Banglar Chokh | বাংলার চোখ

জামালগঞ্জে আমনের বাম্পার ফলনে খুশি কৃষকগণ 

জামালগঞ্জ (সুনামগঞ্জ) প্রতিনিধি 

প্রকাশিত: ২০:৪৭, ৪ ডিসেম্বর ২০২২

জামালগঞ্জে আমনের বাম্পার ফলনে খুশি কৃষকগণ 

নিজস্ব ছবি

সুনামগঞ্জ জেলার জামালগঞ্জ উপজেলায় এবার রোপা আমন ধানের বাম্পার ফলন হয়েছে। ভাল ফসলের সাথে মিলছে দামও। দাম ভাল পাওয়ায় খুশি কৃষকরা। কৃষকরা জানিয়েছেন এবছর আমনের ভালো ফলনের পাশাপাশী ভালো দামও পাওয়া যাচ্ছে। ইতিমধ্যে যারা আমন ধান বিক্রি করেছেন তারা ভালো দাম পেয়েছেন। তারা বলেছেন সরকার নিজের জন্য আমন ধান ও চাউল কিনার যে দাম দিয়েছেন সেই কারনে এবার আমানের ভালো দাম পাচ্ছেন কৃষকরা।
উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ অফিস সূত্রে জানা যায় এবার জামালগঞ্জে রোপা আমনের লক্ষ মাত্রা ধরা হয়েছিল চার হাজার দুইশত আশি হেক্টর জমি। তবে চলতি মৌসুমে ৪ হাজার ৪শত ৪৫ হেক্টর জমিতে রোপা আমনের আবাদ হয়েছে। গত বছরের তুলনায় এবছর একশত পয়ষট্রি হেক্টর জমিতে রোপা আমনের চাষ বেশী হয়েছে। 
উপজেলা ভীমখালী ইউনিয়নের কৃষক আতিকুজ্জান বলেন, ২২ বিঘা জমিতে আমন ধান চাষ করেছি। ১০ বিঘা জমির ধান কাটা হয়েছে। প্রতি বিঘায় ১২ থেকে ১৫ মন ধান হয়েছে। অন্যগুলোতে একই রকম ধান হবে আশা করি। দাম ভালো থাকায় আমরা খুশি। জমি থেকে সরাসরি একহাজার পঞ্চাশ টাকা মন বিক্রি হচ্ছে। তিনি আরো জানান এবছর কারেন্ট পোকা সহ বিভিন্ন পোকার আক্রমন তেমন একটা ছিলনা। গত বছরের তুলনা এবছর ধানের ফলন ভাল হয়েছে। 
এব্যপারে উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক মো: শাহাব উদ্দিন জানান, এবছর বোরো সংগ্রহের মত আমন ধানও এ্যাপসের মাধ্যমে সংগ্রহ করা হবে। এলক্ষ্যে কৃষকদের মাঝে প্রচার প্রচারনা চালানো হয়েছে। তবে এখনও কৃষকরা বাহিরে বেশী দাম পাওয়ায় সরকারি গোদামে ধান বিক্রি করতে আগ্রহী হচ্ছেনা। 
এব্যপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো: আলা উদ্দিন জানান উপজেলার ৪শত ৪৫ হেক্টর জমিতে রোপা আমনের আবাদ হয়েছে, এপর্যন্ত ৩০ হেক্টর জমির ধান কাটা হয়েছে। আশা করি ডিসেম্বর মাসের মধ্যেই ধান কেটে কৃষকরা তাদের সোনালী ফসল ঘরে তুলতে পারবে। আবহাওয়া অনুকোলে থাকায় চাষীরা অনেক জমিতে কম্বাইন্ড হারভেষ্টার মেশিনের মাধ্যমে খুব দ্রুত ধান কাটতে পারছে। ধানের ফলন ও দাম ভালো পাওয়ায় কৃষরা লাভবান হচ্ছে। 
 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়