banglarchokh Logo

বরগুনায় যুবককে কুপিয়ে যখম

পাথরঘাটা প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
 বরগুনায় যুবককে কুপিয়ে যখম

বরগুনার নলটোনা ইউনিয়নে মানিক (৩৬) নামের একজনকে কুপিয়ে যখম করেছে দুর্বৃত্তরা। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আবদুল্লাহ (২৫) নামের আরো একজন। শুক্রবার সন্ধ্যায় সদর উপজেলার নলটোনা ইউনিয়নের গর্জনবুনিয়া গণকবর এলাকায় এ ঘটনা ঘটে।

এ ঘটনায় আহত বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন আবদুল্লাহ জানান, গর্জনবুনিয়া এলাকা থেকে মোটরসাইকেলের যাবার পথে নিজাম, কালা শহীদ ও মুছা শহীদ মিজান, সোহাগ, সোহেল,তানজিল, তুষারসহ কয়েকজন তাদের পথ রোধকরে মোটরসাইকেল থেকে নামিয়ে মারধর শুরু করে। এক পর্যায়ে নিজাম ধারালো অস্ত্র দিয়ে মানিককে এলোপাতারি কুপিয়ে যখম করে। স্বজনরা মানিক ও আবদুল্লাহকে উদ্ধার করে বরগুনা জেনারেল হাসপাতালে নিয়ে আসার পর চিকিৎসকদের পরামর্শে মানিককে উন্নত চিকিৎসার জন্য বরিশালে পাঠানো হয়। বরগুনা জেনারেল হাসপাতালের চিকিৎসক নীহার রঞ্জন বৈদ্য জানান, মানিকের কাঁধ ও গলাসহ শরীরের বিভিন্ন স্থানে ধারালো অস্ত্রের আঘাতে যখম হয়েছে।

আবদুল্লাহর অভিযোগ, ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কবীরের বিরুদ্ধে জেলেদের চাল আত্মসাত বিষয়ে ডিসি বরাবরে লিখিত অভিযোগ দেয়ায় চেয়ারম্যানের ইন্ধনে তাঁর ভাইয়ের ছেলে মিজান ও সোহাগের পরিকল্পনায় নিজাম,কালা শহীদ ও মুছা শহীদের নেতৃত্বে তাঁদের উপর পরিকল্পিতভাবে হামলা করা হয়েছে।

তবে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, মানিক ও নিজামের মধ্যে ব্যক্তিগত বিরোধ ছিল। এর আগে মানিক নিজামকে মারধর করেছিল। এর বাইরেও এদের মাদককেন্দ্রিক আভ্যন্তরীণ দ্বন্দে মানিককে কুপিয়ে যখম করা হয়।

যোগাযোগ করা হলে ইউপি চেয়ারম্যান গোলাম কবীর অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমার ভাইয়ের ছেলেরা ঘটনাস্থলে উপস্থিত ছিলোনা। এ ঘটনাটি মূলত মাদক কেন্দ্রীক বিরোধে ঘটেছে, রাজনৈতিক প্রতিপক্ষ এ ঘটনাকে পুজি করে আমার বিরুদ্ধে অপপ্রচার চালাচ্ছে।

বরগুনা থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা আবির হোসেন মোহাম্মদ মুঠোফোনে জানান, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে ঘটনায় জড়িতদের গ্রেপ্তারে অভিযান চালিয়েছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা নেয়ার প্রক্রীয়া চলছে

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2020 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com