২২ অক্টোবর ২০২০, বৃহস্পতিবার ০৩:২৭:১০ পিএম
সর্বশেষ:

২৫ সেপ্টেম্বর ২০২০ ০১:০১:০৪ পিএম শুক্রবার     Print this E-mail this

সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে বন্ধ হলো অবৈধ বালু উত্তোলন

দিনাজপুর প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রীর নির্দেশে বন্ধ হলো অবৈধ বালু উত্তোলন

অবশেষে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপির কঠোর নির্দেশে বন্ধ হয়েছে দিনাজপুরের খানসামায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনের মহাযজ্ঞ। চলতি বছরের শুরু থেকেই করোনা পরিস্থিতির মধ্যেও বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা উপেক্ষা করে প্রকাশ্যে খানসামায় চলছিল ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। এতে আত্রাই নদীর ভূ-প্রাকৃতিক ও পরিবেশ মারাত্মক হুমকির মুখে হয়ে পড়ে। এ নিয়ে চ্যানেল আই, দৈনিক মানবজমিন ও ঢাকা টাইমসসহ কয়েকটি অনলাইনে প্রতিবেদন প্রকাশিত হওয়ার পর বিষয়টি সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপির দৃষ্টি গোচর হয়। তিনি এ বিষয় নিয়ে স্থানীয় খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুল ইসলাম, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ কামাল হোসেন এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আযম চৌধুরী লায়নের সাথে কথা বলেন। তারা উভয়ে বাস্তবচিত্র তুলে ধরেন। বিশেষ করে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ কামাল হোসেন এবং উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সাইফুল আযম চৌধুরী লায়ন খানসামাকে বাঁচাতে খানসামায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনের মহাযজ্ঞ বন্ধের জন্য জোর ভূমিকা রাখেন। ফলে খানসামায় ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধ বালু উত্তোলনের মহাযজ্ঞ বন্ধে সাবেক পররাষ্ট্রমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী এমপি বৃহস্পতিবার বিকালে কঠোর নির্দেশ দেন।

বালু উত্তোলনের বেশ কয়েকটি ড্রেজার মেশিন, ক্রেং মেশিন অসংখ্য পাইপ, ড্রাম এবং অবৈধভাবে স্থাপিত টোল আদায়ের ঘর সরিয়ে ফেলার নির্দেশ দেন। খানসামা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মাহবুবুল ইসলাম এবং থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ কামাল হোসেন তাৎক্ষণিকভাবে বিষয়টি অবৈধ বালু উত্তোলনের সাথে জড়িত ব্যক্তিদের অবগত করে মালামাল সরিয়ে ফেলতে বলেন।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ১০টার মধ্যে তিনটি ড্রেজার মেশিন, বেশকিছু পাইপ, ড্রাম সরিয়ে ফেলা হলেও এখনো কয়েকটি ড্রেজার মেশিন এবং ক্রং মেশিন এবং অবৈধভাবে স্থাপিত টোল আদায়ের ঘর রয়েছে। তা শুক্রবার বেলা ১২টার মধ্যে সরিয়ে ফেলা হবে বলে জানিয়েছেন, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শেখ কামাল হোসেন।

প্রসঙ্গত, দিনাজপুরের খানসামাতে কিছুতেই বন্ধ হচ্ছিল না অবৈধ পদ্ধতিতে বালু উত্তোলন। বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন ২০১০ এবং মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের নির্দেশনা উপেক্ষা করে প্রকাশ্যে খানসামায় চলছিল ড্রেজার মেশিন দিয়ে অবৈধভাবে বালু উত্তোলন। বীরগঞ্জের কাশিপুর বালুমহাল (খানসামায় হতো বালু উত্তোলন কার্যক্রম) এবং খানসামার গোবিন্দপুর (সরকারের ইজারা ছাড়াই) বালু মহালে অবৈধভাবে ড্রেজার মেশিন দিয়ে পুরোদমে চলছিল বালু উত্তোলনের মহাযজ্ঞ। বালুমহাল ও মাটি ব্যবস্থাপনা আইন, ২০১০-এর ধারা ৫-এর ১ উপধারা অনুযায়ী, পাম্প বা ড্রেজিং বা অন্য কোনো মাধ্যমে ভূগর্ভস্থ বালু বা মাটি উত্তোলন করা যাবে না। ধারা ৪-এর (খ) অনুযায়ী, সেতু, কালভার্ট, বাঁধ, সড়ক, মহাসড়ক, রেললাইন ও অন্যান্য গুরুত্বপূর্ণ সরকারি ও বেসরকারি স্থাপনা অথবা আবাসিক এলাকা থেকে এক কিলোমিটারের মধ্যে বালু উত্তোলন নিষিদ্ধ। আইন অমান্যকারী দুই বছরের কারাদণ্ড ও সর্বোচ্চ ১০ লাখ টাকা জরিমানা বা উভয় দণ্ডে দণ্ডিত হবেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2020. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close