banglarchokh Logo

রাজশাহীতে প্রতিমা বিসর্জন

সোহরাব হোসেন সৌরভ রাজশাহী থেকে
বাংলার চোখ
 রাজশাহীতে প্রতিমা বিসর্জন

প্রতিমা বিসর্জনের মধ্য দিয়ে শেষ হতে যাচ্ছে হিন্দু ধর্মাবলম্বীদের প্রধান ধর্মীয় উৎসব দুর্গাপূজা। মঙ্গলবার সকাল থেকেই রাজশাহীতে শুরু হয়ে যায় প্রতিমা বিসর্জনের কার্যক্রম। নগরীর ফুদকিপাড়া সংলগ্ন মুন্নুজান স্কুল মাঠের পাশ্ববর্তী পদ্মা পাড়ে এ কার্যক্রম শুরু হয়।
এর আগে শুভ বিজয়া দশমী তিথিতে দেবী দুর্গাকে বিদায় জানানো ও সিঁদুর উৎসব অনুষ্ঠিত হয। মহালয়ার দিন ঘোড়ায় চেপে সন্তনদের নিয়ে মর্ত্যের দিকে যাত্রা করেছিলেন মা দুর্গা। চার সন্তান লক্ষ্মী, সরস্বতী, কার্তিক ও গণেশকে নিয়ে পাঁচ দিন মর্ত্যে ভক্তদের মধ্যে কাটালেন, পূজা নিলেন।
মঙ্গলবার সকাল থেকে পদ্মায় বিসর্জনের জন্য প্রতিমা নিয়ে যাওয়া হয়। ঢাক ঢোল পিটিয়ে দেবী দুর্গাকে জানানো হয় শ্রদ্ধা। ভক্তদের কাদিয়ে দেবী দুর্গা যখন যাচ্ছে চলে ঠিক তখনই বৃস্টির আগমন ঘটে। বিসর্জনের পরপরই বৃষ্টির মাধ্যমে শান্তি ছড়িয়ে দিলেন দেবী দুর্গা বলে মনে করছেন ভক্তরা।
পল্লবী রায় নামক এক ভক্ত বলেন, দুর্গা মা আমাদের সকল রোগ-শোক-জরা থেকে আমাদের রক্ষা করেন। মা যাচ্ছেন আমাদের অনেক খারাপ লাগছে। মা আমাদের শান্তির বার্তা দিয়ে যাচ্ছেন। এই বৃস্টি তারই এক আশির্বাদস্বরুপ।
বিসর্জন স্থলে মুন্নুজান স্কুল মাঠ জুড়ে অসংখ্য ভক্তদের ঢল নামে।  দেবী দুর্গাকে বিসর্জন দিতে ভীড় জমান শিশু, কিশোর-কিশোরীরাও। দেবী দূর্গাকে বিসর্জন আর প্রার্থনা চাইতে শেষ বারের মত আসেন তারা।

প্রতিমা বিসর্জন প্রাঙ্গনে নিরাপত্তা জোরদার করা হয়েছে বলে জানিয়েছে পুলিশ। পুলিশ যেকোন অপ্রীতিকর ঘটনার মোকাবিলা করতে সজাগ রয়েছে। মঙ্গলবার রাত সাড়ে আটটার মধ্যে প্রতিমা বিসর্জনের কার্যক্রম শেষ করতে হবে বলে নির্দেশনা দিয়েছে পুলিশ প্রশাসন। এমনটাই জানিয়েছেন রাজশাহী মেট্রোপলিটন পুলিশের অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার গোলাম রুহুল কুদ্দুস।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com