০৯ জুলাই ২০২০, বৃহস্পতিবার ০৯:১৪:৩৫ পিএম
সর্বশেষ:

২৮ জুন ২০২০ ০৩:৪০:০৭ পিএম রবিবার     Print this E-mail this

গালওয়ানে আরও দুই সেনার মৃত্যু, ভারত বলছে ‘দুর্ঘটনায়’

ডেস্ক রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 গালওয়ানে আরও দুই সেনার মৃত্যু, ভারত বলছে ‘দুর্ঘটনায়’

লাদাখের গালওয়ানে শায়ক নদীতে ব্রীজ নির্মাণের সময় পানিতে পড়ে দুই ভারতীয় সৈন্যের মৃত্যু হয়েছে বলে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যমগুলো। এই মৃত্যু ‘চীনের সাথে মুখোমুখি সংঘাতের কারণে নয়; দুর্ঘটনায়’ বলে জানানো হয়েছে। যদিও সেনাবাহিনীর পক্ষ থেকে এ ব্যাপারে কোনও আনুষ্ঠানিক বিবৃতি পাওয়া যায়নি। তবে সূত্র জানিয়েছে, “এগুলি নিছক দুর্ঘটনা এবং এ অঞ্চলের বর্তমান পরিস্থিতির সাথে সংযুক্ত নয়”। খবর দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেস।

নিহত দুই সেনা হলেন, মালাগাঁওয়ের নায়েক শচীন বিক্রম মোরে (৩৭) এবং পতিয়ালার বাসিন্দা ল্যান্স নায়েক সলিম খান (২৩)। ওই দুই সেনা লাদাখের গালওয়ান উপত্যকা অঞ্চলের শায়ক নদীতে ব্রিজ নির্মাণের সময় দুর্ঘটনায় ডুবে মারা গিয়েছিলেন। শনিবার তাদের শেষকৃত্যানুষ্ঠান হয়েছে।

নিহত দুই সৈন্যের পরিবার জানিয়েছে, তাদের বলা হয়েছিল, ওই দুইজন ওই অঞ্চলে একটি “ব্রিজ নির্মাণ” দলের অংশ ছিল। খানের পরিবার জানিয়েছে যে ওই দুইজন শুক্রবার মারা গেছে বলে তাদের জানানো হয়েছিল। অথচ প্রতিরক্ষা সূত্র জানায় যে মোরের মৃত্যু “বৃহস্পতিবার প্রকাশিত হয়েছে”।

সলিম খানের চাচা বুদ্দিন খান বলেছিলেন, “আমাদের জানানো হয়েছে যে একটি সেতু নির্মিত হচ্ছে, এবং সলিম সেই দলেরই অংশ ছিল। তিনি একটি নৌকায় ছিলো, যা উল্টে মারা যায়।”

মোরের পরিবার বলেছিল, তাদের বলা হয়েছিল, তিনি আরও দু’জন সৈন্যকে উদ্ধার করতে নদীতে ডুব দিয়েছিলেন। তিনি তাদের উদ্ধার করতে পেরেছিলেন। কিন্তু তখন একটি ডুবন্ত পাথরে আঘাত পেয়ে গুরুতর আহত হন।

মোরের বাবা, বিক্রম মোরে জানিয়েছেন, তিনি ১০ দিন আগে তার সাথে শেষবারের মতো কথা বলেছেন। “শচীন আমাকে বলেছিল যে গ্যালওয়ান উপত্যকার পরিস্থিতি গুরুতর। সে আমাকে আশ্বাস দিয়েছিল যে সে ভাল আছে এবং আমার চিন্তা করা উচিত নয়।” মোরে বাবা, মা, স্ত্রী ও তিনি শিশু সন্তান রেখে গেছেন।

সলিম খানের মা নাসিমা বেগম বলেছিলেন যে দু’দিন আগে তিনি শেষবার ছেলের সাথে কথা বলেছেন। “ছেলে তাকে বলেছিল যে শীঘ্রই বাড়ি আসবে। সে কখনোই সেখানকার পরিস্থিতির বিবরণ দেয় নি ... সে বলেছিলো যে ফোন সংযোগে কোনও সমস্যা হতে পারে এবং সে ফোন না করলে আমার চিন্তা করা উচিত নয়। আমি সব হারিয়েছি। সেই আমাদের একমাত্র সম্বল।” ২০১৪ সালে সেনাবাহিনীতে যোগ দেওয়া খান তার মা ও দুই ভাইবোন রেখে গেছেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close