২৭ মে ২০২০, বুধবার ১১:৪১:৫৭ এএম
সর্বশেষ:
পরিচয় নিশ্চিত না হয়ে কাউকে ঘরে ঢুকাবেন না, কোনো সন্দেহ হলে নিকটস্থ থানাকে অবহিত করুন অথবা ৯৯৯ কল করুন: পুলিশ সদর দপ্তর           

২২ মে ২০২০ ০৪:৩৮:০৩ এএম শুক্রবার     Print this E-mail this

চুনারুঘাটে চুরিকাঘাতে কিশোর জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে

চুনারুঘাট (হবিগঞ্জ) প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 চুনারুঘাটে চুরিকাঘাতে কিশোর জীবন মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে

২০ মে বুধবার রাত ১২ টায়  ইউপি চেয়ারম্যান সনজু চৌধুরীর কাছে ফোন আসে বস্তায় করে গাঁজা নিয়ে যাচ্ছে মাদক ব্যবসায়ীরা। চুনারুঘাট থানার ওসি কে মুঠোফোনে কল দিলে ওসি বলেন আমি দুরে আছি, আপনি গ্রাম পুলিশ ও এলাকাবাসীদের নিয়ে এগিয়ে যান। এরই মধ্যে আমি পুলিশ পাঠাচ্ছি ঘটনাস্থলে। গ্রাম পুলিশ আব্দুল কাদির ও আব্দুল ছালাম কে দ্রুত পাঠালেন আহম্মদাবাদ ইউনিয়নের বগাডুবির পরিত্যক্ত রেল লাইনের আমগাছের নিচে। সাথে তার বর্গাচাষী ফিরোজ মিয়া ও তার কিশোর পুত্র রাব্বি যায় সেখানে।

১৫ মিনিটের মধ্যেই মাদক ব্যবসায়ী ও কুখ্যাত ডাকাত কামাল তিন জনসহ গাজা নিয়ে আসে সেখানে। ২জন গ্রাম পুলিশ, বর্গাচাষী ফিরোজ মিয়া ও তার ছেলে রাব্বিসহ এলাকাবাসীরা ধাওয়া করলে পাল্টা হামলা চালায় মাদক ব্যবসায়ীরা। আহত কিশোর রাব্বির পিতা ফিরোজের উপর হামলা করলে এগিয়ে যায় সে, তখন-ই চুরিকাঘাত করে পালিয়ে যায় কামাল, লিটন,তাহির ও হিরন। তারা সকলেই পুলিশের তালিকাভুক্ত দাগী মাদক ব্যবসায়ী।

এরই মধ্যে ইউপি চেয়ারম্যান সনজু চৌধুরী আহত কিশোর রাব্বিকে চুনারুঘাট উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠান। স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের কর্তব্যরত ডাক্তার রেফার করলে চুনারুঘাট থানার পুলিশ এম্বোলেন্স ভাড়া করে রাব্বিকে সিলেট উসমানী মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করেন।

চুনারুঘাট থানার ওসি (তদন্ত) চম্পক দাম জানান- মাদক ব্যবসায়ীদেরকে ধরতে রাতেই চিরুনি অভিযান পরিচালনা করা হয়েছে। কাউকে পাওয়া যায়নি। অভিযান অব্যাহত থাকবে। ঘটনাস্থল থেকে এক বস্তা গাঁজা ও একটি মোটরসাইকেল জব্ধ করে পুলিশের কাছে দিয়েছে তারা।

২১ মে বৃহস্পতিবার খবর আসে, কর্তব্যরত ডাক্তাররা বলেছেন তার পেঠে অস্ত্রপাচার লাগবে। রক্তের প্রয়োজন। মাদকের বিরুদ্ধে লড়ে যাওয়া কিশোর যোদ্ধা রাব্বি এখন জীবন-মৃত্যুর সন্ধিক্ষণে। কিশোর রাব্বি সুস্থ হয়ে আবার আগের মত চঞ্চলতায় ফিরে আসলে-ই হলো।

সম্প্রতি সময়ে রাতের আঁধারে সীমান্তের বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে দিন-দিন বেড়েই চলছে মাদক কারবারিদের দৌড়ঝাপ। আর মাদক স¤্রাটরা ভারত থেকে সীমান্তের বিভিন্ন পথ দিয়ে নিয়ে আসছে যুবসমাজ ধ্বংসের মরণ নেশা ভারতীয় মাদকদ্রব্যসহ গ্রাঁজা। মাদক কারবারের সাথে জড়িত কারবারিরা রাতের আঁধারে বাংলাদেশে প্রবেশ করছে বিভিন্ন ব্যন্ডের মাদক সামগ্রী। মাদক আমদানীর নিরাপদ রোড হিসাবে পরিচিত চুনারুঘাট উপজেলার সীমান্তবর্তী এলাকা বাল্লা, টেকারঘাট, কেদারাকোট, আমু ও নালুয়া চা বাগান, গনকিরপাড়, ইকরতলী, সাদ্দাম বাজার এবং গুইবিল, চিমটিবিল খাসপাড়া ও বাল্লা পরিত্যক্ত রেল লাইন সহ বিভিন্ন রোডগুলো। আর এসব মাদক কারবারের গডফাদাররা দিন-দিন সীমান্তে বেপরোয়া হয়ে উঠেছে। মাদক ব্যবসা করে তারা রাতারাতি আঙ্গুল ফুলে কলাগাছ বনে গেছে। তাদের ভয়ে সীমান্তে কেউ টু শব্দ করার সাহস পায়না। কারো কোন তোয়াক্কা না করে মাদক ব্যবসায়ীরা বীরদর্পে করছে মাদক কারবার।

 

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close