Banglar Chokh | বাংলার চোখ

রাঙামাটিতে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন;১০ লাখ টাকা জরিমানা

আলমগীর মানিক,রাঙামাটি থেকে

প্রকাশিত: ২০:২৪, ২৯ নভেম্বর ২০২২

রাঙামাটিতে স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের দায়ে প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন;১০ লাখ টাকা জরিমানা

নিজস্ব ছবি

রাঙামাটির লংগদুতে নিজ বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীকে ধর্ষনের ঘটনায় দায়েরকৃত মামলায় দোষী প্রমাণিত হওয়ায় প্রধান শিক্ষকের যাবজ্জীবন কারাদন্ডসহ ১০ লাখ টাকা জরিমানার আদেশ দিয়েছেন আদালত। মঙ্গলবার দুপুরে আসামীর উপস্থিতিতে রাঙামাটির নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনাল এর বিচারক এ.ই.এম ইসমাইল হোসেন এই রায় প্রদান করেছেন। দন্ডপ্রাপ্ত আব্দুর রহিম (৪৬)রাঙামাটির লংগদু উপজেলাধীন করল্যাছড়ি আরএস উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক ছিলেন।
এই রায়ে রাষ্ট্রপক্ষের আইনজীবি বিশেষ পাবলিক প্রসিকিউটর এ্যাডভোকেট মোঃ সাইফুল ইসলাম অভি ও বাদীপক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট রাজীব চাকমা সন্তুষ্ট প্রকাশ করেছেন। অপরদিকে আসামীপক্ষের আইনজীবি এ্যাডভোকেট মোখতার আহামেদ জানিয়েছেন তারা এই রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপীল করবেন এবং সেখানে তারা ন্যায় বিচার পাবেন বলে আশা প্রকাশ করেছেন। 
আদালত থেকে প্রাপ্ত তথ্যানুসারে জানাগেছে, বিগত ২০২০ সালের ২৫শে সেপ্টেম্বর তারিখে আসামী ভিকটিমকে লেবু দেওয়ার কথা বলে তার কার্যালয় কক্ষে নিয়ে জোরপূর্বক ধর্ষণ করে এবং ভয়ভীতি দেখিয়ে ঘটনা কাউকে নাজানাতে বলেন। এই ঘটনার পর ভিকটিমের মা বাদী হয়ে ১০ই অক্টোবর ২০২০ তারিখে লংগদু থানায় ধর্ষণ মামলা দায়ের করেন। এই মামলায় লংগদু থানার এসআই সুজন হালদার ও পরিদর্শক মোহাম্মদ জাকির হোসেন ২৮/১০/২০২১ ইং তারিখে আসামীর বিরুদ্ধে ধর্ষনের সত্যতা পেয়ে নারী শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ এর ৯(১) ধারায় অভিযোগপত্র দাখিল করে।
এই মামলার রায় ঘোষণার সময় আদালত তার পর্যবেক্ষণে জানান, আসামীর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ সন্দেহাতীতভাবে প্রমানিত হয়েছে। তাই আসামীকে শিশু নির্যাতন দমন আইন-২০০০ এর ৯(১) ধারায় সর্বোচ্চ শাস্তি যাবজ্জীবন কারাদন্ড এবং ভিকটিমের জন্য ক্ষতিপূরণ বাবদ ১০ লাখ টাকা জরিমানা অনাদায়ে আরো তিন বছর কারাদন্ডের আদেশ দিয়েছেন আদালত। 
 

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়