২৬ মে ২০২০, মঙ্গলবার ১১:২৪:০৯ পিএম
সর্বশেষ:
পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ঘরে ঢুকাবেন না, কোনো সন্দেহ হলে নিকটস্থ থানাকে অবহিত করুন অথবা ৯৯৯ কল করুন: পুলিশ সদর দপ্তর           

২২ মে ২০২০ ০৩:৫০:১০ এএম শুক্রবার     Print this E-mail this

চাঁদা না দেয়ায় ধাওয়া খেয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে অটোরিকশা উল্টে এক যাত্রী নিহত, ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ হস্ত

উত্তরা প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 চাঁদা না দেয়ায় ধাওয়া খেয়ে নিয়ন্ত্রন হারিয়ে অটোরিকশা উল্টে এক যাত্রী নিহত, ময়না তদন্ত ছাড়াই লাশ হস্ত

রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানার এক এসআই মাত্র ২০ টাকা চাঁদা না দেয়ায় চলন্ত অটোরিকশা চালককে পিটায়। আর নিয়ন্ত্রন না করতে পেরে অটোরিক্সা উল্টে সেখানেই গুরুত্বর আহত হয় অটোরিক্সার যাত্রী। বৃহস্পতিবার (২১ মে) বিকেল তিনটায় উত্তরা ১০ নম্বর সেক্টরের সুইজগেট মোড়ের মূল সড়কের পাশে পুলিশ বক্সের সামনে ঘটনাটি ঘটে।

পরে আহত যাত্রীর মাথার মগজ বের হয়ে রক্তক্ষরণে তাকে প্রথমে টঙ্গী হাসপাতালে ও পরে ঢাকা নিউরোসাইন্স হাসপাতালে নেয়া হলে সেখানে মারা যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, রাজধানীর উত্তরা পশ্চিম থানার এসআই নাহিদ পারভেজ ও পুলিশ সদস্যরা এক অটোরিকশা চালককে আটকাতে যায়। আর এসআই নাহিদ পারভেজ লাঠি দিয়ে রিকশা চালককে আঘাত করে। চলন্ত অটোরিকশা চালক ভয়ে দ্রুত পালাতে গিয়ে যাত্রী সহ অটোরিকশাটি উল্টে যায়।
সেসময় অটোরিকশাটি যাত্রী ইমাম হোসেন পড়ে গেলে তার শরীরের উপরে উঠে যায় এই অটোরিকশা। এসময় তার মাথার মগজ বের হয়ে রক্তক্ষরণ হয়।
প্রত্যক্ষদর্শীরা সেসময় পুলিশের এই কর্মে প্রতিবাদ জানায়। তখন এসআই নাহিদ পারভেজ সেই সময় ইমাম হোসেনকে নিয়ে টঙ্গী হাসপাতালে ভর্তি করায়। টঙ্গী হাসপাতালে ইমাম হোসেনের অবস্থার অবনতি হলে তাকে অ্যাম্বুলেন্স করে বিকেল পাঁচটায় ঢাকার নিউরোসাইন্স হাসপাতালে নেয়র পর কর্ত ব্যরত চিকিৎসক মৃত ঘোষণা করেন।

এই ঘটনায় মৃতের স্বজনদের উত্তরা পশ্চিম থানায় ওসি তপন চন্দ্র সাহার ধামকি দিয়ে একটি কাগজে সই করিয়ে নেয় বলে অভিযোগ করেছেন তার ভাই।

নিহতের ভাই বলেন, আমরা তো ভাই গরীব মানুষ। দিন আনি দিন খাই। এছাড়া ময়না তদন্ত করতে নাকি চারদিন লাগে। তাই ওসি আমাদেরকে ময়না তদন্ত না করেই মৃতের লাশকে বাড়ী নিয়ে আসতে বলে।

মনির হোসেন আরো বলেন, মাত্র ১০ থেকে ২০ টাকার জন্য তাড়া খেয়ে আমার ভাই মারা গেলো। আমরা কি কোনো বিচার পাবো না? প্রধানমন্ত্রীর কাছে আমাদের আকুল আবেদন, পুলিশ জনগণের টাকায় চলে। আর তারা কিভাবে আমার ভাইকে মেরে ফেলে। আবার থানাতে গিয়ে আমাদেরকে হুমকী ধামকি দেয়।

মৃতের ভাই আরো বলেন, আর থানায় ওসির সামনে এসআই নাহিদ পারভেজ বলে, আমি তো মৃতের ৫০ গজ দুরে ছিলাম। সেখানে অটো রিকশা চালকের ভুল চালানোর জন্য এই অ্যাক্সিডেন্ট হয়েছে। এতে আমার কিছুই বলার নেই।

মৃতের ভাই মনির হোসেন বলেন, আমরা তো আর প্রশাসনের সাথে পারবো না। তাই এভাবেই লাস নিয়ে আসতে হয়েছে।

এপ্রসঙ্গে এসআই নাহিদ পারভেজকে ফোন দেওয়া হলে তিনি ফোন রিসিভ করেননি। আর ওসি তপন চন্দ সাহার ফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এছাড়া উত্তরা জোনের ডিসি নাবিদ কামাল শৈবালও ফোন রিসিভ করেননি।

একাধিক রিকশা চালক জানায়, উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহার নির্দেশে দিনভর অটোরিকশা চালকদের কাছ থেকে টাকার বিনিময়ে চলাচলের সুবিধা করে দেওয়া হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক ব্যবসায়ীরা জানান, এই লকডাউনের সময়ে যেকেউ ফুটপাতের যেকোনো দোকান থেকে পশ্চিম থানার পুলিশ সদস্য চাঁদা উঠান।

রাজধানীর দক্ষিনখান থানার স্থানীয়রা বলেন, রাজধানীর দক্ষিণখান থানায় তিনি যখন ছিলেন, তখন তার পুলিশের ১০ সদস্য নিয়ে একটি কমিটি ছিল। আর তাদের মাধ্যমে তিনি চাঁদা উঠাতেন। তার বিরুদ্ধে একাধিক অভিযোগ পাওয়া যায়। তখন দক্ষিনখানের জনগণ আমরা সবাই মিলে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর রোডে গিয়ে সড়ক অবরোধ করি। পরে তাকে স্থানান্তর করা হয় উত্তরা পশ্চিম থানায়।

উত্তরা পশ্চিম থানার স্থানীয়রা জানান, এখানেও তিনি কিছু পুলিশ সদস্যদের নিয়ে একটি কমিটি গঠন করে চাঁদা উঠান।

আর গত ১৬ ডিসেম্বর রাতে বাসায় ফেরার পথে উত্তরা পশ্চিম থানার পুলিশ আলমগীর হোসেন নামে এক ব্যক্তিকে আটক করে থানায় নিয়ে ব্যাপক নির্যাতন করে। আলমগীর ক্ষুদ্র ব্যবসায়ী হলেও পুলিশ হেফাজতে থাকা অবস্থায় `অর্থ লেনদেন` ও মৃত্যুর ঘটনায় উত্তরা পশ্চিম থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) তপন চন্দ্র সাহা সহ চারজনের বিরুদ্ধে ঢাকার আদালতে মামলা করা হয়।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক পুলিশের একাধিক এসআই বলেন, ওসি তার নিজের হাতে গুনা কয়েকজনকে দিয়েই থানা এরিয়া দাবড়িয়ে বেড়ান। এবং বাকি পুলিশের এসআই ও এএসআইদের সাথে সব সময় দুর্ব্যবহার করে।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close