banglarchokh Logo

হালদায় ডিম সংগ্রহের উৎসব

মোর্শেদ আলম চট্টগ্রাম থেকে
বাংলার চোখ
 হালদায় ডিম সংগ্রহের উৎসব

এশিয়ার একমাত্র প্রাকৃতিক মৎস্য প্রজনন কেন্দ্র হালদায় ডিম ছাড়লো রুই কাতলা মৃগেল মা-মাছ। খবর পেয়ে জেলেরা নদীতে জাল ফেলে ডিম সংগ্রহের উৎসবে মেতে উঠে। ডিম সংগ্রহ ভাল বলেও জানিয়েছেন জেলেরা।

শুক্রবার (২২ মে) ভোর রাতে বৃষ্টির পরম মা-মাছ ডিম ছাড়তে শুরু করে।

এখন প্রায় ৩ শতাধিক ডিম সংগ্রহকারী নৌকা দিয়ে হালদা নদীর কাগতিয়ার মুখ থেকে গড়দুয়ারা নয়াহাট পর্যন্ত প্রায় ১৪ কিলোমটিার এলাকায় নৌকার মাধ্যমে জাল ফেলে জেলেরা নদী থেকে ডিম সংগ্রহ করছেন বলে নিশ্চিত করেন চট্টগ্রাম বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাণিবিদ্যা বিভাগের অধ্যাপক ও হালদা বিশেষজ্ঞ ড. মো. মনজুরুল কিবরীয়া।

সংগ্রহকারীদের তথ্য মতে, হালদার পশ্চিম গহিরা অংকুরী ঘোনা, বিনাজুরী, কাগতিয়ার আজিমের ঘাট, খলিফার ঘোনা, সোনাইর মুখ, আবুরখীল, খলিফার ঘোনা, সত্তারঘাট, দক্ষিণ গহিরা, মোবারকখীল, মগদাই, মদুনাঘাট, উরকিচর এবং হাটহাজারী গড়দুয়ারা, নাপিতের ঘাট, সিপাহির ঘাট, আমতুয়া, মার্দাশা ইত্যাদি এলাকায় ডিম পাওয়া যায় বেশি।

আম্পানের পর বৃষ্টি শুরু হলে বৃহস্পতিবার ও শুক্রবার হালদা নদীর জোয়ারের পানি বাড়তে থাকে, একই সাথে নামে উজানের ঢল। এতে রাতের দিকে হালদা নদীতে মা-মাছ নমুনা ছাড়ে। শুক্রবার সকালের দিকে জোয়ার হলে মা-মাছ পুরো দমে ডিম ছাড়তে শুরু করে। ডিম ছাড়ার খবর পেয়ে সংগ্রহকারীরা নৌকা, জালসহ ডিম ধরার সরঞ্জাম নিয়ে হালদায় নেমে পড়ে বলে জানিয়েছেন আইডিএফ’র জুনিয়র মৎস্য মো: রাশেদ। তিনি জানান, হালদায় এখন ডিম সংগ্রহের উৎসব চলছে।

জেলেরা জানিয়েছেন, শুক্রবার ভোর রাতে প্রতিটি জালে ১০০ থেকে ১৫০ গ্রাম পর্যন্ত নমুনা ডিম পাওয়া যায়। তবে বেলা বাড়ার সাথে সাথে ডিম সংগ্রহের পরিমাণ বাড়ছে। বেলা ১১টার পর প্রতি জালে এক কেজি করে ডিম পাওয়া যাচ্ছে।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com