২৯ জানুয়ারি ২০২২, শনিবার ১০:০৭:৪৫ এএম
সর্বশেষ:

১৪ মার্চ ২০১৬ ১১:০৮:৪৪ এএম সোমবার     Print this E-mail this

পাকিস্তানে ৩০০০ সেনা পাঠাচ্ছে চীন, উদ্বেগে ভারত

ডেস্ক রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 পাকিস্তানে ৩০০০ সেনা পাঠাচ্ছে চীন, উদ্বেগে ভারত

চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরের নিরাপত্তার জন্য এই বাহিনী পাঠাচ্ছে বেইজিং। ইসলামাবাদও তৈরি করে ফেলেছে বিশেষ বাহিনী। তাতে প্রায় ১১ হাজার সৈন্য থাকছে


পাকিস্তানে তিন হাজার সেনা মোতায়েন করতে যাচ্ছে চীন। চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরের নিরাপত্তার জন্য এই বাহিনী পাঠাচ্ছে বেইজিং। ৩ হাজার কিলোমিটার দীর্ঘ ওই করিডোরের নিরাপত্তার জন্য ইসলামাবাদও তৈরি করে ফেলেছে বিশেষ বাহিনী। তাতে প্রায় ১১ হাজার সৈন্য থাকছে। পাকিস্তানে ও পাক নিয়ন্ত্রিত কাশ্মীরে চীন সেনা মোতায়েনের সিদ্ধান্ত নেয়ায় প্রতিবাদ জানিয়েছে ভারত। খবর এনডিটিভির।

চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরটি পাকিস্তানের অশান্ত প্রদেশ বলে বিবেচিত বেলুচিস্তান থেকে শুরু হয়ে মাকারান উপকূল দিয়ে উত্তর দিকে মোড় নিয়ে লাহোর আর ইসলামাবাদকে যুক্ত করেছে। এরপর তা পাকিস্তান নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের গিলগিত-বালতিস্তান হয়ে কারাকোরাম হাইওয়ে দিয়ে চীনের জিনজিয়াং অঞ্চলের কাশগারে গিয়ে শেষ হয়েছে।

পূর্ব চীনের বিশাল এলাকাজুড়ে রয়েছে জিনজিয়াং। জনসংখ্যার একটা বড় অংশ জুড়ে রয়েছে সংখ্যালঘু মুসলিম সম্প্রদায়ের মানুষ। বেইজিংয়ের বিরুদ্ধে বঞ্চনার অভিযোগ তুলে এই সম্প্রদায়ের অনেকেই অস্ত্র হাতে তুলে নিয়েছেন। তাই জিনজিয়াং প্রদেশেও করিডোর খুব সুরক্ষিত নয়।

এই পরিস্থিতির কথা ভেবেই চীন ৩ হাজার সেনা পাঠাচ্ছে পাকিস্তানে। গিলগিট-বালতিস্তান এবং বালুচিস্তানের বিভিন্ন এলাকায় এই সেনা মোতায়েন থাকবে। এই অর্থনৈতিক করিডোর চীনের পক্ষে খুব গুরুত্বপূর্ণ। পাকিস্তানের গোয়াদর বন্দর দিয়ে চীন সরাসরি আরব সাগর তথা ভারত মহাসাগরীয় অঞ্চলে পৌঁছে যেতে পারবে। পশ্চিম এশিয়া থেকে জ্বালানি তেল এবং পেট্রোলিয়াম আমদানি করতে চীনকে দীর্ঘ সামুদ্রিক পথ পাড়ি দিতে হতো। ইরানের খুব কাছে পাকিস্তানের গোয়াদরে বন্দর তৈরি করে সেই দূরত্ব অন্তত ১২ হাজার কিলোমিটার কমিয়ে ফেলছে বেইজিং।

এনডিটিভির খবরে বলা হয়, যদিও মহাসড়কের সুরক্ষার জন্য পাকিস্তানে চীনা সেনা মোতায়েন করা হচ্ছে, তারপরও তা ভারতের জন্য উদ্বেগের কারণ হয়ে উঠেছে। গিলগিত-বালতিস্তান এলাকায় চীনা সেনার উপস্থিতি নিয়ে আগেও উদ্বেগ জানিয়েছিল ভারত।

ভারতের শীর্ষস্থানীয় এক সরকারি কর্মকর্তা পাকিস্তানে চীনা সেনা মোতায়েনের ব্যাপারে উদ্বেগ জানিয়ে বলেন, ‘আমরা ব্যাপারটিকে সূক্ষ্মভাবে পর্যবেক্ষণ করছি। পাকিস্তানে মোতায়েন হতে যাওয়া চীনা সেনার সংখ্যার ব্যাপারে আমাদের স্বচ্ছ ধারণা আছে।’

২০১৬ সালের ডিসেম্বর নাগাদ চীন-পাকিস্তান অর্থনৈতিক করিডোরটিতে প্রথম পর্যায়ের কার্যক্রম শুরুর কথা রয়েছে। আর তিন বছরের মধ্যে এটি পুরোপুরি প্রস্তুত হয়ে যাবে বলেও আশা করা হচ্ছে।

গত বছরের এপ্রিলে চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিংয়ের পাকিস্তান সফরে দু’দেশের মধ্যে অর্থনৈতিক করিডোর নির্মাণের ব্যাপারে সমঝোতা হয়। প্রকল্পের জন্য ৪ হাজার ৬০০ কোটি ডলার বিনিয়োগের ঘোষণা দেন চীনা প্রেসিডেন্ট। চীনের পাঠানো ৩ হাজার সেনার সঙ্গে করিডোরে মোতায়েন থাকবে পাকিস্তানের নিজস্ব বাহিনীও। শুধু করিডোরের নিরাপত্তার জন্যই পাকিস্তান ৩টি বিশেষ ইনফ্যানট্রি ব্রিগেড বানিয়েছে। প্রতিটিতে ৩টি করে রেজিমেন্ট। অর্থাৎ মোট ৯ হাজার সেনা। এ ছাড়া গঠন করা হয়েছে দুটি বিশেষ আর্টিলারি রেজিমেন্ট। অর্থাৎ আরও ২ হাজার সেনা। সব মিলিয়ে ১১ হাজারের বাহিনী।

ভারতের মূল প্রতিবাদ, পাকিস্তানে চীনা সেনা মোতায়েন হওয়ায় দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় মনে করে, করিডোরের নিরাপত্তার নামে আসলে ভারতের পশ্চিম সীমান্তেও নিজেদের সেনা মোতায়েন করতে চায় চীন। গিলগিট-বালতিস্তানে চিন সেনা পাঠানোর সিদ্ধান্ত নেয়ায় ভারত আরও রুষ্ট। ওই অঞ্চল কাশ্মীরের অংশ। সেই এলাকা নিয়ে বিতর্ক মেটার আগেই পাকিস্তানের সঙ্গে হাত মিলিয়ে সেখানে সেনা পাঠিয়ে দেয়াকে ভারত চীনের অনধিকার প্রবেশ হিসেবেই দেখছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2022. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close