০৭ ডিসেম্বর ২০২১, মঙ্গলবার ১১:৫০:১৭ এএম
সর্বশেষ:

১৪ অক্টোবর ২০২১ ১০:৪৩:০৯ পিএম বৃহস্পতিবার     Print this E-mail this

যশোর-চুকনগর সড়ক ডাবল লেন হচ্ছে

মালিকুজ্জামান কাকা, যশোর
বাংলার চোখ
 যশোর-চুকনগর সড়ক ডাবল লেন হচ্ছে

 যশোর থেকে কেশবপুর ভায়া চুকনগর সড়কটি ডাবল লেন হচ্ছে। শত কোটি টাকা ব্যয়ে চলছে কর্মযজ্ঞ পুরোদমে। যশোর-চুকনগর মহাসড়ক উন্নয়নে ব্যাপক কর্মযজ্ঞ পরিচালিত হচ্ছে। সড়কটি নতুন করে ভিতের মাধ্যমে ডাবল লেনে ৩৪ ফুট প্রসস্ত হচ্ছে। গত এক বছরের অধিক সময় যাবৎ সড়কের আটত্রিশ কিলোমিটার জুড়ে এ উন্নয়ন কর্মকান্ড চলছে। এ কাজ শেষ হলে যশোর থেকে সাতক্ষীরা রুটে চলা চলকারি যাত্রীদের দীর্ঘদিনের দুর্ভোগ লাঘবের আশা করা হচ্ছে।
যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগ সূত্রে জানা যায়, যশোরের মণিরামপুর ও কেশবপুর হয়ে খুলনার চুকনগর পর্যন্ত সড়কটির দৈর্ঘ্য ৩৮ দশমিক ২৬৫ কিলোমিটার। সাতক্ষীরার ভোমরা সীমান্তের আমদানিকৃত মালামাল নিয়ে ট্রাক এ সড়ক দিয়ে যশোর হয়ে রাজধানী ঢাকাসহ বিভিন্ন জেলায় চলাচল করে। এছাড়া সড়কটিতে ঢাকাগামী পরিবহন, ট্রাক, মাইক্রোবাস, প্রাইভেট কারসহ বিপুল সংখ্যক যানবাহন যাতায়াত করে থাকে। যানবাহনের চাপে সড়কটি বছরের বেশিরভাগ সময় ভাঙাচোরা অবস্থায় থাকে। যার ফলে কর্তৃপক্ষকে প্রতি বছরই সড়কটি সংস্কার করে যান চলাচলের উপযোগী করতে হয়। কয়েক দফা সংস্কার করার পরও ২০২০ সাল নাগাদ সড়কটির অধিকাংশ স্থান ভেঙে খানা-খন্দে পরিণত হয়। বাস্তব অবস্থা বিবেচনায় এনে যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগ কর্তৃপক্ষ সড়কটি উন্নয়নের মহা পরিকল্পনা গ্রহণ করে। এরই প্রেক্ষিতে সড়কটি নতুন করে ভিত নির্মাণের মাধ্যমে ডাবল লেনে ১০.৩০ মিটার বা ৩৪ ফুটে উন্নীত করার প্রকল্প একনেকে পাস হয়। প্রাথমিকভাবে সড়কের রাজারহাট থেকে খুলনার চুকনগর পর্যন্ত প্রকল্প ব্যয় ধরা হয় ৯০ কোটি ৯২ লাখ ৭১ হাজার ৯৪৪ টাকা। পরবর্তীতে টেন্ডারের মাধ্যমে এ কাজটি পায় যশোরের ন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট ইঞ্জিনিয়ার্স লিেিমিটড। যার নির্বাহী পরিচালক শহরের ঘোপ জেল রোডের মঈনউদ্দিন (বাঁশি) লিমিটেড (জেভি)। আটত্রিশ কিলোমিটার এ সড়কের পুন: নির্মাণের সময় কাল বেধে দেয়া হয় এক বছর ছয় মাস। যা ২০২০ সালের ২০ জুলাই থেকে শুরু হয়ে শেষ হবে চলতি বছরের ৩১ ডিসেম্বরের মধ্যে।
সূত্র জানায়, যশোর-চুকনগর সড়ক উন্নয়ন কাজের মধ্যে রয়েছে ১১.০৬০ কিলোমিটার সড়ক প্রশস্তকরণ ও মজবুতিকরণ, রিজিড পেভমেন্ট ১৩০০ ফুট, সড়কে তিনটি বক্স কালভার্ট নির্মাণ, আরসিসি পিটসহ ইইউ ড্রেন নির্মাণ ২৬০০ ফুট, রক্ষা প্রদ কাজ (আরসিসি প্যালাসাইডিং) ২৫৬৭ ফুট, ইন্টারসেকশন একটি ও একটি দ্বিতল অফিস ভবন নির্মাণ। যার পরিধি হবে ১৫০০ স্কয়ার ফুট। যশোর সড়ক বিভাগের আওতাধীন এ কাজ গত এক বছরের অধিক সময় চলমান থাকলেও নির্ধারিত সময়ে শেষ হবে কিনা তা নিয়ে যথেষ্ট সন্দেহ রয়েছে ঠিকাদারসহ স্থানীয়দের। ঠিকাদার এ কাজে আধুনিক যন্ত্রাংশ সমৃদ্ধ গাড়ি, স্কেভেটর ও রোলার ব্যবহার করছে। তারপরও এ কাজ ধীর গতিতে চলছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। সড়কের উন্নয়নের জন্য পার্শ্ববর্তী ব্যবসায়ীসহ বসবাসকারীরা গত দেড় বছর যাবৎ চরম দুর্ভোগ পোহাচ্ছে। সড়কের বালি ও ধূলিঝড় তাদের নিত্য ঘটনায় পরিণত হয়েছে। এছাড়া এ সড়ক পথে মানুষ ও যানবাহন চলাচলেও ব্যাপক সমস্যার সৃষ্টি হচ্ছে। এছাড়া, নির্মাণ কাজেও নানা অসঙ্গতি রয়েছে বলে এলাকাবাসীর অভিযোগ। তারা বলেছেন, সড়ক থেকে উঠানো পুরনো খোয়া নতুন নির্মাণ কাজে ব্যবহার করছে ঠিকাদার।
এদিকে সড়কের ৩৮ কিলোমিটার প্রশস্ত করণে সদরের কুয়াদা, মণিরামপুর ও কেশবপুরসহ তিনটি উপজেলার অর্ধশত বাজারে দোকানপাট ভাঙচুর করা হয়েছে। সড়কটি আগের থেকে ১৬ ফুট প্রশস্ত করার জন্য ইতিমধ্যে দুই পাশের অবৈধ দখলদার উচ্ছেদ করা হয়েছে। এসব ঘটনায় ব্যবসায়িদের মাঝে ক্ষোভ রয়েছে ব্যাপক হারে।
এ ব্যাপারে যশোর সড়ক ও জনপথ বিভাগের নির্বাহী প্রকৌশলী মোয়াজ্জেম হোসেন বলেন, যশোর থেকে চুকনগর সড়কটি ১৮ ফুটের স্থলে ৩৪ ফুটে উন্নিত করা হচ্ছে। এটি মূলত সিঙ্গেল থেকে ডাবল লেনে উন্নীত হচ্ছে। তারা সড়কের কাজে যথাযথ তদারকি করছেন এবং টেন্ডারের নিয়মানুযায়ী ঠিকাদার কাজ চালিয়ে যাচ্ছেন। এ ক্ষেত্রে অনিয়মের কোন সুযোগ নেই। এ কাজে সড়ক বিভাগের কয়েকজন ইঞ্জিনিয়ার উপস্থিত থেকে কাজ তদারকি করছেন বলে তিনি জানান।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
সম্পাদক
শরীফ মুজিবুর রহমান
নির্বাহী সম্পাদক
নাঈম পারভেজ অপু
আইটি উপদেষ্টা
সোহেল আসলাম
উপদেষ্টামন্ডলী
মোঃ ইমরান হোসেন চৌধুরী
কার্যালয়
১০৫, এয়ারপোর্ট রোড, আওলাদ হোসেন মার্কেট (৩য় তলা)
তেজগাঁও, ঢাকা-১২১৫।
ফোন ও ফ্যাক্স :+৮৮০-০২-৯১০২২০২
সেল : ০১৭১১২৬১৭৫৫, ০১৯১২০২৩৫৪৬
E-Mail: banglarchokh@yahoo.com, banglarchokh.photo1@gmail.com
© 2005-2021. All rights reserved by Banglar Chokh Media Limited
Developed by eMythMakers.com
Close