২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার ০৫:৩৭:২০ এএম
সর্বশেষ:
পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ঘরে ঢুকাবেন না, কোনো সন্দেহ হলে নিকটস্থ থানাকে অবহিত করুন অথবা ৯৯৯ কল করুন: পুলিশ সদর দপ্তর           

০৪ এপ্রিল ২০২০ ০৬:১৮:০০ পিএম শনিবার     Print this E-mail this

গভীররাতে রাজধানীর জঙ্গলে নবজাতকের কান্না

আমিনুল ইসলাম বাবু, ষ্টাফ করসপন্ডেন্ট
বাংলার চোখ
 গভীররাতে রাজধানীর জঙ্গলে নবজাতকের কান্না

শুক্রবার রাত আড়াইটা। রাজধানীর মোহাম্মদপুরের বছিলার দয়াল হাউজিংয়ের চারদিক সুনসান নিরাবতা। হাউজিংয়ের ৩ নম্বর প্লটের ঘুটঘুটে অন্ধকারাচ্ছন্ন ঝোপ-ঝাড়ে হাত-পা ছড়িয়ে কাঁদছিলো প্রায় সদ্য ভুমিষ্ট এক নবজাতক। তখনও তার নাড় কাটা হয়নি; দুটি পলিথিনের ব্যাগে জড়ানো ছোট্ট শরীরটাতে রক্ত আর ধুলা-বালিতে মাখামাখি অবস্থা। ওই প্লটের অদূরেই হাসানের বাড়ি। বাড়িটির ভাড়াটিয়া ইব্রাহিম রাতের খাবার খেয়ে মাত্র ঘুমানোর প্রস্তুতি নিচ্ছিলেন। হঠাৎ দুর থেকে ভেসে আসে মেয়ে শিশুটির হৃদয় ভাঙ্গা কান্না।
জঙ্গলে এত রাতে কে কাঁদছে? বুঝে উঠতে পারছিলেন না ইব্রাহিম। কৌতুহলীবশত এগিয়ে গিয়ে দেখেন, একটি ঝোপে অঝোরে কাঁদছে শিশুটি। ভেঙে গেছে গলা। পিঁপড়া আর মশা-মাছি ছেয়ে আছে তার শরীরজুড়ে। কিংকর্তব্যবিমুঢ় ইব্রাহিম- এত রাতে শিশুটিকে নিয়ে কী করবেন ভেবে উঠতে পারছিলেন না। কিন্তু নবজাতকের স্বজনরা তার মৃত্যু কামনা করে জঙ্গলে ফেলে রেখে গেলেও শিশুটিকে একদন্ডের জন্যও হাতছাড়া করেননি ইব্রাহিম। তার জীবন বাঁচাতে কল দেন জরুরী সেবা ৯৯৯-এ। অবশেষে রক্ষা পায় শিশুটির প্রাণ। সে এখন শহীদ সরোওয়ার্দী হাসপাতালের শিশু ওয়ার্ডে ভর্তি। সুস্থ আছে বলে জানিয়েছেন চিকিৎসকরা। ইব্রাহিম ও হাসপাতালের চিকিৎসকদের বরাত দিয়ে গতকাল শনিবার বিকালে এসব তথ্য জানান মোহাম্মদপুর থানার
এএসআই নরুল ইসলাম।
তিনি  বলেন, ৯৯৯-এর মাধ্যমে ফোন পেয়ে শিশুটিকে উদ্ধার করেই তাকে নিয়ে যাওয়া হয় শহীদ সরোওয়ার্দী হাসপাতালে। কিন্তু গভীররাতে এক প্রকার ভুতুরে পরিবেশ বিরাজ করছিলো হাসপাতালে। চিকিৎসক-নার্স কারোরই দেখা মিলছিলো না। এই অবস্থায় শিশুটির প্রাণশঙ্কার কথা চিন্তা করে কী যেন হয়ে গেল ভেতরটায়, চিৎকার দেই। কিছুক্ষণ পর একজন নার্স এগিয়ে এলেও চিকিৎসক তখনও আসেননি। শিশুটি তখনও কাঁদছিলো। এই অবস্থায় তার কিছু হয়ে গেলে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে সংশ্লিষ্ট দপ্তরে লিখিত অভিযোগ দেব জানাই। বেশ কিছু সময় পর একজন চিকিৎসক এসে নবজাতককে নিয়ে যায় শিশু ওয়ার্ডে। ভোররাতের দিকে চিকিৎসকরা জানান মেয়েটি ভালো আছে।
এএসআই নরুল ইসলাম আরও জানান, রাতের কোনও একটি সময়ে শিশুটিকে কেউ ওই ঝোপের মাঝে ফেলে গেছে বলে ধারণা করা হচ্ছে। কারা শিশুটিকে ফেলে গেছে তা তদন্ত চলছে। করোনা ইস্যুতে এই দুঃসময়ের মধ্যে যে বা যারাই শিশুটিকে জঙ্গলে ফেলে গেছে, দ্রুত সময়ের মধ্যে তাদের আইনের আওতায় আনা হবে বলেও জানান তিনি।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close