banglarchokh Logo

হাইকোর্টে রিট

চালনা পৌরসভা মেয়র পদে শপথ স্থগিত

দাকোপ (খূলনা) প্রতিনিধি
বাংলার চোখ
হাইকোর্টে রিট চালনা পৌরসভা মেয়র পদে শপথ স্থগিত

খুলনার দাকোপের চালনা পৌরসভা নির্বাচনে নব নির্বাচিত সংরক্ষিত তিনজন ও নয়জন সাধারণ কাউন্সিলর শপথ গ্রহন করেছেন। তবে অনুষ্ঠানে গেলেও মেয়র হিসেবে শপথ নিতে পারেননি নৌকা প্রতিকের প্রার্থী সনত কুমার বিশ^াস। উচ্চ আদালতে রিটের কারণে শপথ গ্রহন স্থগিত রাখা হয়েছে বলে বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ের একাধিক সূত্র জানিয়েছেন। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় খুলনা বিভাগীয় কমিশনার কার্যালয়ে নব নির্বাচিত এ কাউন্সিলরদের শপথ গ্রহন অনুষ্ঠানে শপথ বাক্য পাঠ করান বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইসমাঈল হোসেন।
সূত্রে জানা গেছে, চালনা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে প্রতিদ্বন্দি¦ প্রার্থী অধ্যক্ষ ড. অচিন্ত্য কুমার মন্ডল গত ৩ জানুয়ারী মাহামান্য হাইকোর্টের ২৪ নম্বর বেঞ্চে কেনো গেজেট প্রকাশ ও শপথ গ্রহন স্থগিত করা হবে না মর্মে ১১/২১ নম্বর রিটটি দায়ের করেন। গত ১০ জানুয়ারী রিটটি শুনানী শেষে বিজ্ঞ আদালত মেয়র পদে সনত কুমার বিশ^াসকে শপথ গ্রহন সাময়িক স্থগিত রাখার নির্দেশ দেন।
সূত্র মতে গত ২৯ ডিসেম্বর এক পত্রের মাধ্যমে নির্বাচন কমিশন চালনা পৌরসভা নির্বাচনে আওয়ামী লীগ মনোনীত নৌকা প্রতিকের প্রার্থী সনত কুমার বিশ^াসকে বেসরকারী ভাবে মেয়র নির্বাচিত ঘোষনা করেন। পত্রে বলা হয় নির্দেশনা মোতাবেক উক্ত মেয়র পদে সর্বোচ্চ ভোট প্রাপ্ত সনত কুমার বিশ^াস ৬ হাজার ৭২ ভোট পেয়ে বেসরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। স্থানীয় সরকার নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর বিধি ৪২ (২) অনুযায়ী খুলনা জেলা জেষ্ঠ নির্বাচন কর্মকর্তা ও রিটানিং কর্মকর্তা এম মাজহারুল ইসলাম গণবিজ্ঞপ্তির মাধ্যমে এ ফলাফল ঘোষনা করেন। নির্বাচনে মেয়র পদে তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী অধ্যক্ষ ড. অচিন্ত্য কুমার মন্ডল (প্রতিক জগ) ২ হাজার ৫১৫ ভোট পান। বিজ্ঞপ্তিতে জানানো হয় ২৮ ডিসেম্বর চালনা পৌরসভা নির্বাচনে মেয়র পদে বিএনপি মনোনীত প্রতিদ্বন্দ্বি প্রার্থী মোঃ আবুল খয়ের খান মৃত্যু বরণ করায় নির্বাচন কমিশন সচিবালয়ের মৌখিক নির্দেশে মেয়র পদের ফলাফল ভোট পরবর্তীতে সাময়িক ভাবে স্থগিত করা হয়।
এবিষয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী অধ্যক্ষ ড. অচিন্ত্য কুমার মন্ডল বলেন বিএনপি মনোনীত প্রতিদ্বন্দ্বি একজন প্রার্থীর মৃত্যুর কারণে নির্বাচন কমিশনই ভোট গ্রহন স্থগিত করলেন। পরদিন কিভাবে ফলাফল ঘোষনা করা হলো? তাছাড়া নানা অনিয়মও হয়েছে। আমার অভিযোগ আমলে নিয়ে গেজেট প্রকাশ ও শপথ স্থগিতের আদেশ দিয়েছে বিজ্ঞ হাইকোর্ট। প্রসঙ্গত ২০১১ সালের ১৩ ফেব্রুয়ারী থেকে ২০১৬ সালের ১ ফেব্রুয়ারী পর্যন্ত চালনা পৌরসভার মেয়র ছিলেন তিনি।
এব্যাপারে আ‘লীগ মনোনীত প্রার্থী সনত কুমার বিশ^াস জানান কোর্টে একটি রুল জারি করেছে বিধায় শপথ সাময়িক স্থগিত করেছে। তবে এটি কোন বিষয নয় বলে তিনি জানান।
খুলনা বিভাগীয় কমিশনার মোঃ ইসমাঈল হোসেন বলেন মহামান্য হাইকোর্টে একটি রিট হয়েছে বিধায় চালনা পৌরসভার মেয়র পদের শপথ সাময়িক স্থগিত রেখে শুধু কাউন্সিলরদের শপথ হয়েছে। আদালতের পরবর্তী নির্দেশনা পেলে ব্যবস্থা নেয়া হবে।
প্রসঙ্গত ইতোমধ্যে চালনা পৌরসভা নির্বাচনে নির্বাচিত প্রার্থীদের নাম ঠিকানা সম্বলিত গেজেট প্রকাশ করা হয়েছে। বাংলাদেশ নির্বাচন কমিশন (নির্বাচন প্রশাসন শাখা) উপ-সচিব (চলতি দায়িত্ব) মোঃ মিজানুর রহমান স্বাক্ষরিত এক পত্রে জানা গেছে গত ৫ জানুয়ারী বাংলাদেশ গেজেটের অতিরিক্ত সংখ্যায় প্রকাশিত এবং ১২ জানুয়ারী প্রাপ্ত দাকোপ উপজেলার চালনা পৌরসভার মেয়র, সংরক্ষিত ওয়ার্ডের কাউন্সিলর ও সাধারণ ওয়ার্ডের কাউন্সিলর পদে নির্বাচিত প্রার্থীদের নাম ঠিকানা সম্বলিত গেজেট প্রকাশ করেন। নির্বাচন বিধিমালা ২০১০ এর ৪৩ নম্বর বিধি অনুযায়ী ঘোষিত নির্বাচিত প্রার্থীদের নামের তালিকায় ২৮ ডিসেম্বর অনুষ্ঠিত চালনা পৌরসভা নির্বাচনে আ‘লীগ মনোনীত প্রার্থী সনত কুমার বিশ^াসকে মেয়র পদে গেজেটে নির্বাচিত ঘোষনা করা হয়। সংরক্ষিত কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে আমোদিনী রায়, ২নং ওয়ার্ডে হাছিনা বেগম এবং ৩নং ওয়ার্ডে নাছিমা বেগম। সাধারণ কাউন্সিলর পদে ১নং ওয়ার্ডে শুভংকর রায়, ২নং ওয়ার্ডে আব্দুল বারিক গাজী, ৩নং ওয়ার্ডে মোঃ রোস্তম আলী খান, ৪নং ওয়ার্ডে আইয়ুব কাজী, ৫নং ওয়ার্ডে চয়ন সাহা, ৬নং ওয়ার্ডে সুধীন্দ্র বিশ^াস (মাখন), ৭নং ওয়ার্ডে মোঃ আব্দুস সাত্তার সরদার, ৮নং ওয়ার্ডে এস এম আব্দুল গফুর এবং ৯নং ওয়ার্ডে শেখ মেহেদী হাসান বুলবুলকে গেজেটে নির্বাচিত ঘোষনা করেন।

সকল প্রকাশিত/প্রচারিত কোনো সংবাদ, তথ্য, ছবি, আলোকচিত্র, রেখাচিত্র, ভিডিওচিত্র, অডিও কনটেন্ট কপিরাইট আইনে পূর্বানুমতি ছাড়া ব্যবহার করা যাবে না।
কপিরাইট © 2021 বাংলারচোখ.কম কর্তৃক সর্ব স্বত্ব ® সংরক্ষিত। Developed by eMythMakers.com