Banglar Chokh | বাংলার চোখ

নোয়াখালী সুবর্ণচরে অর্ধশতাধিক দোকান ঘর উচ্ছেদ

মোঃ ইমাম উদ্দিন সুমন, নোয়াখালী প্রতিনিধি

প্রকাশিত: ২০:০৯, ১০ আগস্ট ২০২২

নোয়াখালী সুবর্ণচরে অর্ধশতাধিক দোকান ঘর উচ্ছেদ

নিজস্ব ছবি

 নোয়াখালী সুবর্ণচরে সরকারি জায়গায় অবৈধ ভাবে দোকান ঘর স্থাপন করায় প্রায় অর্ধশতাধিক দোকান ঘর ও বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে ভ্রাম্যমাণ আদালত।

বুধবার (১০ আগস্ট) সকালে উপজেলার চরবাটা ইউনিয়নের ভূঁইয়ার হাট বাজার এলাকায় এ অভিযান পরিচালিত হয়।

ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করেন, দুই জন জেলা সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট দেবাশীষ অধিকারী ও দেবব্রত দাশ। অভিযানে সহযোগীতা করে চরজব্বর থানা পুলিশ।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, ভূঁইয়া হাট বাজারের উত্তর মাথায় রাস্তার পূর্বপাশে নবনির্মিত টিনের চাউনি দোকান ঘর, বাজারের বাঁধন কাউন্টার সংলগ্ন বিএডিসি সড়কের দু'পাশে নির্মিত দোকান ঘর, পাবলিক টয়লেট সংলগ্ন দোকান ঘর, এবং মেইন সড়কের পাশে মাছ বাজারের দোকন ঘর সহ প্রায় অর্ধশতাধিক দোকান ঘর ও বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়।

অভিযান চলাকালীন আইনশৃঙ্খলা বাহিনী সদস্যদের উপস্থিতি ছিলো চোখে পড়ার মতো। তবে ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশনায় দোকানীরা অশ্রু ঝরিয়ে স্বল্প সময়ের মধ্যে দোকানের মালামাল সরিয়ে নেন। 

উচ্ছেদ হওয়া ক্ষতিগ্রস্থ স্থানীয় ব্যাবসায়ী কাইয়ুমসহ একাধিক ব্যবসায়ী অভিযোগ করে বলেন, ২নং চরবাটা ইউনিয়ন আওয়ামিলীগের সাধারণ সম্পাদক আলা উদ্দিন নিজের কাগজপত্র আছে বলে অবৈধ ভাবে কয়েকটি দোকানঘর নির্মাণ করে সেগুলো ৪/৫ লক্ষ টাকা করে বিক্রি করেন, বর্তমানে ক্ষতিগ্রস্তরা আলা উদ্দিনের কাছ থেকে সে ফিরে পেতে প্রশাসনের সহযোগিতা কামনা করেন। 
অভিযুক্ত আলা উদ্দিন বলেন, আমার কাগজ পত্র আছে, যে ঘর গুলো ভেঙ্গেছে সে সকল দোকান মালিককে আমি ক্ষতিপূরণ দিয়ে দিবো।

ম্যাজিস্ট্রেট দেবাশীষ অধিকারী জানান, নিদিষ্ট একটি সময়ের মধ্যে এগুলো সরিয়ে নেয়ার জন্য একটি নোটিশ দেওয়া হয়েছে। নোটিশকে উপেক্ষা করে তারা দখলে রাখায় জেলা প্রশাসকের নির্দেশনায় এ অভিযান পরিচালনা করা হয়। এবং এখানে প্রায় ৫০ টি দোকান ঘর ও বেশ কিছু অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে এ জায়গা উদ্ধার করা হয়েছে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়