banglarchokh Logo

সাংবাদিক আরিফুলকে আইনী সহায়তা দেবে বিএমএসএফ

ডেক্স রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 সাংবাদিক আরিফুলকে আইনী সহায়তা দেবে বিএমএসএফ

 কুড়িগ্রামে ডিসি কান্ডে নির্যাতন ও কারাদন্ডের শিকার সাংবাদিক আরিফুল ইসলাম রিগ্যানকে আইনী সহায়তা দেবে বিএমএসএফ। ডিসি কান্ডের ভ্রাম্যমান আদালতের দেয়া অবৈধ কারাদন্ড, তাকে নির্যাতন, লাঞ্ছিত এবং ভয়ভীতি দেখানোর দৃষ্টান্তমূলক বিচার পেতে বিএমএসএফ আরিফুলের পাশে থাকবে।

মঙ্গলবার বিকেলে বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামের কেন্দ্রীয় সাধারণ সম্পাদক আহমেদ আবু জাফর এক তথ্য সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে দন্ডপ্রাপ্ত ও নির্যাতনের শিকার আরিফুলের সুচিকিৎসা, পারিবারিক নিরাপত্তা রক্ষার বিষয়টি নিয়েও বিএমএসএফ’র আইন উপদেষ্টা পরিষদ আদালতের নজরে আনবে। আরিফুলকে দেয়া ভ্রাম্যমান আদালতের কারাদন্ডের বিরুদ্ধে বিএমএসএফ আইনী লড়াই করে যাবে।

উল্লেখ্য, গত ১৩ মার্চ গভীর রাত দেড়টার দিকে কুড়িগ্রামের তৎকালীন দূর্ণীতিবাজ ডিসি সুলতানা পারভীনের নির্দেশে আরডিসি নিজাম উদ্দিনের নেতৃত্বে একটি পেটোয়া বাহিনী সাংবাদিক আরিফুল ইসলামের বাসায় হানা দেয়। দরজায় গিয়ে পুলিশের লোক বলে খুলতে বললে না খোলায় লাথি মেরে ভেঙ্গে ঘরে ঢুকে তাকে উপুর্যূপরি কিলঘুষি ও লাথি মেরে চোখ বেঁধে টেনেহিচড়ে মাইক্রোতে তুলে নেয়। এক পর্যায়ে ক্রসফায়ারের জন্যও উদ্যত হন তারা। এ সময় আরিফুলের আত্মচিৎকার এবং পা ধরে অণুনয় বিনয়ের পরে ডিসি অফিসে নিয়ে যান। সেখানে একটি রুমে নিয়ে তাকে উলঙ্গ করে লোহার রড দিয়ে পিটিয়ে শরীরের বিভিন্ন স্থানে রক্তাক্ত ও ফুলা জখম করে ৪টি কাগজে স্বাক্ষর নেয়। ঐ দিন রাত ৩ টায় ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে ভ্রাম্যমান আদালত বসিয়ে তাকে এক বছরের কারাদন্ড প্রদান করেন। ঐ আদালতের রায়ে বলা হয়েছে আরিফুলের বাসায় আধা বোতল মদ ও এক’শ গ্রাম গাঁজা পাওয়া গেছে। এই অভিযোগে তাকে এক বছরের কারাদন্ডাদেশ প্রদান করা হয়।

এদিকে ডিসিকান্ডের ঘটনায় বাংলাদেশ মফস্বল সাংবাদিক ফোরামসহ সারাদেশের সাংবাদিক সমাজ প্রতিবাদে ফেটে পড়েন। এ ঘটনায় বিএমএসএফ’র ডাকে গত ১৬ মার্চ দেশব্যাপী দুই শতাধিক জেলা-উপজেলায় প্রতিবাদ সমাবেশ অনুষ্ঠিত হয়। ডিসিকান্ডের দৃষ্টান্তমূলক বিচারের দাবিতে বিএমএসএফ’র আন্দোলন অব্যাহত রাখা হয়েছে।
জানাগেছে, ডিসি সুলতানা পারভীন কুড়িগ্রামে থাকাকালে নানা দূর্ণীতি-অনিয়ম চালিয়ে আসছিল। এমনকি তিনি ক্ষমতার অপব্যবহার করে ৪০ বছরের একটি ঐতিহ্যবাহি পুকুরের নাম পরিবর্তন করে নিজ নামে সুলতানা সরোবর নামকরন করেন। এ সকল দূর্ণীতি ও অনিয়মের বিরুদ্ধে আরিফুল বিভিন্ন সময় তার বিরুদ্ধে সংবাদ প্রকাশ করায় তার ওপর ক্ষুব্ধ হয়ে ওঠেন ডিসি সুলতানা। ওই সংবাদ প্রকাশের জের ধরেই ওই দিন গভীর রাতে আরডিসি নিজামের নেতৃত্বে ৪০ জনের একটি টিম পাঠিয়ে ধরে এনে কারাদন্ড প্রদান করে ক্ষমতার দাপট দেখাতে চেয়েছিলেন। কিন্তু বিধিবাম! তা আর হলোনা! বিষয়টি উচ্চ আদালতের নজরে আসায় আরিফুলের বক্তব্য শুনতে আগামি সোমবার হাইকোর্টে ডাকা হয়েছে। ইতিমধ্যে বেনামে জামিন আবেদন করে আরিফুলকে জামিনে বের করে দেয়া হয়েছে। জেল থেকে বেরিয়ে আরিফুল কুড়িগ্রাম হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। চিকিৎসারত অবস্থায় ডিসি সুলতানা আরিফুলকে ফোন করে বিষয়টি নিয়ে মিডিয়ার সামনে না আসারও অনুরোধ করে। গত দু’দিন ধরে ডিসি ও আরিফুলের কথোপকথন ভাইরাল হয়ে গেছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com