Banglar Chokh | বাংলার চোখ

২৬ মার্চ উদযাপনের নামে ইউএনওর চাঁদাবাজির অভিযোগ 

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ০১:৪২, ২৬ মার্চ ২০২৩

আপডেট: ০২:০৫, ২৬ মার্চ ২০২৩

২৬ মার্চ উদযাপনের নামে ইউএনওর চাঁদাবাজির অভিযোগ 

দাওয়াত কার্ড

মহান স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে সরকারি বরাদ্দ থাকার পরও পটুয়াখালীর কলাপাড়ায় ২৬ মার্চ উদযাপনের নামে চাঁদাবাজির অভিযোগ উঠেছে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. জাহাঙ্গীর হোসেনের বিরুদ্ধে।
 
 ইউএনও জানান, সরকারি বরাদ্দ খুবই অপ্রতুল হওয়ায় তিনি সবার সহযোগিতায় ২৬ মার্চ উদযাপন করতে চান। তা ছাড়া সারাদেশে এভাবেই স্বাধীনতা দিবস উদযাপন করা হয়।

অভিযোগ উঠেছে, চাঁদার টাকা তুলতে ১৫ সদস্যের অর্থ বিষয়ক উপ-কমিটি করে ইউএনও নিজেই ফোনে এবং তার অফিসের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের মাধ্যমে অনুষ্ঠানের আমন্ত্রণ পত্র দিয়ে এ টাকা তোলেন। চাঁদাবাজির এ টাকা ২৬ মার্চের অনুষ্ঠানে ব্যয় করা হবে বলে দাবি করে টাকা জমা নিচ্ছেন ইউএনও কার্যালয়ের প্রশাসনিক কর্মকর্তা মো. আবুল বাশার।

এমনকি বৈশ্বিক মন্দার কারণে ইউএনও’র প্রতিনিধিদের দাবি করা চাঁদার টাকা যারা দিতে পারেননি তাদের ওপর ইউএনও নাখোশ হয়েছেন বলে ব্যবসায়ীদের নানাভাবে জানানো হয়। টাকা না দিতে পারা সাধারণ ব্যবসায়ীরা হয়রানি আতঙ্কে ভুগছেন। এ নিয়ে ভুক্তভোগীরা জেল জরিমানার ভয়ে প্রকাশ্যে মুখ না খুললেও অনেকেই গণমাধ্যমকর্মীদের বিষয়টি অবগত করেন।

সূত্র জানায়, স্বাধীনতা দিবস উদযাপনে রাষ্ট্রীয় বরাদ্দ থাকার পরও ইউএনও’র চাঁদার তালিকা থেকে বাদ যায়নি ব্যাংক, এনজিও, জনপ্রতিনিধি, ইটভাটা, করাতকল, সার ব্যবসায়ী, ঔষধ ব্যবসায়ী, স্বর্ণ ব্যবসায়ী, মৎস্য আড়ৎ ব্যবসায়ী সমিতি, চাল ব্যবসায়ী সমিতি, বন্দর ব্যবসায়ী সমিতি, হোটেল মোটেল মালিক সমিতি, প্রাইভেট ক্লিনিক অ্যান্ড ডায়গনস্টিক সেন্টার, সমিতিসহ বেসরকারি বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান।

উৎস: সময় সংবাদ

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়