Banglar Chokh | বাংলার চোখ

অভিমানে ওই ছাত্রীর পিতা  বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

শেখ তোফাজ্জ্বল হোসাইন,নাটোর থেকে

প্রকাশিত: ২২:৩৫, ১১ অক্টোবর ২০২২

অভিমানে ওই ছাত্রীর পিতা  বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রতীকী ছবি

নাটোরের লালপুরে কলেজছাত্রীর সঙ্গে বিপ্লব হোসেন (৩৫) নামে এক কলেজশিক্ষককে আপত্তিকর অবস্থায় আটক করে গণধোলাই দিয়েছে এলাকাবাসী। এঘটনায় অভিমানে ওই ছাত্রীর পিতা সোমবার দুপুরে বিষ খেয়ে আত্মহত্যার চেষ্টা করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসাধীন রয়েছে।

সূত্র জানায়, দীর্ঘদিনের প্রেমের সম্পর্ক থাকায় রোববার সকালে উপজেলার মালপাড়া গ্রামে ওই কলেজ ছাত্রী প্রাইভেট থেকে বাড়ি ফেরার পথে এক বাড়িতে গিয়ে আপত্তিকর অবস্থা হাতেনাতে আটক করে ওই শিক্ষককে মারধর এলাকাবাসী।

পরে খবর পেয়ে ওই শিক্ষকের স্বজনরা তাকে উদ্ধার করে নিয়ে যায়। এর আগেও নারী কেলেঙ্কারিতে জড়িয়েছিলেন এ শিক্ষক। তবে স্থানীয়ভাবে প্রভাবশালী হওয়ায় এসব ঘটনার উপযুক্ত বিচার হয় নি বলে দাবি করেছেন ওই সূত্র। অভিযুক্ত ওই শিক্ষক লালপুর ডিগ্রী কলেজের বাংলা বিভাগের প্রভাষক ও রামকৃষ্ণপুর গ্রামের সাহাবাজ মন্ডলের ছেলে। শিক্ষক কেলেঙ্কারির এসব দুঃখজনক উল্লেখ করে লালপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ইসাহাক আলী বলেন, শুনেছি লালপুর ডিগ্রী কলেজের বিপ্লব নামে এক শিক্ষকের সাথে তারই এক ছাত্রী আপত্তিকর অবস্থায় ধরা পড়েছে।

এর আগেও ওই শিক্ষক ওই ছাত্রীর সাথে অনৈতিক ভাবে মেলামেশা করত।বিষয়টি যদি সত্যিই হয় তবে এটা সমাজ সভ্যতার জন্য নৈতিক বিপর্যয়। সমাজকে তারা সুস্থ করবে, এর পরিবর্তিতে শিক্ষকরা এমন ঘটনা ঘটালে এ সমাজ যাবে কোথায়? এবিষয়ে লালপুর ডিগ্রী কলেজের অধ্যক্ষ আব্দুল মাজেদের কাছে জানতে চাইলে বিষয়টি তিনি এড়িয়ে যান। আর অভিযুক্ত ওই শিক্ষককে একাধিকবার ফোন করলেও তার মুঠোফোন বন্ধ পাওয়া যায়। এবিষয়ে লালপুর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা শামীমা সুলতানা বলেন, বিষয়টি সম্পর্কে আমি অবগত নয়। খোঁজ নিয়ে ঘটনার সত্যতা পাওয়া গেলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়