Banglar Chokh | বাংলার চোখ

গণসমাবেশের সমর্থনে রাজপথে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা

ডেস্ক রিপোর্ট

প্রকাশিত: ২০:১০, ৭ ডিসেম্বর ২০২২

গণসমাবেশের সমর্থনে রাজপথে বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা

ছবি-সংগৃহীত

১০ই ডিসেম্বর বিএনপি’র ঢাকা বিভাগীয় গণসমাবেশ সফল করতে বিক্ষোভ মিছিল করেছে জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরাম।  দুপুরে সুপ্রিম কোর্ট প্রাঙ্গণ থেকে মিছিল শুরু হয়ে শিক্ষা ভবন, কদম ফোয়ারা, জাতীয় ঈদগাহ মাঠ হয়ে বার কাউন্সিল গেটে এসে শেষ হয়। মিছিলে কয়েকশ’ বিএনপিপন্থি আইনজীবী অংশগ্রহণ করেন। 


মিছিল শেষে বক্তব্য রাখেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল। বিএনপি’র সমাবেশ নয়াপল্টনে হবে জানিয়ে তিনি বলেন, ১০ই ডিসেম্বরের সমাবেশ সফল করতে প্রচারণার অংশ হিসেবে আমাদের এই মিছিল। সোহরাওয়ার্দী উদ্যান সন্ত্রাসীদের অভয়ারণ্য। সেখানে কোনো সমাবেশ হবে না। যেকোনো মূল্যে আমরা সমাবেশ সফল করবো।
মিছিলের নেতৃত্ব দেন জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সভাপতি ও সাবেক অ্যাটর্নি জেনারেল এ জে মোহাম্মদ আলী, বিএনপি’র ভাইস চেয়ারম্যান ও সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সভাপতি এডভোকেট জয়নুল আবেদীন, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সাধারণ সম্পাদক ব্যারিস্টার কায়সার কামাল, সুপ্রিম কোর্ট বারের সাবেক সম্পাদক ব্যারিস্টার রুহুল কুদ্দুস কাজল, জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের সুপ্রিম কোর্ট শাখার সভাপতি আব্দুল জাব্বার ভূঁইয়া ও সাধারণ সম্পাদক এডভোকেট কামরুল ইসলাম সজল।
এদিকে, দুপুর পৌনে ১২টায় ঢাকা মহানগর দায়রা জজ আদালত থেকে পথসভা বের করেন বিএনপিপন্থি আইনজীবীরা। পথসভাটি ঢাকা জজ কোর্ট, সিএমএম আদালত প্রদক্ষিণ করে আইনজীবী সমিতি ভবনের সামনে গিয়ে শেষ হয়।

পথসভার নেতৃত্ব দেন বিএনপিপন্থি আইনজীবী মাসুদ আহম্মেদ তালুকদার। মিছিল শেষে সংক্ষিপ্ত সমাবেশে তিনি বলেন, আপনারা জানেন সমগ্র বাংলাদেশের একটি শান্তিপূর্ণ আন্দোলন করে সেই আন্দোলনের সফল সমাপ্তির জন্য আগামী ১০ই ডিসেম্বর বিএনপি ঢাকায় সমাবেশ করবে। বাংলাদেশের সর্বস্তরের জনগণ স্বতঃস্ফূর্তভাবে সমাবেশে অংশ নেয়ায় সরকার ভীত।

তাই অতীতের ন্যায় সমাবেশকে বাধাগ্রস্ত করতে সরকার মরিয়া হয়ে গেছে। অন্যায়ভাবে রাজনৈতিক ব্যক্তিবর্গের বাড়িতে হানা দিচ্ছে। মামলায় হাজিরা দিতে আসার সময় তাদের গ্রেপ্তার করা হচ্ছে অথবা পরোয়ানা জারি করা হচ্ছে। আমরা এ অন্যায়কে মেনে নিতে পারি না। আদালতকে এই সরকার রাজনৈতিকভাবে নিয়ন্ত্রণ করার অসৎ উদ্দেশ্যে অন্যায়ভাবে চাপ দিয়ে যাচ্ছে। আদালতকে ব্যবহার করে এই সরকার রাজনৈতিক ব্যক্তিদের জামিন বাতিল করছে। আমরা এটা মেনে নিতে পারি না।

শেয়ার করুনঃ

সর্বশেষ

জনপ্রিয়