১২ আগস্ট ২০২০, বুধবার ০৯:৪৫:৪৭ পিএম
সর্বশেষ:

২৪ জুন ২০২০ ১২:৫৫:৪৩ পিএম বুধবার     Print this E-mail this

কর্মক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর দাবি নারী প্রকৌশলীদের

বাংলার চোখ ডেস্ক
বাংলার চোখ
 কর্মক্ষেত্রে সুযোগ-সুবিধা বাড়ানোর দাবি নারী প্রকৌশলীদের

কর্মক্ষেত্রে সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধি করা গেলে প্রকৌশল পেশায় নারীদের আগ্রহ বাড়বে বলে মনে করেন দেশের নারী প্রকৌশলীরা। দেশে প্রথমবারের অনুষ্ঠিত নারী প্রকৌশলীদের ভার্চুয়াল সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন দ্যা ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশনের নেতারা। এজন্য প্রকৌশলীদের সংগঠন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)`র সহযোগিতা চেয়েছেন তারা।

ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)`র প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী আব্দুস সবুরও তাদের সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করে বলেছেন, নারীদের পিছিয়ে রেখে দেশের সামগ্রিক উন্নয়ন সম্ভব নয়। তাই নারী প্রকৌশলীদের পাশে থাকবে আইইবি।

মঙ্গলবার রাত আটটায় অনলাইনে দ্যা ইঞ্জিনিয়ার্স ফাউন্ডেশনের উদ্যোগে এই সম্মেলন শুরু হয়ে রাত ১১টায় শেষ হয়।

দেশে প্রথম নারী প্রকৌশলী সম্মেলনের প্রধান অতিথি হিসেবে উদ্বোধন করেন ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)`র প্রেসিডেন্ট প্রকৌশলী মো. আবদুস সবুর।

আবদুস সবুর আশ্বাস দেন, আইইবি থেকে নারী প্রকৌশলীদের কর্মক্ষেত্রে সুযোগ সুবিধা বৃদ্ধিসহ সমস্যা সমাধানের জন্য সংশ্লিষ্ট দপ্তরসহ সরকারের কাছে তুলে ধরা হবে।

সম্মেলনে সমাপনী বক্তব্য রাখেন আইইবির সাধারণ সম্পাদক প্রকৌশলী খন্দকার মনজুর মোর্শেদ।

১৯১৯ সাল থেকে যুক্তরাজ্যের উইমেনন্স ইঞ্জিনিয়ারিং সোসাইটি ২৩ জুনকে নারী প্রকৌশলী দিবস হিসেবে পালন করত। পরে ২০১৭ সাল এসে ইউনেস্কো দিনটিকে আর্ন্তজাতিক নারী প্রকৌশলী দিবস হিসেবে ঘোষণা করে। এই দিনের উদ্দেশ্য হচ্ছে ইঞ্জিনিয়ারিং সেক্টরে নারীদের অংশগ্রহণ বৃদ্ধি করা।

তবে বাংলাদেশে ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিউশন, বাংলাদেশ (আইইবি)`র প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী ৭মে `ইঞ্জিনিয়ার্স ডে` হিসেবে পালন করা হয়। এবারের নারী প্রকৌশলী দিবসের প্রতিপাদ্য বিষয় হচ্ছে `Shape the world`।

আলোচনায় নারী প্রকৌশলীগণ পেশাগত জীবনে যেসব প্রতিকূল পরিবেশ বিরাজমান সেসব অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন। এছাড়া তারা কর্মক্ষেত্রের বিভিন্ন সমস্যা ও সম্ভাবনার কথা তুলে ধরেন নারী প্রকৌশলীরা। এছাড়াও কর্মক্ষেত্রে তাদের জন্য আরও বেশি সুযোগ সুবিধা বাড়ানোর আহ্বান জানান।

নারী প্রকৌশলীরা মনে করেন, সুযোগ সুবিধা ও সুন্দর কর্মপরিবেশ তৈরি করা গেলে নারীরা এই পেশায় আগ্রহী হবেন।

আইইবির প্রেসিডেন্ট মো. আবদুস সবুর বলেন, চাকরি জীবনে নারী প্রকৌশলীরা কর্তব্যনিষ্ঠ ও সৎ হিসেবে পরিচিত। আমাদের প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ১৯৯৬ সালে দায়িত্ব নেয়ার পর থেকেই বিভিন্ন পদে নারীদের পদায়ন করেছেন। প্রথম মহিলা বিচারপতি, প্রথম মহিলা সচিব, প্রথম মহিলা স্পিকার এবং এসবের ধারাবাহিকতায় প্রথম প্রধান প্রকৌশলীও তার শাসন আমলের অবদান। শেখ হাসিনা মনে করেন, নারীদের উন্নয়নের বাইরে রেখে কখনো প্রকৃত উন্নয়ন সম্ভব নয়।

তিনি আরও বলেন, নারী প্রকৌশলীরা তাদের জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে পরিকল্পনা করবেন কিভাবে আমাদের এ পৃথিবীটা আরও বাসযোগ্য, নিরাপদ, আরও সৃজনশীল ও আনন্দদায়ক করা যায়। আইইবি সব সময় নারী প্রকৌশলীদের সঙ্গে থাকবে- আইইবির প্রেসিডেন্ট হিসেবে এই প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করছি।

অনুষ্ঠানের বক্তব্য রাখেন শিক্ষা প্রকৌশল অধিদপ্তরের প্রধান প্রকৌশলী বুলবুল আখতার, বুয়েটের সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিপার্টমেন্টের অধ্যাপক ড. প্রকৌশলী রওশন মমতাজ, বাংলাদেশ বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ডের অতিরিক্ত প্রধান প্রকৌশলী নীরা মজুমদার, এলজিইডি প্রজেক্ট ডাইরেক্টর প্রকৌশলী সালমা শহীদ, রাজউকের ডাইরেক্টর সরকারের উপসচিব, আইবির সেন্ট্রাল কাইন্সিল মেম্বার প্রকৌশলী তানজিলা খানম। সম্মেলনে অংশগ্রহণকারী নারী প্রকৌশলীদের মধ্য আরও বক্তব্য রাখেন প্রকৌশলী মৌসুমী সালমীন , প্রকৌশলী সোনিয়া নওরীন এবং অধ্যাপক প্রকৌশলী সালমা আখতার ।

অনুষ্ঠানের মডারেটর হিসেবে উপস্থিত ছিলেন দ্যা ইঞ্জিনিয়ারর্স ফাউন্ডেশনের আহ্বায়ক এবং আইইবির সিভিল ইঞ্জিনিয়ারিং ডিভিশনের সেক্রেটারি প্রকৌশলী শেখ তাজুল ইসলাম তুহিন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close