ দিনব্যাপী এক কর্মশালায় উদ্বোধন অনুষ্ঠানে তিনি এ তত্ত্ব দেন।

নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার তার লিখিত বক্তব্যে বলেন, অবাধ ও গ্রহণযোগ্য নির্বাচনী ব্যবস্থাপনাকে আমি ৫টি ‘নি’ দিয়ে সংজ্ঞায়িত করার চেষ্টা করেছি।

প্রথম ‘নি’ হচ্ছে ‘নিয়শ্চয়তা’-এটা নির্বাচন সুষ্ঠু হওয়ার নিশ্চয়তা। এ নিশ্চয়তার অর্থ ভোটার ও রাজনৈতিক দলের আস্থা সৃষ্টি।

দ্বিতীয় ‘নি’ হচ্ছে নিরপেক্ষতা’-নির্বিঘ্নে ভোট প্রদান ও ভোট কার্যক্রম চালানোর প্রতিশ্রুতি। কমিশেনর পক্ষে এই নিরপেক্ষতা অপরিহার্য।

তৃতীয় ‘নি’ হচ্ছে ‘নিরাপত্তা’-এই নিরাপত্তা ভোটার, রাজনৈতিক দল ও অন্য অংশীজনের নিরাপত্তার প্রতিশ্রুতি। এ বিষয়ে আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীকে কার্যকরভাবে নির্বাচনকালে কমিশনের প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে নিয়ে আসা দরকার।

চতুর্থ ‘নি’ হচ্ছে ‘নিয়ম-নীতি’- নির্বাচন সংশ্লিষ্ট সবাইকে কঠোরভাবে বিধি-বিধান পরিচালনের আওতায় আনা প্রয়োজন।

পঞ্চম ‘নি’ হচ্ছে ‘নিয়ন্ত্রণ’-নির্বাচন অবশ্যই নির্বাচন কমিশনের নিয়ন্ত্রণে থাকতে হবে। স্বনিয়ন্ত্রণই নির্বাচন কমিশনের মূল কথা।

তিনি আরও বলেন, নির্বাচনী ব্যবস্থাপনায় নিশ্চয়তা, নিরপেক্ষতা, নিরাপত্তা, নিয়মনীতি ও নিয়ন্ত্রণ কমিশনের জন্য গুরুত্বপূর্ণ চ্যালেঞ্জ। এই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলার জন্য আমরা প্রস্তুতি রয়েছি।

কেএম নূরুল হুদার নেতৃত্বাধীন বর্তমানে নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ তিন বছর পূর্ণ হলো উল্লেখ করে মাহবুব তালুকদার বলেন, এই তিন বছরে অনেক অর্জন রয়েছে। আবার কোনো কোনো ক্ষেত্রে রয়েছে বিসর্জন।‘সংবিধান বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশনকে যে অপরিমেয় ক্ষমতা দিয়েছে, পৃথিবীর খুব কম দেশের কমিশন, এমনকি ভারতের নির্বাচন কমিশনও এমন ক্ষমতার অধিকারী নয়। বর্তমান নির্বাচন কমিশন তার ক্ষমতার কতটুকু প্রয়োগ করতে পেরেছে, তা সময়ই বিচার করতে পারবে।’

এই নির্বাচন কমিশনার বলেন, গণতন্ত্র-নির্বাচন অভিন্ন সূত্রে বাঁধা। তাই গণতান্ত্রিক দেশে নির্বাচন খুব গুরুত্বপূর্ণ। এজন্য আমার কোনো অবস্থাতেই মানুষের ভোটধিকারকে লঙ্ঘিত ও ভূলুষ্ঠিত হতে দিতে পারি না।

ইসি সচিব মো. আলমগীরের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত বৈঠকে প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কেএম নূরুল হুদা, নির্বাচন কমিশনার রফিকুল ইসলাম, বেগম কবিতা খানম ও ব্রিগেডিয়ার জেনারেল শাহাদাত হোসেন চৌধুরীসহ ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

নতুন উপজেলা নির্বাচন কর্মকর্তাদের উদ্দেশ্যে তারা আইনের প্রতি অনুগত থেকে কাজ করার আহ্বান জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
কাউসার হোসেন সুইট
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close