Banglar Chokh | বাংলার চোখ

ডলারের দাম আরও বাড়লো

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৫৩, ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২২

ডলারের দাম আরও বাড়লো

ছবি:সংগৃহীত

গত মঙ্গলবার ডলারের আন্তঃব্যাংক লেনদেনের মূল্য পরিবর্তন করে বাংলাদেশ ব্যাংক। এদিন এক ব্যাংক থেকে আরেক   ব্যাংকে ডলার লেনদেনে ১০৬ টাকা ১৫ পয়সা নির্ধারণ করে দেয়। তবে বুধবার এই দর আরও ৭৫ পয়সা বাড়ানো হয়েছে। এখন এক ডলার কিনতে ব্যাংকগুলোকে গুনতে হচ্ছে ১০৬ টাকা ৯০ পয়সা।  বুধবার বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে ব্যাংকগুলোর ডলার কেনাবেচার ক্রয়মূল্য দেখা গেছে ১০২ টাকা ৩৭ পয়সা। আগের দিন এই দর ছিল ১০১ টাকা ৬৭ পয়সা। আর মঙ্গলবার ১০৬ টাকা ১৫ পয়সা বিক্রয়মূল্যের দর বুধবার বেড়ে হয়েছে হয়েছে ১০৬ টাকা ৯০ পয়সা। বাংলাদেশ ব্যাংক সূত্র বলছে, ডলারের এই দর ব্যাংকগুলোর নিজেদের মধ্যে লেনদেন করা ডলারের দাম। কেন্দ্রীয় ব্যাংকের ইস্যু করা ডলারের দর নয়।  তবে এতদিন বাংলাদেশ ব্যাংক যে দামে ডলার কেনাবেচা করতো, সেটিই আন্তঃব্যাংক দর হিসাবে উল্লেখ করা হত।

এতদিন সেই দামই ওয়েবসাইটে প্রকাশ করে আসছিল বাংলাদেশ ব্যাংক। বাংলাদেশ ব্যাংকের মুখপাত্র ও নির্বাহী পরিচালক সিরাজুল ইসলাম বলেন, বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলার এসোসিয়েশনের (বাফেদা) নির্ধারিত দরে ব্যাংকগুলো নিজেরা লেনদেন করবে। এটি আন্তঃব্যাংক লেনদেন হিসেবে বিবেচিত হবে। কেন্দ্রীয় ব্যাংক আগের মতো প্রতিদিন ডলার বিক্রি করবে না।
 তবে প্রয়োজন হলে ব্যাংকগুলোর কাছে ডলার বিক্রি করা হবে। কিন্তু আন্তঃব্যাংক রেট বাংলাদেশ ব্যাংকের ডলার বিক্রির রেট হবে না। এদিকে রিজার্ভ থেকে বাংলাদেশ ব্যাংক আগের দামেই ডলার বিক্রি করছে। মঙ্গলবার ডলার বিক্রি করা হয়েছে ৯৬ টাকা দরে। এর আগে রোববার ব্যাংকারদের সংগঠন এসোসিয়েশন অব ব্যাংকার্স বাংলাদেশ (এবিবি) ও বৈদেশিক মুদ্রার ডিলার ব্যাংকগুলোর সংগঠন বাংলাদেশ ফরেন এক্সচেঞ্জ ডিলারস এসোসিয়েশন (বাফেদা) বৈঠক করে আন্তঃব্যাংকে ডলারের বিনিময় হার হবে ১০৬ টাকা ১৫ পয়সা নির্ধারণ করে। বাংলাদেশ ব্যাংকের ওয়েবসাইটে বলা হয়েছে, টাকা ও ডলারের বিনিময় মূল্য ব্যাংকগুলো নির্ধারণ করেছে। জোগান ও চাহিদা এবং বাফেদার নির্ধারণ করা দরের ভিত্তিতে ডলারের এই দর নির্ধারণ করা হয়েছে। বাংলাদেশ ব্যাংক দৈনন্দিন ভিত্তিতে ডলার কেনাবেচার মধ্যে নেই। তবে বাজার বিবেচনায় প্রয়োজন হলে কেনাবেচা করবে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়