০৭ জুলাই ২০২০, মঙ্গলবার ০৭:১৩:০০ পিএম
সর্বশেষ:
বিশ্বে মৃতের সংখ্যা আজ মঙ্গলবার বেড়ে দাঁড়িয়েছে পাঁচ লাখ ৪১ হাজার ৮৬ জনে।            দেশে মোট এক লাখ ৬৮ হাজার ৬৪৫ জন করোনায় আক্রান্ত রোগী শনাক্ত            দেশে করোনায় আক্রান্ত হয়ে দুই হাজার ১৫১ জনের মৃত্যু            করোনায় ২৪ ঘণ্টায় ৫৫ জনের মৃত্যু, নতুন আক্রান্ত ৩০২৭            বান্দরবানের সদর উপজেলায় দুই সন্ত্রাসী গ্রুপের গোলাগুলিতে ছয়জন নিহত হয়েছেন            হিমঘরে এন্ড্রু কিশোরের মরদেহ,ছেলেমেয়ে দেশে ফিরলে শেষকৃত্য            শেষ ইচ্ছায় রাজশাহীতে মায়ের পাশেই সমাহিত হবেন এন্ড্রু কিশোর           

২৮ জুন ২০২০ ১১:৩৯:৪২ এএম রবিবার     Print this E-mail this

শ্রীলেখার প্রেম, স্বস্তিকার দেহ ব্যবসা

বিনোদন ডেস্ক
বাংলার চোখ
 শ্রীলেখার প্রেম, স্বস্তিকার দেহ ব্যবসা

মাঝে মাঝেই বিতর্কের জন্ম দেন অভিনেত্রী স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়। অভিনেতা সুশান্ত সিংহ রাজপুত আত্মঘাতী হওয়ার পরে স্বস্তিকার ‘মন্তব্য’ নিন্দার ঝড় তোলে। তবে স্বস্তিকার দাবি সুশান্ত সিংহ রাজপুতের এই অপমৃত্যুকে কেন্দ্র করে তিনি এমন কোনো মন্তব্য করেননি। আবার স্বস্তিকার সাথে বিতর্ক হয়েছে শ্রীলেখা মিত্রেরও। স্বস্তিকার কোন কথা নিয়ে এত বিতর্ক?

সাংবাদ মাধ্যমে স্বস্তিকাকে নিয়ে একটি খবর প্রকাশিত হয়। যার শিরোনামে লেখা, ‘সুইসাইড আজকাল একটা ফ্যাশন হয়ে গিয়েছে, কটাক্ষ স্বস্তিকার।’ ভাইরালের যুগে তা ছড়িয়ে পড়তে বেশি সময় লাগেনি। এর পরেই নিন্দার ঝড় ওঠে। যখন চারিদিকে মানসিক অবসাদ নিয়ে এত লেখালেখি, এত আলোচনা তখন এক জন পাবলিক ফিগার হয়ে এমনটা কী করে বলতে পারলেন তিনি? প্রশ্ন নেটাগরিকদের।

শুধু নেটাগরিকরাই বা কেন, আর এক অভিনেত্রী শ্রীলেখা মিত্রও এ রকমই এক লিঙ্ক শেয়ার করে স্বস্তিকাকে খানিক ঠুকেই বলেছেন, ‘বাহ’! শ্রীলেখার সেই শেয়ার করা লিঙ্কে জমা হচ্ছিল কমেন্টের পাহাড়। স্বস্তিকার নিন্দায় ভরে উঠছিল ফেসবুকের দেয়াল। কেউ কেউ আবার মৃত্যুকামনাও করেছেন তার।

কিন্তু আদতে কি কথাগুলো বলেছেন স্বস্তিকা? আত্মহত্যা নিয়ে করেছেন ‘কটাক্ষ’? ভিডিও শেয়ার করে অভিনেত্রী বলছেন, ‘‘অনেকেই বলছেন আমি যাতে মরে যাই। যে পোর্টালটি আমার ছবি দিয়ে, আমার কোট হিসেবে একটি লাইন চালিয়ে দিয়েছেন তারা কি প্রমাণ দেখাতে পারবেন, আমার সঙ্গে তাঁদের নিউজ পোর্টালের সুশান্তের মৃত্যু, আত্মহত্যা নিয়ে কোনো রকম কথা হয়েছে কিনা? দেখাতে পারবে কোনো হোয়াটসঅ্যাপ চ্যাট বা ফোন রেকর্ডিং? আমাকে ঘৃণা করার আগে খবরের সত্যতা বিচার করুন।’’

লকডাউনের গোটা সময়টা মুম্বইতেই ছিলেন তিনি। শুক্রবারই বাড়ি ফিরে সদ্যপ্রয়াত বাবার জন্য মন খারাপ হচ্ছিল তার। এরই মধ্যে এমন ‘ভুয়া’ খবরের উৎপাতে বিধ্বস্ত তিনি। বললেন, ‘‘শুধু সুশান্তই নন, আশেপাশের যত মানুষ এই সময় মানসিক অবসাদের সঙ্গে প্রতিনিয়ত যুদ্ধ করে চলেছেন তাদের কারও সম্পর্কেই এ রকম একটা জঘন্য মন্তব্য আমি করতে পারব না কোনো দিন।

সবচেয়ে মজার কথা, আমি নিজেও জানিনা আমি এরকম একটা মন্তব্য করেছি! জীবনের ওঠাপড়ার মধ্যে দিয়ে আমিও গিয়েছি। মানসিক অবসাদ মারাত্মক। আমি নিজেও অনেক সুইসাইড প্রিভেনশন ক্যাম্পেনের সঙ্গে যুক্ত থেকেছি। অতএব, সোশ্যাল মিডিয়ায় কিছু পড়ার আগে একটু যাচাই করে নিন।’’

সুশান্তের মৃত্যুর পর থেকে মোটামুটি চুপই ছিলেন এই অভিনেত্রী। সুশান্তকে নিয়ে কোনো স্মৃতিকাতর অনুভূতির কথা লেখেননি তিনি। সুশান্তের সঙ্গে দু’টি ছবিতে কাজ করেছেন স্বস্তিকা। বরং সুশান্তের মরদেহের ছবি সোশ্যাল মিডিয়ায় ভাইরাল হয়ে যাওয়া নিয়ে প্রতিবাদ জানিয়েছেন, উপযুক্ত পদক্ষেপ করতে বলেছেন মুম্বই পুলিশকে।

সম্প্রতি একটি সংবাদমাধ্যমকে দেওয়া সাক্ষাৎকারে তিনি বলেছিলেন, ‘‘আত্মহত্যা এক সামাজিক উৎসবে পরিণত হয়েছে।’’সুশান্তের মৃত্যু নিয়ে এত জল্পনা-কল্পনা, সোশ্যাল মিডিয়া জুড়ে ‘গোয়েন্দা’দের ভিড়— সে প্রসঙ্গেই হয়তো কথাগুলো বলেছিলেন সুশান্তের শেষ ছবি ‘দিল বেচারা’-র কো-স্টার স্বস্তিকা মুখোপাধ্যায়।

কিন্তু শ্রীলেখা মিত্র কেন শেয়ার করলেন সেই পোস্ট যেখানে লেখা আছে, ‘সুইসাইড একটা ফ্যাশন হয়ে গিয়েছে, কটাক্ষ স্বস্তিকার। শ্রীলেখা বলেন, “আমাকে স্টোরিটা কেউ শেয়ার করে, তাই আমি পোস্ট করেছি। অনেক কথারই তো ভুল ব্যাখ্যা চলছে এখন। এই যেমন আমার আগের লাইভের ভিত্তিতে আমার নাম না করে স্বস্তিকা ‘স্লাট’ শব্দটা এনে টুইট করল কেন? আমি তো ইন্ডাস্ট্রির প্রেমের কথা বলেছিলাম। ও ‘স্লাট’ বলল কেন? প্রেম আর দেহ বেচা কি এক? আমি নিজে যা দেখেছি সেটাই সোজা বলব। যে যা ভাবে ভাবুক!” তবে কি চলতেই থাকবে স্বস্তিকা-শ্রীলেখার তর্ক?

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close