১০ এপ্রিল ২০২০, শুক্রবার ০৬:৪৩:০৬ পিএম
সর্বশেষ:

২৬ মার্চ ২০২০ ০১:৫৯:৫৩ এএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

এতিম শাবানা বাঁচতে চায়

রংপুর প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 এতিম শাবানা বাঁচতে চায়

“মা”-কথাটি এতো সমধুর যে,এই একটি শব্দ নিয়ে কতো কবিতা,গান,উপন্যাস,নাটক,ছবি,গল্প ও ছোট গল্প লেখা হয়েছে তার হিসেব নেই। প্রত্যেক ধর্মেই মাকে দেওয়া হয়েছে মযার্দা আর শত ব্যস্ততার মাঝেই মা ডাকটি দিয়ে যেন জুড়ায় প্রাণ। তাইতো মুসলিম ধর্মের পবিত্র ধর্মগ্রন্থ কোরআনে বলা হয়েছে-“মায়ের পায়ের নিচে সন্তানের জান্নাত”।

রংপুরের পীরগঞ্জ উপজেলার বড় দরগা ইউনিয়নের বড় আমবাড়ি পশ্চিম পাড়া( শেয়াল খাওয়া পাড়া)এলাকায় মা শব্দটি যেন কাল/যম হয়ে দাড়িয়েছে সন্তানের  হৃদয়ে তবুও মায়ের প্রতি নেই সন্তানের কোন অভিযোগ!

ঘটনার পরিক্রমায় সরেজমিনে গিয়ে অদ্ভুত ঘটনার  বর্ণনা শুনে! সেই মায়ের প্রতি নয় বরং নিজের প্রতি ঘৃণা জন্মেছে,আসলে কি? আমরা সত্যিই মানুষ! নিজের একটু জৈবিক চাহিদার জন্য ভবিষ্যৎ প্রজন্মের কথা চিন্তে না করে নিজেকে নিয়ে ব্যতিব্যস্ত।

হ্যা বলছি! স্বামীচ্যুত শাবানার পরিবারের গল্প।

বড় আমবাড়ি গ্রামের মোনজিলা বেগমের তিন স্বামী পাঁচ জন সন্তান । প্রথম স্বামী পাশ্ববতর্ী মিঠাপুকুর উপজেলার ছড়ান এলাকার হামিনপুর গ্রামের সাদেক মিয়া-যিনি বর্তমানে প্যারালাইজ রোগে ভুগছেন। প্রথম স্বামীর ঘরে তিনটি সন্তান বড় মেয়ে শাবানা বেগম(২০),দুই ছেলে মনোয়ার হোসেন(১৫) ও আনোয়ার হোসেন(৯) নামে জন্ম দেন। স্বামীর অসুস্থতার কারণে তাকে ছেড়ে দিয়ে তিনি দ্বিতীয় বিয়ে করেন পীরগঞ্জ উপজেলার বড় দরগা ইউনিয়নের গুর্জিপাড়া এলাকার  চাপাবাড়ি গ্রামের সাজু মিয়াকে । সেখানে একটি খাদিজা(৭) নামে কন্যা সন্তান জন্ম দেন। সেই স্বামীকেও বাদ দিয়ে একই ইউনিয়নের বড়িয়া মসজিদ এলাকার ফুলু মিয়াকে তৃতীয় বিয়ে করেন। সেখানে জান্নাতি(৩) নামে একটি কন্যা সন্তান জন্ম দেন। সেই স্বামীকে বাদ দিয়ে বর্তমানে ঝোলাপাড়া নামে পার্বতীপুর গ্রামের লাবু মিয়া ওরফে ডনের সাথে চলছে তার অবৈধ সম্পর্ক।

ইতিপূর্বে বড় মেয়ে শাবানাকে জোড়পূর্বক বিয়ে দেন গাজীপুরে অবস্থানরত এক ছেলের সাথে। সেও তাকে ভাগিয়ে দিয়েছে- তবে তালাক হয়নি এবং তার কোল জুড়ে রয়েছে ফাতেমা নামে এগারো মাসের সন্তান।

বর্তমানে তিন বাপের পাঁচ ভাই-বোন মায়ের নামে কেনা তিন শতক জমিতে বসবাস করছেন। আর বসবাসের এই আশ্রয়টুকু তার মা বিক্রি করে অন্য জায়গায় চলে গেছে। ফলে আশ্রয়হীন হয়ে পড়ছে এই এতিমরা। নাম প্রকাশে অনিশ্চুক অনেকে জানায় এই মহিলা নেশা ও দেহ ব্যবসার সাথে জড়িত।

শাবানার সাথে সংসার চালার বিষয়ে জানা যায়-এতিম এই ভাই-বোনদের নিয়ে দুই রুমবিশিষ্ট টিনশেড ইটের ঘরের মেঝেতে বিছানা করে খেয়ে না খেয়ে এতিম এই ভাইবোনদের নিয়ে বসবাস করছেন। তিনি আরো বলেন- তারা তাদের মায়ের কাছে আমি ও আমার ভাই  অনেক অনুরোধ করেছি যে-মা কি হয়েছে হোক? আমরা এখানে সবাই বসবাস করি। এই কথা বলাতে মা আমাকে ধরে মারে এবং আমাকে মিঠাপুকুর মেডিকেলে ভর্তি হতে হয়। আমরা এখান থেকে চলে না যেতে চাইলে পুলিশ দিয়ে আমাদের গ্রেফতার করার হুমকি দেয় এবং ছোট ভাইকে থানায় তুলে নিয়ে যাওয়ার হুমকি দেয় মায়ে। এছাড়া যারা এই জমিটুকু ক্রয় করছেন তারা নানাবিধ ভাবে আমাদের ওপর হুমকি ধামকি প্রয়োগ করছে। আমি এই এতিম ভাইদের নিয়ে কোথায় যাবো ?

এতিম মনোয়ার হোসেন বলেন- এলাকায় গরু চুরি করার অপবাধে ২৫,০০০(পঁচিশ হাজার)টাকা জরিমানা করে আর সেই টাকা পরিশোধ করার জন্য কয়েকজন মিলে আমার মায়ের সাথে বুদ্ধি করে এই বাড়িভিটা বিক্রি করেন। কিন্তু এই জমি থেকে আমাদের উচ্ছেদ করলে আমরা কি করবো?কোথায় থাকবো? আমি পড়ালেখার পাশাপাশি মানুষের জমিতে কাজ করি যা দিয়ে আমরা কোন রকম খেয়ে পড়ে বেঁচে আছি।

এলাকাবাসী জানায়- শাবানা সকালে উঠে রান্না করে ভাইবোনদের খাইয়ে দিয়ে গুর্জিপাড়ায় যায় সারাদিন কাঁচামাল বান্ধে সেখানে যে টাকা পায় তাই দিয়ে বাজার সদয় করে খেয়ে পড়ে বেঁচে আছে। আর মনোয়ার ছেলেটা প্রতিবন্দী তবুও ছোট ভাইবোনদের দিকে দেখে ধানের সময় হাড় ভাঙ্গা পরিশ্রম করে। তাদের যদি এই জায়গা থেকে উচ্ছেদ করা হয় কিংবা তুলে দেওয়া হয় তাহলে এই এতিম বাচ্চাদের প্রতি নেহাৎ অন্যায় করা হবে বলে এলাকাবাসীর দাবী।

প্রতিবন্দী পাঁচ এতিম বাচ্চাদের বসবাসের আশ্রয়টুকু কেড়ে না নিয়ে তাদের প্রতি সজাগ দৃষ্টি রাখার জন্য উর্ধতন কতর্ৃপক্ষ,মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, পীরগঞ্জ আসনের এমপি শিরিন শারমিন চৌধুরীসহ বিভিন্ন ধরণের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন,মানবাধিকার সংগঠন এগিয়ে আসার জন্য আহব্বান।     

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
ব্যবস্থাপনা সম্পাদক
কাউসার হোসেন সুইট
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close