২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার ০৯:৫৫:৪৫ এএম
সর্বশেষ:
পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ঘরে ঢুকাবেন না, কোনো সন্দেহ হলে নিকটস্থ থানাকে অবহিত করুন অথবা ৯৯৯ কল করুন: পুলিশ সদর দপ্তর           

১৯ এপ্রিল ২০২০ ০৯:১০:৩৩ পিএম রবিবার     Print this E-mail this

নিঃসঙ্গ ভয়াবহতার বাস্তবতায় ভাইয়ের প্রতি বোনের ভালোবাসা

✍ বাবুল তালুকদার
বাংলার চোখ
 নিঃসঙ্গ ভয়াবহতার বাস্তবতায় ভাইয়ের প্রতি বোনের ভালোবাসা

 এই করোনার দুর্যোগে সারা বিশ্ব যখন গৃহবন্দি হয়ে পড়েছে, ঠিক তখনই আমরা (সাংবাদিকরা) দাপিয়ে বেড়াচ্ছি পুরো শহর! যদিও এটা নতুন কিছু নয়, কারণ যেকোনো ভয়াবহতায় সবাই যখন পিছু হটে আমরা তখন সামনে এগিয়ে যাই সে দৃশ্য ধারণ করতে । হোক না সেটা সন্ত্রাস, দূর্যোগ অথবা মহামারী ! যদিও কখনো কখনো পলিটিক্যাল প্রোগ্রাম গুলোতে আমরা ত্রিপক্ষীয় হামলার শিকার হয়ে যাই, একদিকে পুলিশ একদিকে পিকেটার আর অন্যদিকে সাধারণ মানুষ, সবার কাছেই যেন আমরাই শত্রু !সাংবাদিকতার কর্মজীবনে দুযুগের বেশি সময় পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে অনেকবার পুলিশ ও নিরাপত্তারক্ষীর হামলার শিকার হয়েছি, ওয়ান ইলেভেনে কারফিউ চলাকালে মাইনুদ্দিন ফকরুদ্দিন সরকারের সেনা সদস্যদের আক্রমণের শিকার হয়ে গুরুতর আহত অবস্থায় হাসপাতালে ভর্তি হয়েছি, এবং সন্ত্রাসীদের হামলার পাশাপাশি পলিটিক্যাল পার্টির অ্যাক্টিভিটিসদেরও হামলারও শিকার হয়েছি অনেকবার তবু এখনকার মতো কখনো এতোটুকু নিঃসঙ্গ ও ভয়াবহতা কখনো লাগেনি!

 আজ কেন যেন নিজেকে বড্ড বেশি নিঃসঙ্গ মনে হচ্ছে, তবে কি সত্যিই আমি দুর্বল হয়ে গেলাম! আসলে তা নয় এবং নিজের জন্যও নয়, কারণ এই ভয়াবহ করোনাভাইরাস মনের অজান্তে কখন আমি বহন করবো তা হয়তো নিজেও জানতে পারবো না, আর মনের অজান্তেই হয়তো এই বিষাক্ত ভাইরাস কে আমি ছড়িয়ে দিব আমার প্রিয়জনদের মাঝে, ভয়টা এইখানেই!

এরই মাঝে আমার কাছের বোন কণ্ঠশিল্পী রুকসার রহমান হঠাৎই টেলিফোন করে আমার খোঁজ নিয়ে জানতে চাইলো প্রতিদিন কিভাবে কাজ করছি, আমি যখন বললাম মুখে মাক্স পড়ে সামাজিক দূরত্ব বজায় রেখে কাজ করছি , ব্যাস আর কোন কথা নয় পরের দিনই, আমার জন্য তিনি পাঠিয়ে দিলেন একটি পিপিই , আমি আপার উপহারটি পেয়ে অনেকটাই আবেগাপ্লুত হয়ে পড়লাম, জানিনা কি বলে তাকে ধন্যবাদ জানাবো আজও তার দেয়া পিপিই পড়ে ডিউটি করলাম , কিন্তু তাকে ধন্যবাদ জানাতে পারিনি। কারণ এখনো যে আমার মত ছোট্ট একটি মানুষের কথা কেউ ভাবে সেটাই আমার কাছে সবচেয়ে আশ্চর্যের ও একটি বড় পাওয়া, ধন্যবাদ রুকসার রহমান আপা।

 যদিও এটি পরিধান করে আমাদের জন্য কাজ করা দুর্বিষহ, কারণ এ যেন শরীরকে একপ্রকার সেদ্ধ হওয়ার ব্যবস্থা! তবু কাজ করতে হবে বেঁচে থাকার জন্য প্রিয়জনকে বাঁচিয়ে রাখার জন্য।

আর প্রতিটা ছবির পেছনে একটি গল্প থাকে, সেটা হতে পারে সুখের, নয়তো বেদনার, এমনকি সেটা হতে পারে রোমান্টিকতার! যদিও আমরা পেছনের দিকটা সবসময় দেখি না, বুঝি না, শুনি না। স্রষ্টার সৃষ্টি দেখতেই আমরা স্বাচ্ছন্দ্য বোধ করি, তবে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমের কল্যাণে পেছনের গল্পগুলো মাঝে মাঝে সামনে আসছে। ভালো থাকুক প্রিয় দেশ, মাটি ও মানুষ। আমরা অবশ্যই আবার একত্রিত হব শুধু সময়ের অপেক্ষা ..

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close