Banglar Chokh | বাংলার চোখ

ডলারের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব ৪ খাতে পড়বে

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০৬:৫০, ১ ডিসেম্বর ২০২২

ডলারের মূল্যবৃদ্ধির প্রভাব ৪ খাতে পড়বে

.

মার্কিন ডলারের মূল্য ঊর্ধ্বমুখীর কারণে চলতি অর্থবছরের (২০২২-২৩) চারটি খাতে নির্দিষ্ট বরাদ্দের চেয়ে অতিরিক্ত প্রায় ২৪ হাজার কোটি টাকা ব্যয় গুনতে হবে।
খাতগুলো হচ্ছে বৈদেশিক ঋণ ও সুদ পরিশোধ, অপরিশোধিত জ্বালানি তেল, চাল-গম এবং সার আমদানি। চলতি অর্থবছরের বাজেটে এসব খাতে বরাদ্দের ক্ষেত্রে প্রতি মার্কিন ডলারের মূল্য ৮৭ টাকা ধরে অঙ্ক কষা হয়।

কিন্তু রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধসহ বৈশ্বিক সংকটের প্রভাবে দেশে ডলারের বিনিময়মূল্য অস্বাভাবিক বৃদ্ধি পায়। পরে সরকারের পক্ষ থেকে ডলারের একটি অভিন্ন মূল্য নির্ধারণ করা হয়। সেক্ষেত্রে আমদানি পর্যায়ে ডলারের মূল্য ১০৪.৫০ টাকা ধরা হয়। ওই হিসাবে এই অতিরিক্ত ব্যয় বৃদ্ধি পায়। সংশ্লিষ্ট সূত্রে পাওয়া গেছে এসব তথ্য।

সূত্র থেকে আরও জানা যায়, টাকার বিপরীতে ডলারের মূল্যবৃদ্ধির কারণে চাল ও গম আমদানিতে অতিরিক্ত ব্যয়বৃদ্ধির বিষয়টি আলোচনায় উঠে আসে খাদ্য পরিকল্পনা ও পরিধারণ কমিটির বৈঠকে।

এছাড়া সার আমদানিতে ডলারজনিত সমস্যা ও অতিরিক্ত টাকা বরাদ্দ চেয়ে কৃষি মন্ত্রণালয় থেকে চিঠি দেওয়া হয় অর্থ মন্ত্রণালয়ে। বৈদেশিক ঋণ ও সুদ পরিশোধের অতিরিক্ত ব্যয়ের হিসাবটি পর্যালোচনা করছে অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগ (ইআরডি)। তবে এখন পর্যন্ত জ্বালানি তেল আমদানিতে বাড়তি অর্থ চেয়ে কোনো পত্র আসেনি অর্থ বিভাগে।

সূত্রমতে, মার্কিন ডলারের মূল্যবৃদ্ধির কারণে ব্যয়বৃদ্ধি পেয়েছে বৈদেশিক ঋণ ও সুদ পরিশোধ খাতে। এক্ষেত্রে অতিরিক্ত অর্থের প্রয়োজন হবে ৪৮৫১ কোটি টাকা। একইভাবে সার আমদানিতে অতিরিক্ত ব্যয় গুনতে হবে ১০ হাজার ৮৯৯ কোটি টাকা। এছাড়া চাল ও গম আমদানিতে অতিরিক্ত ৪ হাজার ৫৭০ কোটি টাকা এবং অপরিশোধিত জ্বালানি তেল খাতে ৩ হাজার ৪৯৬ কোটি টাকা ব্যয় বেড়েছে।

উৎস:যুগান্তর

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়