২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, সোমবার ০৬:৩৩:০৯ পিএম
সর্বশেষ:

৩০ জুলাই ২০২০ ০৪:৪১:১৪ এএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

খাল খনন প্রকল্পে বিদেশ সফর বাতিল করলো পরিকল্পনা কমিশন

ডেস্ক রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 খাল খনন প্রকল্পে বিদেশ সফর বাতিল করলো পরিকল্পনা কমিশন

পরিকল্পনা কমিশনের আপত্তির কারণে বাতিল করা হয়েছে জলাবদ্ধতা নিরসনে খাল খনন প্রকল্পে বিদেশ সফরের প্রস্তাব। ফলে এ খাতে বরাদ্দ দেড় কোটি টাকা সাশ্রয় হচ্ছে। এছাড়া আরও বেশ কিছু খাতে অপ্রয়োজনীয় ব্যয় বাদ দেয়ার সুপারিশ করে সংস্থাটি।

ফলে এ প্রকল্পে সরকারের মোট সাশ্রয় হচ্ছে সাড়ে ৬ কোটি টাকা। ‘কপোতাক্ষ নদের জলাবদ্ধতা দূরীকরণ (দ্বিতীয় পর্যায়)’ শীর্ষক প্রকল্পে স্টাডি ট্যুরের নামে এ বিদেশ সফরের প্রস্তাব দেয়া হয়েছিল। পরবর্তীতে প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভায় এ নিয়ে ঘোর আপত্তি তোলা হয় কমিশনের পক্ষ থেকে।

এরপর বিদেশ সফর ও অন্যান্য খাতের ব্যয় বাদ দিয়ে ডিপিপি (উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব) সংশোধন করে পানি সম্পদ মন্ত্রণালয়। জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) আগামী বৈঠকে নতুন এ প্রকল্পটি উপস্থাপন করা হতে পারে। অনুমোদন পেলে চলতি বছর থেকে ২০২৪ সালের জুনের মধ্যে এটি বাস্তবায়ন করবে বাংলাদেশ পানি উন্নয়ন বোর্ড।

এ প্রসঙ্গে জানতে চাইলে পরিকল্পনা কমিশনের কৃষি, পানিসম্পদ ও পল্লী প্রতিষ্ঠান বিভাগের সদস্য (সচিব) মো. জাকির হোসেন আকন্দ বুধবার বলেন, একেবারেই কারিগরি কারণে প্রশিক্ষণ ছাড়া কোনো প্রকল্পে অহেতুক বিদেশ ভ্রমণের প্রস্তাব বাতিল করা হচ্ছে। এ বিষয়টিকে এখন কঠোরভাবে দেখা হচ্ছে। কেননা কোভিড-১৯ দেশের অর্থনীতিতে নেতিবাচক প্রভাব ফেলেছে। এমন নয় যে, এই প্রভাব দ্রুতই কেটে যাবে। আগামী ২-৩ বছরও সময় লেগে যেতে পারে এই পরিস্থিতি পুরোপুরি মুক্ত হতে। তাই বিদেশ প্রশিক্ষণের প্রস্তাব বাদ দেয়া হয়েছে।

পরিকল্পনা কমিশন সূত্র জানায়, কপোতাক্ষ নদের জলাবদ্ধতা দূরীকরণে দ্বিতীয় পর্যায়ের এ প্রকল্পটি হাতে নেয়া হয়েছে। এর আওতায় কপোতাক্ষ নদের ৭৯ কিলোমিটার, ভৌরব নদী ৬২ কিলোমিটার, শালিখা নদী ৩০ কিলোমিটার এবং এর সঙ্গে যুক্ত ১০৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যরে ৩২টি খাল খাল খনন করা হবে।

ফলে প্রকল্প এলাকার নিষ্কাশন ব্যবস্থা উন্নয়ন, সেচ সুবিধা প্রদান, মৎস্য চাষ ও নৌ-চলাচল ব্যবস্থার উন্নয়ন ঘটবে বলে আশা করছেন সংশ্লিষ্টরা। প্রকল্পটির প্রস্তাব পাওয়ার পর অনুষ্ঠিত হয় প্রকল্প মূল্যায়ন কমিটির (পিইসি) সভা।

ওই সভায় দেয়া সুপারিশ পর্যালোচনা করে দেখা গেছে, বৈদেশিক প্রশিক্ষণ বা স্টাডি ট্যুর বাবদ দেড় কোটি টাকা, নির্মাণ চলাকালীন পরিচালন ও রক্ষণাবেক্ষণে দেড় কোটি টাকা, আবাসন ভবন মেরামত ও পুনর্বাসন এবং একটি ব্যারাক নির্মাণ বাবদ এক কোটি ৬০ লাখ টাকা এবং অফিস ভবন ও পরিদর্শন বাংলো পুর্নবাসনে এক কোটি টাকা বাদ দিতে বলা হয়েছে।

এছাড়া নদী ও টিআরএম বেসিনের পলি ও লবণাক্ততা এবং জোয়ার ভাটা পর্যবেক্ষণ বাবদ এক কোটি টাকা এবং একটি ডাবল কেবিন পিকআপ বাবদ ৫৫ লাখ টাকার প্রস্তাব বাদ দিতে বলা হয়। পরিকল্পনা কমিশনের এই সুপারিশ মেনে নিয়ে এসব খাতের ব্যয় বাবদ সাড়ে ৬ কোটি টাকা কমিয়ে আনা হয়েছে। তবে ডাবল কেবিল পিকআপ ক্রয় বাদ দেয়া হয়নি।

পানিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব (উন্নয়ন অনুবিভাগ) মাহমুদুল ইসলাম বলেন, প্রকল্প তৈরির ক্ষেত্রে আমরা এখন অনেক সচেতন হয়েছি। কারিগরি কারণে একান্ত প্রয়োজন হলেই শুধু বিদেশ সফরের প্রস্তাব দেয়া হচ্ছে।

তবে কিছু ক্ষেত্রে মাত্র একটি ব্যাচ রাখা হয় সেটিও প্রকল্পের ব্যয়ের দিকটা বিবেচনা করে। যাতে বিদেশ গিয়ে অল্পসংখ্যক কর্মকর্তা জ্ঞান অর্জন করতে পারেন। এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা রয়েছে উন্নয়ন প্রকল্পে ব্যয় সাশ্রয় করতে হবে। আমরা সেটি মেনে চলার চেষ্টা করছি। তাছাড়া পরিকল্পনা কমিশন কোনো সুপারিশ দিলে তা প্রতিপালন করা হচ্ছে। সুতরাং অপ্রয়োজনীয় ব্যয়ের কোনো সুযোগ নেই।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close