banglarchokh Logo

করোনা নিয়ে ব্যস্ততার সুযোগে ইরানে হামলার পরামর্শ

ডেক্স রিপোর্ট
বাংলার চোখ
 করোনা নিয়ে ব্যস্ততার সুযোগে ইরানে হামলার পরামর্শ

মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও গত সপ্তাহে ইরানের সামরিক অবস্থানে হামলা চালানোর জন্য প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পকে রাজি করানোর চেষ্টা করেছিলেন বলে মার্কিন দৈনিক নিউ ইয়র্ক টাইমস খবর দিয়েছে। নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক কয়েকজন কর্মকর্তার বরাত দিয়ে দৈনিকটি লিখেছে, ট্রাম্প পম্পেওর পরামর্শ না শুনে ইরাকে কথিত ইরান-সমর্থিত আধাসামরিক বাহিনীর ঘাঁটিতে হামলা সীমিত রাখার নির্দেশ দিয়েছেন।

নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছে, গত সপ্তাহে ডোনাল্ড ট্রাম্পের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত এক বৈঠকে পম্পেও ইরানের সেনা অবস্থানে হামলা চালানোর যে প্রস্তাব করেন তার প্রতি হোয়াইট হাউজের জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা রবার্ট ওব্রায়েন ও মার্কিন জাতীয় গোয়েন্দার ভারপ্রাপ্ত প্রধান রিচার্ড গ্রেনেল সমর্থন জানান। কিন্তু বৈঠকে উপস্থিত মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জন এসপার ও সেনাপ্রধান জেনারেল মার্ক এ. মিলি এ প্রস্তাবের বিরোধিতা করেন। তারা বলেন, ইরানের  সামরিক অবস্থানে হামলা চালালে মধ্যপ্রাচ্যে ব্যাপকভিত্তিক যুদ্ধ শুরু হয়ে যেতে পারে।

উভয়পক্ষের বক্তব্য শোনার পর প্রতিরক্ষামন্ত্রীর বক্তব্য সমর্থন করে ট্রাম্প শুধুমাত্র ইরাকের কথিত ইরান-সমর্থিত আধাসামরিক বাহিনীর কয়েকটি ঘাঁটিতে হামলার নির্দেশ দেন।

নিউ ইয়র্ক টাইমস লিখেছেন, মাইক পম্পেও তার প্রস্তাবে বলেন, ইরান সরকার বর্তমানে করোনাভাইরাস মোকাবিলায় হিমশিম খাচ্ছে এবং এ অবস্থায় সেদেশের ওপর কঠোর হামলা তেহরানকে ওয়াশিংটনের সঙ্গে আলোচনায় বসতে বাধ্য করতে পারে। পম্পেও তার প্রস্তাবে পারস্য উপসাগরে মোতায়েন ইরানের যুদ্ধজাহাজেও হামলা চালানোর কথা বলেছিলেন।

কিন্তু প্রতিরক্ষামন্ত্রী ও সেনাপ্রধান মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রীর প্রস্তাবের বিরোধিতা করায় ইরান সম্পর্কে নীতি নির্ধারণের ক্ষেত্রে আমেরিকার শীর্ষস্থানীয় কর্মকর্তাদের মধ্যে তীব্র মতপার্থক্য স্পষ্ট হলো।

পার্সটুডে

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com