২৬ জানুয়ারি ২০২২, বুধবার ০৪:৩৬:২৬ এএম
সর্বশেষ:

১৩ মার্চ ২০১৬ ০৬:২৮:০৮ পিএম রবিবার     Print this E-mail this

ভারতের ইডেন-কলঙ্কের ২০ বছর

বাংলার চোখ
 ভারতের ইডেন-কলঙ্কের ২০ বছর

‘ওই বলে এগিয়ে মারতে না গেলে কী হতো?’ শচীন টেন্ডুলকারের মনে এই প্রশ্নটি নিশ্চয় সুচবিদ্ধ যন্ত্রণা দিয়েছিল অনেক দিন। সনাৎ জয়াসুরিয়ার বলে তেড়ে এসে মারতে গিয়েছিলেন। বল ফাঁকি দিয়ে চলে গেল উইকেটকিপার কালুভিতারানার গ্লাভসে। স্টাম্পিং! টেন্ডুলকার ফিরতেই যেন ভারতের বিশ্বকাপ ফাইনালে খেলার স্বপ্নটাও শেষ হয়ে গেল। আর কিছুক্ষণের মধ্যেই ক্রিকেট ইতিহাসের সবচেয়ে কদর্য ঘটনাগুলোর একটির জন্ম হলো।

১৯৯৬ বিশ্বকাপের প্রথম সেমিফাইনালের ঘটনা। কলকাতার ইডেনে সেই ম্যাচে শ্রীলঙ্কা প্রথমে ব্যাট করে তুলেছিল ২৫১ রান। তাড়া করতে নেমে ১ উইকেটে ৯৮ রান তুলে ফেলল ভারত। ১৩ বছর পর আবারও বিশ্বকাপ ফাইনালে খেলার স্বপ্নটা ক্রমেই উজ্জ্বল। কিন্তু টেন্ডুলকারের আউট মুহূর্তেই বদলে দিল ম্যাচের রং।
এতক্ষণ উৎসবে মেতে ওঠা ইডেনের লাখখানেক দর্শক তখনো বুঝতে পারেনি, কী হতে চলেছে। শূন্য রানে ফিরে গেলেন অধিনায়ক মোহাম্মদ আজহারউদ্দিন। ভারতের ব্যাটিংয়ে যেন মড়ক লাগল এরপর। মাত্র ২২ রানের মধ্যে ৭ উইকেট হারিয়ে বসল স্বাগতিক দল। একে একে আউট হয়ে গেলেন মাঞ্জরেকার, জাভাগাল শ্রীনাথ, অজয় জাদেজা, নয়ন মঙ্গিয়া, আশিস কাপুর।
স্তব্ধ শোকাতুর দর্শক ততক্ষণে রূপ নিয়েছে উন্মত্ত দাঙ্গাবাজে। ১২০ রানে ৮ম উইকেট পড়ার পর আর বাধ মানল না জনরোষ। স্টেডিয়ামের বিভিন্ন প্রান্তে আগুন জ্বালানো শুরু হলো। মাঠের দিকে লক্ষ্য করে বোতল, ফলমূল ছোড়া তো আছেই। ম্যাচ রেফারি ক্লাইভ লয়েড দুই দলের খেলোয়াড়দের মাঠ থেকে তুলে নেন ১৫ মিনিটের জন্য। পরিস্থিতি আপাত শান্ত মনে হওয়ায় আবারও মাঠে নামে দুই দল। কিন্তু আবারও শুরু হয় মাঠে বোতল বৃষ্টি। উপায় না দেখে খেলা থামিয়ে দিতে হয়। শ্রীলঙ্কাকে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়।
দর্শকের এমন আচরণ ভারতের লজ্জার কারণ হয়েছিল অনেক দিন। সাধারণ জনতাই শুধু এমন আপত্তিজনক আচরণ করেছে ভাবলে ভুল হবে। ওই ম্যাচের জিম্বাবুয়ের আম্পায়ার ইয়ান রবিনসন বলেছিলেন সেই ভয়ংকর অভিজ্ঞতার কথা, ‘একটি কাচের বোতল তো ভিআইপি বক্স থেকেও উড়ে এসেছিল। এটা নিশ্চয় এমন কেউ ছুড়েছিল, যে ৫০০ ডলার খরচ করে টিকিট জোগাড় করেছে এবং ভারতের খেলায় হতাশ।’
অবশ্য এক-দুটি ব্যতিক্রমও ছিল সেদিন। ম্যাচের শেষে শ্রীলঙ্কাকে বিজয়ী ঘোষণার পর একটি ব্যানার দেখা গিয়েছিল, ‘শ্রীলঙ্কাকে অভিনন্দন, আমরা দুঃখিত।’ কিন্তু লাখো জনতার রোষ ও কদর্যের মাঝে এমন সুচিন্তিত চিন্তা যে সেদিন হারিয়ে গিয়েছিল।
ভারতের সেই লজ্জার ২০ বছর পূর্তি আজ। আজ সেই ইডেনেই খেলবে ওই বিশ্বকাপের অন্য দুই সেমিফাইনালিস্ট অস্ট্রেলিয়া-ওয়েস্ট ইন্ডিজ। বিশ্বকাপের ভারত-পাকিস্তান ম্যাচটিও হবে এখানে। ইডেন অবশ্য সেই কলঙ্কের দাগ মুছে আবার নিজেদের ক্রিকেট প্রেম দিয়ে হাজির হয়েছে। তবে এই ক্ষত পুরোপুরি সারবে না কখনোই!

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2022. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close