২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার ০৯:১৫:৪৪ এএম
সর্বশেষ:
পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ঘরে ঢুকাবেন না, কোনো সন্দেহ হলে নিকটস্থ থানাকে অবহিত করুন অথবা ৯৯৯ কল করুন: পুলিশ সদর দপ্তর           

৩০ এপ্রিল ২০২০ ০৭:১৬:৫৭ পিএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

স্বজনপ্রীতি আর রাজনীতির সময় নয়, আসুন ভেদাভেদ ভুলে মানবতার পাশে দাঁড়াই

মির্জা আব্বাস
বাংলার চোখ
 স্বজনপ্রীতি আর রাজনীতির সময় নয়, আসুন ভেদাভেদ ভুলে মানবতার পাশে দাঁড়াই

সেই ছোটবেলায় পড়েছিলাম, যে দেশে গুণীর কদর হয়না, সে দেশে গুনীর জন্ম হয়না। যেদেশে বীর, দেশপ্রেমিকের কদর হয়না, সেদেশে দেশপ্রেমিক বীরের জন্ম হয়না। আমরাও কি এদেশে আর কোন গুনী, দেশপ্রেমীক কিংবা বীরের জন্ম হতে দেবনা।

কথাটা অনেকদিন থেকেই ঘুরপাক খাচ্ছে মনে।
আজ হঠাৎ এক সাংবাদিক ছোট ভাইয়ের লিখাটা পরেই মনে হল, এই প্রসঙ্গে কিছু বলা প্রয়োজন।
আজ সমগ্র বিশ্বে কোভিড-১৯ এর যে মহামারী সেটি থেকে পরিত্রাণের পথ হিসেবে বিশেষজ্ঞদের মত হচ্ছে আক্রান্ত এলাকাগুলোকে একেবারে আইসুলেট করে ফেলা বা সামাজিক মেলামেশা বন্ধ রাখা যেন নতুন করে একজন আক্রান্ত হতে নাপারে। দ্বিতীয়টি হচ্ছে আক্রান্তদের চিকিৎসা দেয়া।
আর চিকিৎসা করতে হলে প্রথমে জানা প্রয়োজন রোগী করোনায় আক্রান্ত হয়েছে কিনা সেটা পরীক্ষা করা।
কিন্তু মাত্র ৪মাস বয়সের নতুন ধরনের এই ভাইরাসটি মানবশরীরে প্রবেশ করেছে কিনা সেটি পরিক্ষা করার পর্যাপ্ত পদ্ধতি আজও বিশ্বে আবিস্কার না হওয়ায় এইই পরিক্ষা পদ্ধতিতেও যেমন নানারকম জটিলতা রয়েছে তেমনি প্রতিটি দেশেই কিটের অপর্যাপ্ততা রয়েছে।
বিশ্বের উন্নত দেশগুলো দিনরাত গবেষণা চালিয়ে যাচ্ছে করোনার ওষুধ, ভ্যাকসিন আবিস্কার সহ করোনা সনাক্তকরন প্রক্রিয়ার সহজ ব্যবহারউপযোগী , সাশ্রয়ী ও নির্ভরযোগ্য পদ্ধতি আবিষ্কারের লক্ষে।
এমন একটি পরিস্থিতিতে গনস্বাস্থ্যের আবিষ্কৃত কীট বিশ্ববাসী সহ বাংলাদেশের মানুষের মধ্যে একটি আশার সন্চার করেছে।
কিন্তু ১৮ কোটি মানুষের প্রত্যাশিত এই কীট ও রাজনীতি আর স্বাস্থ্যখাতের অসাধু সিন্ডিকেটের চাপে এখন মুখ থুবড়ে পড়ার উপক্রম হয়েছে। অনবরত নানা প্রতিকুলতার মধ্যেদিয়ে যেতে হচ্ছে গনস্বাসাস্থের প্রতিষ্ঠাতা ড. জাফরুল্লাহ্ চৌধুরীর এই করোনার কীট প্রজেক্টটিকে। এটাকে নিয়ে এখন শুরু হয়েছে নোংরা রাজনীতি।
যেখানে বিশ্বের উন্নত সব দেশে করোনা পরীক্ষার কীটের অভাব রয়েছে। সেখানে আমাদের মত একটি রাষ্ট্রের এধরনের আবিস্কার হতেপারে দেশের জন্য একটি অনেক বড় অর্জন। কোটি মানুষের প্রান রক্ষা করা এই আবিষ্কার ড.জাফরুল্লাহ্ চৌধুরী তার সহকর্মীবৃন্দ, তার প্রতিষ্ঠান ও দেশকে পৌছে দিতে পারে সম্মাননের সুউচ্চ শিখরে।
কিন্তু আমাদের দেশে কেনযেন সম্মানীর সম্মান দেওয়া হয়না।সেই উচ্চতায় কাউকে পৌঁছতেই দেয়া হয়না যে উচ্চতায় পৌছলে মানুষ হয় সর্বজন শ্রদ্ধেয়, অনূকরনীয়। যেদেশে গুনীর কদর হয়না,সেদেশে গুনীর জন্ম হয়না। যে দেশে বীরের কদর হয়না সেদেশে বীরের জন্ম হয়না।
এদেশের দেশপ্রেমিক, শ্রেষ্ঠত্বের কোটা কি তবে কুক্ষিগত হয়েগেছে? আমরাকি এদেশে আর কোন গুনী মানুষের জন্ম হতে দেবনা!

লেখক: বিশিষ্ট রাজনীতিবীদ ও বিএনপি`র স্থায়ী কমিটির সদস্য 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close