banglarchokh Logo

ঢাকায় শুরু হচ্ছে তৈরি পোশাক শিল্প পণ্যের চারটি আর্ন্তজাতিক প্রদর্শনী

ডেক্স রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 ঢাকায় শুরু হচ্ছে তৈরি পোশাক শিল্প পণ্যের চারটি আর্ন্তজাতিক প্রদর্শনী

 তৈরি পোশাক শিল্পের আধুনিকায়ন এবং উন্নয়নে রাজধানীতে শুরু হচ্ছে এ শিল্প সংশ্লিষ্ট চারটি আর্ন্তজাতিক প্রর্দশনী। আগামী বুধবার (১৫ জানুয়ারি) প্রধান অতিথি হিসেবে ইন্টারন্যাশনাল কনভেনশন সিটি বসুন্ধরায় (আইসিসিবি) চারদিনব্যাপী এ প্রদর্শনীগুলোর উদ্বোধন করবেন বানিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশি, এমপি। সোমবার রাজধানীর এক হোটেলে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে এসব তথ্য তুলে ধরে প্রদর্শণীর আয়োজকরা।

দেশের পোশাক খাতের উন্নয়নে মেশিনারি, ইয়ার্ন অ্যান্ড ফেব্রিকস, গার্মেন্টস অ্যাকসেসোরিজ এবং প্রিন্টিং অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যাশিনারি অ্যান্ড সাপোর্ট সার্ভিস নিয়ে প্রদর্শণী চারটির আয়োজন করা হয়েছে। বসুন্ধরার ১০টি হলজুড়ে প্রদর্শনীগুলোতে ২৪টি দেশের ৪৫০ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে।  

জাকারিয়া ট্রেড আ্যান্ড ফেয়ার ইন্টারন্যাশনাল, আসক ট্রেড অ্যান্ড এক্সিবিশন প্রাইভেট লিমিটেড এবং বাংলাাদেশ গার্মেন্ট অ্যাকসেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টারস অ্যাসোসিয়েসন (বিজিএপিএমইএ) সম্মিলিতভাবে প্রদর্শনীগুলোর আয়োজন করছে।

পোশাক শিল্পের মেশিনারি এবং এর সহায়ক পণ্যের ১৯তম আর্ন্তজাতিক প্রদর্শনী ‘গার্মেন্টেক বাংলাদেশ ২০২০’; ১১তম ‘ইয়ার্ন অ্যান্ড ফেব্রিক র্সোসিং ফেয়ার’; ১১তম ‘গ্যাপ এক্সপো-২০২০’ এবং ‘প্যাকটেক বাংলাদেশ ২০২০’ শীর্ষক প্রদর্শনী চারটি চলবে আগামী ১৫ থেকে ১৮ জানুয়ারি পর্যন্ত।
আগের আসরগুলোর ধারাবাহিকতায় এবারের প্রদর্শনীতে বাংলাদেশসহ ভারত , চীন, দক্ষিন কোরিয়া, তুরস্ক, ভিয়েতনাম, যুক্তরাজ্য, যুক্তরাষ্ট্র, শ্রীলঙ্কা, ইতালি, জার্মানি, সিঙ্গাপুর, জাপান, তাইওয়ান, সুইজারল্যান্ড, ফিনল্যান্ড, সুইডেন, থাইল্যান্ড, কলম্বিয়া, মালয়শিয়া, কানাডা, স্পেন, ফ্রান্স এবং হংকং’এর মোট ৪৫০ টি প্রতিষ্ঠান অংশগ্রহণ করবে। প্রতিষ্ঠানগুলো তাদের উৎপাদন, নিরাপত্তা, কর্মপরিবেশ, দক্ষতা, পণ্যের মান, বৈচত্র্যতা এবং মোড়কজাতকরণ ইত্যাদি কাজে ব্যবহৃত প্রযুক্তি উপস্থাপন করবে।
আয়োজক প্রতিষ্ঠান জাকারিয়া ট্রেড আ্যান্ড ফেয়ার ইন্টারন্যাশনাল এর প্রধান নির্বাহী টিপু সুলতান ভূঁইয়া বলেন, “২০২১ সালের মধ্যে ৫০ বিলিয়ন ডলারের পণ্য রপ্তানির লক্ষ্যে দ্রুতগতিতে এগিয়ে যাচ্ছে বাংলাদেশের তৈরি পোশাক খাত। এমন অবস্থায় এ খাতকে উৎপাদন, নিরাপত্তা, কর্মপরিবেশ, দক্ষতা, পণ্যের মান, বৈচত্র্যতা এবং মোড়কজাতকরণ ইত্যাদি সম্পর্কিত বিভিন্ন চ্যালেঞ্জের মধ্যে দিয়ে যেতে হচ্ছে। ‘গার্মেন্টেক বাংলাদেশ ২০২০’ এর ১৯তম আসরে তৈরি পোশাক খাতের সামনে এসব চ্যালেঞ্জ মোকাবেলায় এ খাতের জন্য সহায়ক পণ্যের প্রদর্শনীর ব্যবস্থা করা হয়েছে। আমরা আশা করছি আয়োজিত প্রদর্শনী চারটি দেশের তৈরি পোশাক খাতের জন্য ইতিবাচক ভুমিকা রাখবে।”

সংবাদ সম্মেলনে জানানো হয় প্রদর্শনীতে পোশাক তৈরির সর্বাধুনিক আন্তর্জাতিক প্রযুক্তিসমূহ তুলে ধরা হবে। এসব প্রযুক্তি দেশের তৈরি পোশাক শিল্পের  প্রধান চ্যালেঞ্জ  উৎপাদন, মান, কমপ্লায়েন্স এবং মূল্য সংযোজন বৃদ্ধিতে সাহায্য করবে।

‘গার্মেন্টেক বাংলাদেশ ২০২০’ এ আর্ন্তজাতিকমানের স্যুয়িং, নিটিং, এমব্রয়ডারি, লন্ড্রি, ফিনিশিং, ডায়িং, ক্যাড/ক্যাম, প্রিন্টিং কাটিং, স্প্রেডিং মেশিনারি তুলে ধরবে।

১১তম বারের মতো অনুষ্ঠিতব্য ‘ইন্টারন্যাশনাল ইয়ার্ন অ্যান্ড ফেব্রিকস সোর্সিং ফেয়ার’এ বিভিন্ন কোম্পানি প্রাকৃতিক ও কৃত্রিম সুতা এবং ওভেন ও নীট শিল্পের জন্য উভয়ের মিশ্রনের সর্বাধুনিক সংগ্রহ তুলে ধরবে। প্রদর্র্শনীতে আগত দর্শনার্থীদের সামনে গার্মেন্টস শিল্পের জন্য প্রাকৃতিক এবং কৃত্রিম ফেব্রিকের  নতুন এবং উদ্ভাবনীমূলক মিশ্রন উপস্থাপন করা হবে।

বাংলাাদেশ র্গামেন্ট অ্যাকসেসরিজ অ্যান্ড প্যাকেজিং ম্যানুফ্যাকচারার্স অ্যান্ড এক্সপোর্টারস অ্যাসোসিয়েসন (বিজিএপিএমইএ) এর সহযোগিতায় ‘গ্যাপেক্সপো-২০২০’ এর ১১তম আসরে থাকবে বাংলাদেশসহ অন্যান্য দেশের শীর্ষস্থানীয় প্রতিষ্ঠানগুলোর গার্মেন্টস অ্যাকসেসরিজ এবং মোড়কসহ সংশ্লিষ্ট পণ্যের বিস্তৃত সংগ্রহ।

‘প্যাকটেক বাংলাদেশ ২০২০’  প্রদর্শনীতে প্রিন্টিং, প্যাকেজিং ম্যাশিনারি এবং এর সংশ্লিষ্ট পণ্য এবং প্রযুক্তি তুলে ধরা হবে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com